সর্বশেষ আপডেট : ২৩ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৬ মে, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মৃত্যুদণ্ডের রায়ে বাংলাদেশ তৃতীয়: অ্যামনেস্টি

107929_143নিউজ ডেস্ক : মৃত্যুদণ্ডের সংখ্যা ২০১৫ সালে ব্যাপকভাবে বেড়েছে বলে জানাচ্ছে মানবাধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।
বাংলাদেশে ২০১৫ সালে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়া হয়েছে ১৯৭টি। যা বিশ্বের মধ্যে তৃতীয় অবস্থানে । আর মৃত্যদণ্ড কার্যকর হয়েছে চারটি। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তাদের বার্ষিক প্রতিবেদনে এমনটাই জানাচ্ছে।

বিশ্বজুড়ে ২০১৫ সালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যে সমস্ত মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে এবং মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে তারই বার্ষিক খতিয়ান তুলে ধরেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

সংস্থাটি বলছে গত বছর, সব মিলিয়ে ১৬শর বেশি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

অ্যামনেস্টির হিসেবে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে ইরান, পাকিস্তান ও সৌদি আরবে।

ইরানে কমপক্ষে ৯৭৭টি মৃত্যুদণ্ডের হিসাব রয়েছে।

পাকিস্তানে ৩২৬টি, সৌদি আরবে ১৫৮টি।অ্যামনেস্টি বলছে, চীনে প্রতিবছর হাজার হাজার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হচ্ছে। তবে তা গোপন রাখা হচ্ছে।
তালিকার চৌদ্দ-তম স্থানে আছে বাংলাদেশ এবং মৃত্যুদণ্ডের সংখ্যা ২০১৫ সালে ৪টি বলে অ্যামনেস্টির রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

তবে ২০১৫ সালে মৃত্যুদণ্ডের রায়ের দিক থেকে প্রতিবেশী পাকিস্তান ও ভারতকে পেছনে ফেলে তৃতীয় অবস্থানে বাংলাদেশ। সংস্থাটির হিসেবে মোট রায় হয়েছে ১৯৭টি।

২০১৫ সালে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়া হয়েছে যেসব দেশের তার মধ্যেও শীর্ষে চীন । দেশটিতে সবোর্চ্চ এই দণ্ডের এক হাজার রায় দেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা মিশরে ৫৩৮টি রায় হয়েছে।

অ্যামনেস্টি হিসেবে ৬১টি দেশে অন্তত ১৯৯৮টি মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়া হয়েছে গেল বছর জুড়ে। সূত্র: বিবিসি বাংলা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: