সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জগন্নাথপুরে প্রবাসীর ৪ কোটি টাকার জায়গা বেদখল, মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ

1. daily sylhet jaganthpur news fওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ::
জগন্নাথপুরে এক যুক্তরাজ্য প্রবাসীর বাড়ির মালিকানা প্রায় ৪ কোটি টাকা মূল্যের জায়গা জবর দখল করে নিয়েছে প্রতিবেশিরা। জায়গা ফিরে পেতে তিনি পুলিশসহ বিভিন্ন মহলের দ্বারেদ্বারে ঘুরতে ঘুরতে হতাশ হয়ে পড়েছেন। মানুষের কাছে বিচার প্রার্থী হওয়ার কারণে এবং জায়গা আত্মসাৎ করতে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে প্রবাসীকে হয়রানী করা হচ্ছে।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, জগন্নাথপুর পৌর শহরের হবিবনগর গ্রামের বাসিন্দা যুক্তরাজ্য প্রবাসী দিলাওর হোসেন যুক্তরাজ্যে থাকার সুযোগে তাঁর বাড়ির প্রায় ৩ কোটি টাকা মূল্যের ৪৫ শতক জায়গা প্রতিবেশি আব্দুল আলী ও আব্দুস সামাদ এবং আরেক প্রতিবেশি আবুল হাসনাত চুনু প্রায় ১ কোটি টাকা মূল্যের আরো ১৬ শতক জায়গা বাউন্ডারি দেয়াল নির্মাণ করে জবর দখল করে নিয়ে যায়। এ খবর পেয়ে বাড়ির মালিক যুক্তরাজ্য প্রবাসী দিলাওর হোসেন যুক্তরাজ্য থেকে বাড়িতে ফিরে এসে তাঁর বেদখল হয়ে যাওয়া জায়গা উদ্ধার করতে থানা পুলিশসহ বিভিন্ন বিভিন্ন মহলের দ্বারেদ্বারে ঘুরলেও সুবিচার থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছেন। এ নিয়ে গ্রামবাসী ও জগন্নাথপুর বাজার বণিক সমিতির উদ্যোগে দফায় দফায় শালিস বৈঠক বসলেও আব্দুস সামাদ পরিবারের অসযোগিতার কারণে বিষয়টি নিস্পত্তি হয়নি।

অবশেষে ২০১৫ সালের ১৮ নভেম্বর প্রবাসী দিলাওর হোসেন বাদী হয়ে প্রতিবেশি আব্দুল আলী, আব্দুস সামাদ ও আবুল হাসনাত চুনুকে আসামী করে জগন্নাথপুর থানায় একটি জিডি করেন। তিনি থানায় জিডি করায় প্রতিপক্ষের আব্দুস সামাদ পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন। এ সময় তারা প্রবাসীকে হয়রানী করার জন্য একের পর এক মামলা দায়ের করেন। চলতি বছরের ১ মার্চ প্রতিপক্ষের আব্দুস সামাদ বাদী হয়ে প্রবাসী দিলাওর হোসেনকে আসামী করে জগন্নাথপুর থানায় জিডি করেন। থানা পুলিশ এ জিডির ব্যাপারে তদন্ত করে ঘটনাটি মিথ্যা বলে সুনামগঞ্জ আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে। এর পর গত ১৫ মার্চ সুনামগঞ্জ আদালতে আব্দুস সামাদ প্রবাসী দিলাওর হোসেনের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা করেন। এছাড়া উড়ো চিঠির মাধ্যমে প্রবাসীকে জানানো হয়, হাইকোর্টে তাঁর বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা করা হয়েছে। এসব মামলায় প্রবাসীর মামাতো ভাই আমির হোসেন, ভাতিজা আলী হোসেন ও আব্দুল আলীমকেও আসামী করা হয়।

এ ব্যাপারে যুক্তরাজ্য প্রবাসী দিলাওর হোসেন বলেন, আমি বাড়িতে না থাকার সুযোগে আমার বাড়ির প্রায় ৪ কোটি টাকা মূল্যের জায়গা বাউন্ডারি দেয়াল দিয়ে জবর দখল করে নিয়েছে প্রতিবেশি আব্দুল আলী, আব্দুস সামাদ ও আবুল হাসনাত চুনু। আমার বেহাত হয়ে যাওয়া জায়গা ফিরে পেতে থানা পুলিশসহ বিভিন্ন মহলের কাছে বিচার প্রার্থী হয়েও বিচার পাচ্ছি না। উপরন্ত আমার জায়গা আত্মসাৎ করতে এবং আমাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিতে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাকে ও আমার শুভাকাঙ্খিদের হয়রানী করা হচ্ছে। তিনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, সরকারি সার্ভেয়ার এনে আমার বাড়িসহ প্রতিবেশিদের বাড়ির জায়গা দলিল অনুযায়ী সীমানা নির্ধারণ করা হোক। এতে যদি আমার বাড়িতে তারা জায়গা পায়, তাহলে আমি সাথে সাথে দেয়াল ভেঙে ফিরিয়ে দেবো। আর আমি পেলে আমার জায়গা ফিরিয়ে দেয়া হোক। কিন্তু আজ পর্যন্ত কোন সার্ভেয়ার এনে জায়গা নির্ধারণের উদ্যোগ নেননি কেউ। তাই আমার বেহাত হয়ে যাওয়া জায়গা ফিরে পেতে এবং মিথ্যা মামলার হয়রানী থেকে রক্ষা করতে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এ ব্যাপারে জানতে প্রতিপক্ষের কারো সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: