সর্বশেষ আপডেট : ২১ মিনিট ২৭ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অমানবিক : জগন্নাথপুরে পাওনা টাকার জন্য বাড়িঘর ভেঙে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ

unnamedওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ, জগন্নাথপুর::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে পাওনা টাকার জন্য বাড়িঘর ভেঙে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে জগন্নাথপুর উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের কুবাজপুর আহমেদাবাদ গ্রামে। বর্তমানে শুন্য ভিটায় ঝুপরী বানিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার। সোমবার সরজমিনে গ্রামের শালিসি ব্যক্তি শায়েস্তা মিয়া, জবুল হোসেন, সিরাজ উদ্দিন, স্বপন মিয়া, আফাজ উদ্দিন চৌধুরীসহ গ্রামের অন্যান্য লোকজন জানান, ঘটনাটি খুবই অমানবিক। এ ধরনের ঘটনা সভ্য সমাজে কাম্য নয় উল্লেখ করে তারা বলেন, গ্রামের হতদরিদ্র দিনমজুর লুৎফুর রহমান বিগত প্রায় ৯ মাস আগে তার বাড়ি বন্ধক রেখে একই গ্রামের ওমান প্রবাসী মজিদ মিয়ার কাছ থেকে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা আনেন। কথা ছিল পরবর্তী ১০ মাসের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু এর মধ্যে এখনো প্রায় ১ মাস বাকি থাকলেও গত শুক্রবার ভোররাতে প্রবাসী মজিদ মিয়ার লোকজন দিনমজুর লুৎফুর রহমানের বাড়িঘর ভেঙে নিয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে দিনমজুর লুৎফুর রহমানের স্ত্রী হোছনা বেগম বাদি হয়ে প্রবাসী পক্ষের তাজুল ইসলামসহ ৭ জনকে আসামী করে জগন্নাথপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের আলোকে গত রোববার জগন্নাথপুর থানার এস আই লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ সময় দিনমজুর লুৎফুর রহমানের স্ত্রী হোছনা বেগম জানান, প্রতিপক্ষের টাকা পরিশোধ করার জন্য আমার পিতার বাড়ি থেকে টাকা এনে ঘরে রেখেছিলাম। তিনি অভিযোগ করে জানান, প্রতিপক্ষের লোকজন আমাদের পরিবারের সকলকে মারপিট করে সেমি দেয়াল বিশিষ্ট টিনসেড ঘরটি সম্পূর্ণ ভেঙে নিয়ে যায়। সেই সাথে ঘরে থাকা নগদ টাকা, আসবাবপত্রসহ সবকিছু লুটপাট করে নিয়ে গেছে। এতে প্রায় সাড়ে ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

তিনি কান্না জড়িত কণ্ঠে জানান, বর্তমানে ৪ টি শিশু সন্তানসহ খোলা আকাশের নিচে আমাদের শুন্য ভিটায় প্লাস্টিকের বস্তা দিয়ে ঝুপরী বানিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছি। যোগাযোগ করা হলে ওমান প্রবাসী মজিদ মিয়ার স্ত্রী আয়রুন বেগম পরে কথা হবে বলে এড়িয়ে যান। জগন্নাথপুর থানার এস আই লুৎফর রহমান জানান, অভিযোগের আলোকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযোগের বাদিনী জানিয়েছেন, এলাকার গন্যমান্য লোকজন বিষয়টি নিস্পত্তি করে দিবেন। তা না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: