সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রবাসে ‘বাংলার আগুন’ মৌলভীবাজারের ফয়জুল হক

full_2072438613_1459710569আবু তাহির, ফ্রান্স::
প্রভাবশালী ফরাসী পত্রিকা ‘ইস্ট রিপাবলিকান’ তাকে বলছে ‘feux de Bengale’ (ফু দ্যা বেঙ্গল), বাংলায় যার অর্থ ‘বাংলার আগুন’। রান্নায় হাতের অসাধারণ যশে তিনি নিজ দেশের খাবারকে তুলে এনেছেন অনন্য এক উচ্চতায়।

তার খাবারের স্বাদ নিয়েছেন ফরাসী মন্ত্রী, রাজনীতিক, শিল্পপতি থেকে শুরু করে নানা শ্রেণী পেশার বিশিষ্টজনেরা। সবার মুখে তার শ্রেষ্ঠত্বের প্রশংসা।

ফয়জুল হক। ফ্রান্সে প্রবাসী বাংলাদেশি। থাকেন ফ্রান্সের অদূরে নৈসর্গিক সৌন্দর্যের শহর দিজনে। ফয়জুলের জন্ম মৌলভীবাজার জেলার শমসেরনগরে, ১৯৬৩ সালে। দিজনে প্রতিষ্ঠিত রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী তিনি। সেখানে তিনটি রেস্তোরার মালিক তিনি।

এক মেয়ে ও চার ছেলে নিয়ে বর্তমানে ফ্রান্সের অদূরে নৈসর্গিক সৌন্দর্যের শহর দিজনে বসবাস করছেন। সেইসঙ্গে, নিজেও একজন বিখ্যাত রন্ধনশিল্পী। জানালেন, খাবার নিয়েই তার যতো কথা….

তিনি বলেন, আমরা স্বাধীন দেশের মানুষ হয়ে কেন ইন্ডিয়ার নাম দিয়ে আমাদের ঐতিহ্যকে ফুটিয়ে তুলব। তাই আমার প্রতিজ্ঞায় আমি বাংলাদেশি খাবারকে ইউরোপে ব্র্যান্ড হিসেবে তুলে ধরবো। আমার বিশ্বাস আমাদের আন্তরিকতা ও উপস্থাপনা ভাল হলে এটা সম্ভব। ইদানিং লক্ষণীয় যে অনেক ফরাসীরাও বাংলাদেশি খাবার নিয়ে অত্যন্ত আগ্রহী।

আমি ইউরোপে একজন বাংলাদেশি হয়ে অনেক নামি-দামি রান্না বিষয়ক ফেস্টিভ্যালে তুলে ধরেছি, বাংলার হাজার বছরের ঐতিহ্যবাহী খাবারকে। আন্তর্জাতিক মানের রান্না করে অনেক প্রশংসাপত্রও পেয়েছি। আমাদের তরুণ প্রজন্ম যদি রেঁস্তরাকে শিল্প হিসেবে নিতে পারে তাহলে একদিকে আমাদের দেশীয় কর্মসংস্থান বৃদ্ধি পাবে এবং এখাতে ব্রিটেনকে ছাড়িয়ে ফ্রান্সে বিরাট সম্ভাবনা সৃষ্টি হবে।

ফয়জুল হক ব্যক্তিজীবনে একজন সজ্জন ও পরোপকারী মানুষ। এছাড়াও তিনি অনেক সামাজিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত আছেন। এতবড় মাপের একজন আন্তর্জাতিক শেফ হয়েও তার মধ্যে নেই কোনো অহংকার। তিনি সর্বদাই সদালাপী মানুষ।

তার এই কিংবদন্তী হয়ে ওঠার পেছনে রয়েছে তার প্রতিভা ও পরিশ্রম। সময়ের পরিক্রমায় বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে কাজ করতে করতে এক সময় রন্ধন শিল্পে পেয়েছেন সফলতা। তার সততা, দক্ষতা, মেধা ও পরিশ্রমের মাধ্যমে রন্ধন শিল্পের জগতে নতুন নতুন ইতিহাস রচনা করেন।

দূরদর্শী ফয়জুল শুধু নিজে নয় আন্তরিকতার মধ্য দিয়ে প্রায় ৫০০ জন বাঙ্গালিকে বানিয়েছেন শেফ, যারা বর্তমানে ফ্রান্সে দাম্ভিকতার সাথে কাজ করে দেশে রেমিটেন্স পাঠাচ্ছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: