সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কৃষি ও কৃষক জাতীয় উন্নয়নের মূল ভিত্তি

23. krishiপিযুষ চক্রবর্তী::
বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার নদীমাতৃক কৃষিজ সম্পদ নির্ভর- শষ্য শ্যামল উন্নয়নশীল একটি দেশ। দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, বি-বাড়ীয়া, মৌলভীবাজার, নেত্রকোনা এবং সিলেটসহ ৭টি জেলা হাওর-বাওর বেষ্টিত কৃষি প্রধান অঞ্চল। একমাত্র কৃষিই এতদ্অঞ্চল সহ জাতীয় আয়ের মূল চালিকাশক্তি। ষড়ঋতুর দেশ এবং প্রাকৃতিক ফসল নির্ভর, কৃষক সহ সারাদেশের মানুষ। কৃষক জাতির মেরুদন্ড এবং কৃষিজ সম্পদ ও ফসল জীবন-জীবিকার মূল ধারক ও বাহক। ভাটির কৃষক ৪৪ বছর যাবৎ কৃষিজ ফলনে গচ্ছা দিয়ে আসছেন। বিভিন্ন তথ্যসূত্র অনুযায়ী ৪৪ বছরের মধ্যে ভাটির কৃষক অন্তত ৩০ বছর এ রকম শিলাবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি অকাল বন্যার কবলে পড়েছে। যার ফলে প্রকৃতির নিয়মের সাথে লড়াই করে ভাটির কৃষককূল এখন অসহায় ও নির্বিকার।

নির্বাচন আসলে রাজনৈতিক দলগুলো মজার মজার শ্লোগান দিয়ে কৃষকের ভোট নিয়ে সরকার গঠন করেন কিন্তু নির্বাচন পরবর্তী কোন সরকারই কৃষকের কথা আর মনে রাখেন না। বিভিন্ন তথ্যসূত্রে জানা যায় কৃষকের ১মণ ধান ফলাতে খরচ হয় ৬৬৬ টাকা। আবার যখন বিক্রি করতে হয় তখন কৃষক বিক্রি করেন ৪০০/- টাকা থেকে ৫০০ টাকা। প্রতি মণে কৃষক গচ্ছা দেন ২৬৬/১৬৬ টাকা।

যখন কৃষকের ঘরে ধান থাকে না তখন আবার বাজারে ধানের দাম বেড়ে যায়। এমনি করে চলছে ভাটির কৃষক জনপদের জীবন যাত্রা। তাতে সরকারের ও কৃষিমন্ত্রীর কর্ণপাত নেই। সম্প্রতি ভাটি অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় শিলাবৃষ্টি, অতিবৃষ্টি, দমকা হাওয়া, বজ্রপাতে প্রায় অর্ধশত কৃষকের মৃত্যু হয়েছে এবং কৃষিজ সোনালী ফসল পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া জীবন জীবিকার তাগিদে ভাটি তথা হাওর অঞ্চলের শ্রমিকরা শহরের গার্মেন্টস্ সেক্টর, রিক্সা চালানোর কাজ, দিন মজুরের কাজ এবং জাফলং ও ভোলাগঞ্জের পাথর কোয়ারীতে কাজে নিয়োজিত থাকার ফলে শ্রমিক ও ধান কাটার ব্যাপারী- সংকট দেখা দিয়েছে প্রকটভাবে।

একদিকে বৈরী আবহাওয়া অন্যদিকে শ্রমিক সংকট ভাটি ও হাওরবাসীর মধ্যে হতাশা ও নিরাশার সৃষ্টি করছে। হাওরে-হাওরে কৃষাণ-কৃষাণীর কান্না। কারণ একমাত্র সহায়সম্বল ও সারাবছর ব্যাপী খোরাক এই মৌসুমী বোরো ফসল। ধান গোলায় তুলতে পারলেই কৃষক তথা হাওরবাসী খুশি। এই ধান শুধু হাওরবাসীর নয়, জাতীয় সমস্যার সংকুলান এবং জাতীয় উন্নয়নের চালিকা শক্তি। কৃষি প্রধান দেশ। কৃষি ও কৃষকের উপর নির্ভর করে জনবহুল এই দেশ।

মাননীয় কৃষিমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী নিশ্চয়ই অবগত হয়ে থাকবেন- কৃষি ও কৃষকের নানা সমস্যা ও ক্ষয়ক্ষতির কথা। সম্প্রতি যে সব এলাকায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এসব এলাকাকে দূর্গত এলাকা হিসেবে ঘোষণা এবং যথাযথ সরকারি সহযোগিতা প্রদান হাওরবাসীর একান্ত কাম্য।

ভাটি ও হাওরের ধান, জাতীয় উন্নয়নে সহায়ক ও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। ঐতিহ্যবাহী ভাটি অঞ্চল ও হাওরাঞ্চল সুনামগঞ্জে- সুনামধন্য মরমী কবি হাসন রাজা, রাধা-রমন বাউল আব্দুল করিম, মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল আতাউল গণি ওসমানী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মরহুম আব্দুস সামাদ আজাদ, সংসদ বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত, স্পীকার মরহুম হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী সহ অনেক কৃতি সন্তান ভাটি ও হাওর অধ্যুষিত অঞ্চলের সন্তান যারা দেশ সেবায় ও জাতি উন্নয়নে নানাভাবে ভূমিকা ও অবদান রাখেন।

কথায় আছে হাওর অঞ্চলের বোরো ফসল দিয়ে ৬ মাসের খোরাক বা খরচ চলে। গোলা ভরা ধান-হাওর ও নদীভরা মাছ, গোয়াল ভরা গরু, গলাভরা গান আর পালতোলা নৌকা বেঁয়ে মাঝি গন্তব্যে যান।

বালু, পাথর, মৎস্য-ধান হাওর বেষ্টিত জনপদের প্রাণ, জাতীয় উন্নয়নে নানাভাবে রাখে অবদান। বৈশ্বিক জলবায়ুর প্রভাব কিন্তু আজ এর ব্যতিক্রম ও নানা সমস্যামূখর কথিত কালীদহ (কালীদ্বয়) সাগরের বুকে জেগে ওঠা পল্লী অঞ্চল ও বিশাল জনপদ। প্রাকৃতিক বিপর্যয়, নদীভরাট, অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা পলি ও বালিতে জমি-হাওর বিল ভরাট জনিত সমস্যা, কৃষি ক্ষেত্রে চরম ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে। চিকিৎসা ও শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নতির অভাব এবং অপ্রতুল বিদ্যুৎ ব্যবস্থা উন্নতির ক্ষেত্রে চরম অন্তরায়। কৃষককূল তথা হাওর বেষ্টিত জনপদ মানবেতর জীবন যাপন করছেন। কৃষি অধ্যুষিত দেশ। কৃষি বাঁচলে, দেশ বাঁচবে। কৃষি-কৃষক তথা জাতির মেরুদন্ড।

কৃষিক্ষেত্রে সমস্যা ও কৃষক জরাজীর্ণতা এটি কোন অঞ্চল ও জাতি গোষ্ঠীর মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। এটি একটি জাতীয় সমস্যা। এ সমস্যা সমাধানে কৃষি বিশেষজ্ঞদের দুরদৃষ্টি, জনপ্রতিনিধি ও রাষ্ট্র কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া একান্ত জরুরী। এতে হাওরবাসী কৃষক সহ সমষ্টি জনপদের জীবন-মান উন্নত হবে এবং জাতীয় অগ্রগতি ও উন্নয়ন সূদুর প্রসারী হবে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: