সর্বশেষ আপডেট : ৪৫ মিনিট ২৫ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘বেকুব বাঙ্গালী আসলেই একটা ঘুমপ্রিয় অকৃতজ্ঞ জাতি’

full_2140778307_1459618466আগে মনে করেছিলাম বাংলাদেশের আমজনতাই আবাল এখন দেখি সেদেশের জাতীয় দলের খেলোয়াড় মুশফাক না কি যেন নাম মুশফিক সে দেখি আরো বড় আবাল। ভারত হারায় তুমি খুশি হইয়া এবার ঘুম দিবা -তাই না? ছিঃ ছিঃ। তোমাদের কোনো লজ্জা শরম নাই।

আমাদের অশ্বিন দাদা ট্যুইট করে বলেছে- বাংলাদেশ হারলে সারা ক্রিকেট দুনিয়া খুশি হয়। তাই বলে-এমন কথা তোমরা বলতে পারোনা। ১৯৭১ সালেই তোমরা তা হারিয়েছো। স্বাধীনতা যুদ্ধে আমরা তোমাদের সাহায্য না করলে এখনো তোমাদের পেয়ারা পাকিস্তানের লাথি গুথা খাইয়া থাকতে হতো। শুধু তাইনা, এখন যদি আশেপাশের দেশ যেমন- নেপাল, ভুটান, বার্মা, তোমাগো দেশ ধুম কইরা আক্রমণ করে বসে-তবে কে তোমাদের দেশ বাঁচাতে এগিয়ে আসবে? কে তোমাদের দেবে ভরসা? আমরাই আসবো। এছাড়া, আমরা তোমাগো মাঝেই এই পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি বাহিনী প্রতিষ্ঠায় নিয়মিত সাহায্য করে আসছি।

কারণ-আমরা শান্তিপ্রিয় জাতি। আরেকটি দেশের স্বাধীনতায় অবদান রাখতে পারলে সেটা কি ভালো হবেনা? তাই বলে-আবার তোমরা আমাদের সেভেন সিস্টারের স্বাধীনতাকামীদের নিয়ে আবালের মতো কিছু বলে ফেলোনা। সেটা হবে-চরম অপরাধ। আমাদের শাহরুখ খান তোমাগো দেশে কনসার্ট করতে গেলে তোমাগো মন্ত্রি মাটিতে বসে থাকে। সেই জন্যইতো তোমাগো সাংবাদিকদেরও আমরা হোটেলের বাইরে মাটিতে বসিয়ে রাখি। কারণ-তোমরা মাটির মানুষ, মাটি ভালোবাসো। অথচ, সেটা ভালো চোখে না দেখে সেটারও তোমরা সমোলোচনা করো? ছিঃ।

তোমাদের সবকিছুতেই সমালোচনা। পদ্মার পানি আটকে রেখেছি-বলে সমালোচনা শুনতে হয়। অথচ এটার যে একটা ভালো দিক আছে-সেটাও বুঝে বুঝলানা। পানিতো আকাশ থেকেই পড়ে। কিন্তু, তামুক কি আর আকাশ থেকে পড়ে। দেখেছো, পদ্মা শুকিয়ে যাওয়া চরে এখন কত সুন্দর তামুকের চাষ হয়। মানুষ টিভির সামনে বসে বসে তামুক খাবে, আর খেলা দেখবে।

তাছাড়া, তামুক বিক্রির টাকায় ফেন্সিডিল, ইয়াবাসহ নানা রকমের মাদকের ব্যবসা হয়। ভালো না বলো? পানি দেইনা, কারণ পানি কি বিক্রি করা যায়? তামুকতো কত সুন্দর বিক্রি করা যায়। আমাদের মমতা দিদি সেটা বুঝতে পেরেইতো বলেছেন-মরণের আগে উনি কোনো পানি মানে জল দিবেন না। ব্যাপারটা ভালো না। আমরা গরু পাঠিয়ে তোমাদের প্রোটিন ঠিক রাখি। সেটা খেয়ে আবার তোমাদের হার্টব্লক হয়। আবার চিকিৎসা করে আমরাই তোমাদের বাঁচিয়ে রাখি। কত সুন্দর বিনিময় প্রথা দেখেছো। দেশ স্বাধীন হওয়ার আগেও যেমন তোমাদের নিয়ে আমাদের চিন্তা ছিলো, দেশ স্বাধীন হওয়ার পরেও সেই চিন্তা আমাদের ছিলো। সেইজন্যই -আমরা বলেছিলাম- আমাদের সেনা তোমাদের দেশে থাকুক।

সমস্যা কি? পাক বাহিনী কিন্তু সেটা বুঝেই আমাদের কাছেই সারেণ্ডার করেছিলো। দেখেছো-কত সুন্দর আমাদের মিল মহব্বত। আমরা মনে করেছিলাম- আমাদের সেনাই তোমাদের দেশ রক্ষায় নিয়োজিত থাকবে। সেইজন্য ভুটান নামক একটা দেশ প্রথম তোমাদের স্বাধীন দেশ হিসাবে স্বীকৃতি দেয়। আমরা দেইনাই। কারণ-আমরা মনে করেছিলাম-আমরা-আমরাইতো।

আফসুস!!বেকুব বাঙ্গালী সেটা বুঝলোনা। ছোট একটা দেশ, অথচ তোমাদের দেশে কত মানুষ। সেইজন্যই-আমাদের সেনারা নিজেদের বন্ধুকের গুলি খরচ করে কিছু মানুষ মেরে ফেলে। বলো- সেই বন্ধুকের গুলির টাকা কি আমরা কখনো চেয়েছি? অন্যান্য দেশের সীমান্তে এরকম মানুষ মরেনা। কারণ-ওসব দেশে লোকবসতি অতো ঘন না। অথচ, এসব নিয়েও তোমরা সমালোচনা করো।

মুশফিকের কথা থেকেই বুঝা যায়-তোমরা কত সুন্দর একটা ঘুমপ্রিয় জাতি। সেটা অবশ্যই আমরা অনেক আগেই বুঝেছি। খাঁটি সরিষার তেল আর ঘুম নিয়ে কত সুন্দর তোমাদের এড। নাকে তেল আর ঘুম। আহা! কি আরাম!! সেজন্যইতো-তোমাদের বিলিয়ন ডলার জমা টাকার সিকিউরিটি ব্যবস্থা আমাদের কাছেই থাকে।

যাতে তোমরা এসব নিয়ে কোনো দুশ্চিন্তা না করে আরামেই ঘুমাতে পারো। যা করার আমরাই করবো। সব ব্যাপারেই তোমাদের চিন্তামুক্ত রাখতে পারলেই আমরা খুশি। তোমরা খাবে-দাবে, সিরিয়াল, কনসার্ট, খেলা দেখবে আর আরামে ঘুমাবে। আমাদের দুঃখে তোমরা দুঃখি হবে, আমাদের সুখে তোমরা সুখি হবে। এরকমইতো হওয়ার কথা ছিলো বন্ধু।

আরিফ মাহমুদ, ছোট গল্পকার, যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টা থেকে

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: