সর্বশেষ আপডেট : ১৫ মিনিট ২৫ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ইউপি নির্বাচন: শেষ পর্যন্ত থাকতে চায় বিএনপি

full_1123202270_1459770036নিউজ ডেস্ক: তৃতীয় ও চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে বিএনপি। বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাচন সমন্বয়ের সঙ্গে যুক্ত এক নেতা জানিয়েছেন কাল থেকে এ নির্বাচনের জন্য দলীয় প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়ার কাজ শুরু করবেন তারা। এর আগে মার্চে দুই ধাপে ইউপিতে নির্বাচন সম্পন্ন হয়। তৃতীয় দফায় আগামী ২৩ এপ্রিল ৬৮৫টি ইউপিতে এবং চতুর্থ ধাপে ৭ মে ৭১৩টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে। এবার মোট ছয় ধাপে তৃণমূলের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আগামী ৭ এপ্রিল পর্যন্ত তৃতীয় ধাপের নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন পত্র জমা দেয়া যাবে।

নির্বাচনে থাকা না-থাকা নিয়ে রোববার রাতে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন খালেদা জিয়া। বৈঠক সূত্র জানায়, বৈঠকে নির্বাচনে থাকার পক্ষেই মত দেন বেশিরভাগ জ্যেষ্ঠ নেতা। অল্প কয়েকজন নেতা নির্বাচন থেকে সরে আসার যুক্তি তুলে ধরেন। তবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বর্জনের বিষয়ে দলীয় প্রধান কোনো সিদ্ধান্ত দেননি সভায়। আজ খালেদা জিয়া মাঠপর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এবং জোটের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবেন।

যারা নির্বাচন থেকে সরে আসার কথা বলেছেন তাদের যুক্তি ছিল, এই নির্বাচনে লাভের চেয়ে বরং ক্ষতিই বেশি হচ্ছে। কারণ অনেক যায়গায় নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর কাছে বিএনপির প্রার্থীদের ভরাডুবি হচ্ছে। এতে দলীয় প্রতীক ধানের শীষের মার্যাদাহানি হচ্ছে। এছাড়াও বহু যায়গায় দলীয় প্রার্থী পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে লাভের চেয়ে ক্ষতিই বেশি হচ্ছে। মামলা-মোকদ্দমার কারণে অনেকেই ভোটের মাঠে আসতে পারছেন না। এতে দলীয় প্রার্থীরা প্রতিন্দ্বন্দ্বীতা গড়ে তুলতে পারছেন না। তাই ইউপি নির্বাচন থেকে সরে আসাই ভালো।

বৈঠকে নির্বাচনে থাকার পক্ষে যারা মত দিয়েছেন তাদের যুক্তি ছিল, এত সহজে মাঠ ছেড়ে দেওয়া ঠিক হবে না। গত দুই বছরে মাঠ পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা মামলা-মোকদ্দমায় আত্মগোপনে ছিলেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তারা কিছুটা প্রকাশ্যে আসতে পেরেছেন। কেউ কেউ বলেছেন, দখল-কারচুপি হবে—এসব জেনেই নির্বাচনে গেছেন তারা। এখন সিদ্ধান্ত বদলানো ঠিক হবেনা।

আজ সোমবার রাতে বিএনপির শরিক ২০ দলীয় জোটের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন খালেদা জিয়া। এরপরই জানা যাবে বিএনপি নির্বাচনে থাকবে কি থাকবেনা।

উল্লেখ্য, ইউপি নির্বচন নিয়ে নানা অভিযোগ করে আসছে বিএনপি। এসব অভিযোগের মধ্যে রয়েছে বিএনপির প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা না দিতে হুমকি। কেন্দ্র দখল ও ভোট জালিয়াতি করে জয় ছিনিয়ে নেওয়া। এ অবস্থায় নির্বাচনে থাকা না-থাকা নিয়ে দলের মধ্যে নানা আলোচনা তৈরি হয়। মাঠপর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে দলীয় প্রধান নির্বাচন বর্জনের একরকম সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন বলেই সূত্রের খবর। কিন্তু শেষ পর্যায়ে খালেদা জিয়া তার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছেন বলে নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: