সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এরশাদকে নিয়ে ফের রোমান্টিক গুঞ্জন! কে এই দিলারা…

12313958_1154020251294771_7-696x234

ডেইলি সিলেট ডেস্ক::
জাতীয় পার্র্টির চেয়ারম্যান এবং প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদকে ঘিরে আবারো তৈরি হয়েছে রোমান্টিক গুঞ্জন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে, তিনি নাকি ফের বিয়ে করেছেন! গাইবান্ধা জেলার এক নারী আইনজীবির সঙ্গে তার কিছু ছবি ভাইরাল হয়েছে। এরশাদের সঙ্গে ঘরোয়া পরিবেশে একই অাসনে বসা ঘোমটা দেওয়া ওই ভদ্রমহিলার নাম দিলারা খন্দকার শিল্পী। জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব তিনি।

ফেসবুকে এরশাদ ও দিলারা খন্দকারের এসব ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে ক্যাপশন লিখে দেওয়া হচ্ছে যে, এরশাদ আবারো বিয়ে করেছেন! বেশ কয়েক দিন ধরেই এ নিয়ে কানাঘুষা চলছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত সহকারী সুনীল শুভ রায় পুরো বিষয়টি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়ে বলেন, এটি একটি মিলাদ মাহফিলের ছবি। কোন ধরনের যাচাই, বাছাই না করে এই ছবিকে বিয়ের ছবি বলে প্রচার করে অন্যায় করা হচ্ছে। আমাদের অফিসে এমন হাজারো ছবি আছে। সব ছবিকে কী তাহলে বিয়ের ছবি বলে প্রচার করা হবে? এসব ছবি ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকারের ল’চেম্বার উদ্বোধনের সময় ছবিটি তোলা হয়।

জাতীয় পার্টির এক প্রেসিডিয়াম সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, বিয়ের ঘটনা সত্য নয়। বিয়ের গুঞ্জন উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ছড়ানো হয়েছে। ছবিটা পার্টির কেন্দ্রীয় নেত্রী ব্যারিস্টার দিলারা খন্দাকরের। চেয়ারম্যানের সঙ্গে তার খুবই ঘণিষ্ঠ সম্পর্ক্। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ব্যারিস্টার দিলারা পলাশবাড়ী-সাদুল্ল্যাপুর নির্বাচনী এলাকার জাতীয় পার্টির প্রার্থী ছিলেন।

তিনি আরো বলেন, এরশাদের নির্দেশে যে অংশটি নির্বাচনে যায়নি এবং পরে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন ব্যারিস্টার দিলারা তাদের মধ্যে একজন। এর আগে এই আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ছিলেন দলের বহিষ্কৃত এবং কাজী জাফরের জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. টিআইএম ফজলে রাব্বী।

এদিকে পার্টির চেয়ারম্যানের সঙ্গে তোলা ছবি নিয়ে ফেসবুকে নানা মন্তব্যে বিব্রত ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী। এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ফেসবুকে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, আমি এই নোংরা ব্যাপার সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালতের একজন আইনজীবী হিসেবে আমি জানি, এই নোংরা বিষয়ের মোকাবেলা কীভাবে করতে হবে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: