সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ১৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কেন্দ্র দখল, বাধা ও জালভোট : ৪ ঘণ্টায় নির্বাচন ‘শেষ’

3. electionনিউজ ডেস্ক::
এজেন্টদের মারধর, জালভোট, বুথ দখল আর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলা-পাল্টা হামলার মধ্যদিয়ে কার্যত মাত্র চার ঘণ্টায় ‘শেষ’ হয়েছে তিন সিটি করপোরেশনের ‘আসল’ নির্বাচন। মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হলেও বেলা ১২টার দিকে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয় বিএনপি। এর ঠিক একঘণ্টা আগে চট্টগ্রামেও নির্বাচন বর্জন করে দলটি। ফলে দুপুর ১২টার পর নির্বাচনের আমেজ কার্যত দেখা যায়নি।

জালভোট : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১১ নম্বর ওয়ার্ডের খিলগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের দুটি বুথের ব্যালট পেপার নিয়ে যায় ক্ষমতাসীন দলের লোকজন। মঙ্গলবার ভোটগ্রহণের আধা ঘণ্টার মধ্যে বিদ্যালয়টির ৫ ও ৬ নম্বর বুথে সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারদের কাছ থেকে ব্যালট পেপার ও ভোটার তালিকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়। এ সময় ৩ নম্বর বুথে একাধিক ব্যক্তিকে জালভোট দিতে দেখা যায়। এ অবস্থায় সকাল ১০টা পর্যন্ত ৫ ও ৬ নম্বর বুথসহ অন্যান্য বুথেও ভোটগ্রহণ বন্ধ ছিল।

প্রিসাইডিং অফিসার রুহুল আমিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কিছু সমস্যা হয়েছে।’ তবে কী সমস্যা হয়েছে তা জানাতে চাননি। সেখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্বপ্রাপ্ত এ এস আই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘সমস্যা হয়েছে। অতিরিক্ত ফোর্স ও ম্যাজিস্ট্রেকে জানানো হয়েছে।’

লুৎফর রহমান লেনের স্থানীয় বাসিন্দা মো. সিরাজ, আব্দুর রাজ্জাক, সিরাজ ভূঁইয়া, মো. হাসান, মো. সুলতান ও মো. বেলাল জানান, মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের বংশাল থানার এ কেন্দ্রে ভোট দেওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন শতাধিক ভোটার। কিন্তু সকাল সাড়ে ৯টার দিকেও কেন্দ্রটিতে ভোটগ্রহণ শুরু হয়নি। কেন্দ্র থেকে ভোটারদের জানানো হয়, ব্যালট বাক্স নেই। পরে ভোটারদের চাপে ভোট দেওয়া শুরু হলেও অধিকাংশ ভোটারই দেখেন, তাদের ভোট দেওয়া হয়ে গেছে।

পাঁচ শতাধিক কেন্দ্র দখল :
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পৌনে ২ ঘণ্টায় পাঁচ শতাধিক কেন্দ্র দখলের অভিযোগ করে বিএনপি। রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মঙ্গলবার সকাল পৌনে ১০টায় এক ব্রিফিংয়ে এ সব তথ্য জানান দলটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও ঢাকা বারের সভাপতি এ্যাডভোকেট মাসুদ আলম তালুকদার। একই সঙ্গে দলটি অভিযোগ করেছে, ঢাকার দুই সিটিতে প্রায় সব কেন্দ্রেই বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের কোনো এজেন্টকে প্রশাসন, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সন্ত্রাসীরা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়নি। কিছু কিছু কেন্দ্রে এজেন্টরা সকাল সকাল উপস্থিত হলেও তাদের বের করে দেওয়া হয়।

মাসুদ আলম তালুকদার বলেন, ‘প্রতিটি কেন্দ্রের ভেতরে-বাইরে নীরব সন্ত্রাস চলছে। কিছু লোক গলায় কার্ড ঝুলিয়ে কেন্দ্রের মধ্যে রহস্যজনক আচরণ করছে।’

এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ:
বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের নির্বাচনী প্রচার সেলের সদস্য মাহমুদ হাসান জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টা থেকে উত্তর গোড়ান প্যারিস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, পূর্ব গোড়ান মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসা, গোড়ান আদর্শ স্কুল, নটর ডেম কলেজ ও ফকিরাপুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে মির্জা আব্বাসের মগ মার্কার সব এজেন্টকে বের করে দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর সমর্থকরা।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ৪৪ ও ৪৫ নম্বর কেন্দ্র থেকে মির্জা আব্বাস ও কাউন্সিলর প্রার্থী হাবিবা চৌধুরী বিথীর এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করা হয়। মির্জা আব্বাসের স্ত্রী আফরোজা আব্বাস সকালে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, মোট ৪২টি কেন্দ্র থেকে মগ প্রতীকের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণের রিটার্নিং অফিসার মিহির সারোয়ার মোর্শেদ জানান, দু-একজন প্রার্থীর এমন অভিযোগ তিনি শুনেছেন। তবে লিখিত অভিযোগ পাননি। ঢাকা দক্ষিণের প্রতিটি ভোট কেন্দ্র সরকারি দলের নেতাকর্মীদের নিয়ন্ত্রণে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় পার্টি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন। লালবাগের আমলীগোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সকালে ভোট প্রদান শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন তিনি।

মিলন অভিযোগ করেন, ‘ইতোমধ্যে বিভিন্ন এলাকায় আমার পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। বংশালে আমার পোলিং এজেন্টদের মারধর করা হয়েছে। এ সময় পুলিশ নির্বিকার ছিল।’

দক্ষিণের ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের সিলভারডেল প্রিপারেটরি এ্যান্ড গার্লস হাইস্কুল কেন্দ্র নম্বর ১ ও ২, নিটল স্কলার টিউটোরিয়াল এ্যান্ড হাইস্কুল, ওয়ারি বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, ওয়ারি আবদুর রহিম কমিউনিটি সেন্টার কেন্দ্র ১, ২, ওয়ারি উচ্চ বিদ্যালয়, ফকির চাঁন সর্দার কমিউনিটি সেন্টার, নারিন্দা সরকারি বালিকা প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ ৯টি কেন্দ্র পরিদর্শন করে দেখা গেছে, বেশির ভাগ কেন্দ্রেই ভোটগ্রহণ শেষ পর্যায়ে। প্রিসাইডিং অফিসারের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না। সরকার দলীয় সমর্থকের কর্মীরা ভোটকেন্দ্র দখল করে রেখেছে।

পোলিং এজেন্ট শূন্য কেন্দ্র :
এদিকে উত্তরে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পোলিং এজেন্ট শূন্য দেখা গেছে তেজগাঁওয়ের কেন্দ্রেগুলোতে। এখানে তাবিথ আউয়ালের বাস মার্কার কোনো পোলিং এজেন্টকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। সকালে তেজগাঁওয়ের ১৮টি কেন্দ্র ঘুরে এ দৃশ্য দেখা যায়। তেজগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রিসাইডিং অফিসার এস এম আশরাফুল আলম বলেন, ‘এ কেন্দ্রে বিএনপি সমর্থিত তাবিথ আউয়ালের কোনো পোলিং এজেন্ট আসেননি। এখানে ভোটার উপস্থিতিও অনেক কম।’

সরকারি বিজ্ঞান কলেজের প্রিসাইডিং অফিসার ডা. মো. গোলাম মোস্তাফা বলেন, ‘এ কেন্দ্রে বাস মার্কার কোনো পোলিং এজেন্ট আসেনি। ঘড়ি ও কমলা লেবু মার্কার যে এজেন্ট এসেছেন তারাও সময়মতো আসেননি।’ মানিক মিয়া এভিনিউতে রাজধানী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়েও একই চিত্র দেখা যায়। বনানী বিদ্যা নিকেতন স্কুল এ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে তাবিথ আউয়ালের একজনও এজেন্ট নেই। তাদের বের করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়।

বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীর পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে উত্তরে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আনিসুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন? এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না।’

উত্তরা মডেল স্কুল থেকেও বের করে দেওয়া হয়েছে তাবিথ আউয়ালের এজন্টেদের। এ ছাড়া উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আরেক মেয়র প্রার্থী গণসংহতি আন্দেলনের নেতা জুনায়েদ সাকির তিনজন পোলিং এজন্টেকে উত্তরার কালাচাঁদপুর স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন গণসংহতি আন্দেলনের কর্মী সৈকত মল্লিক। বাড্ডার আলাতুন্নেসা হাই স্কুল থেকে জোনায়েদ সাকির (টেলিস্কোপ প্রতীক) এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগও করেন তিনি।

বিক্ষোভ ও ভাঙচুর : ভোট দিতে না পেরে ক্ষুব্ধ ভোটাররা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের সুরিটোলা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ নম্বর কেন্দ্রে ভাঙচুর চালিয়েছেন। এ সময় নির্বাচন কমিশনার মো. শাহ নেওয়াজের গাড়িতে জুতা নিক্ষেপও করেন তারা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিদ্যালয়ের তিনটি কেন্দ্রেই ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়।

জানতে চাইলে কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা শওকত আলী প্রথমে বলেন, ‘উপরের নির্দেশে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।’ পরে আবার তিনি বলেন, ‘ঢাকা দক্ষিণের রিটার্নিং কর্মকর্তা মিহির সারওয়ার মুর্শেদের নির্দেশে ভোটগ্রহণ স্থগিত রয়েছে।’

এ সময় ভোটাররা ভোট দিতে না পেরে ক্ষোভ প্রকাশ করলে ভোট দেওয়া স্থগিত করে দেওয়া হয়। পরে ক্ষুব্ধ ভোটাররা ভোটকেন্দ্রের ব্যালেট বাক্স ভাঙচুর করেন। এ ছাড়া কেন্দ্রের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শনও করেন তারা। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ ও বিজিবি মোতায়েন করলেও ভোটারদের বিক্ষোভ অব্যাহত থাকে। বিক্ষোভকারীদের অনেকের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র রয়েছে। অনেককে ‘ভোট চোর’, ‘ভোট চোর’ বলে স্লোগান দিতে দেখা যায়।

এদিকে কেন্দ্র পরিদর্শনে এলে নির্বাচন কমিশনার শাহনেওয়াজের গাড়িতে জুতা নিক্ষেপ করেন ভোটাররা। অন্যদিকে ভোটারদের রোষানল থেকে বাঁচতে দায়িত্বরত প্রিসাইডিং কর্মকর্তা শওকত আলী নিজেকে তার রুমে তালাবদ্ধ করে রাখেন।

চট্টগ্রাম :
চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ডের আলী আহমদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে সব ভোটারকে বের করে ব্যালটে সিল মারার অভিযোগ পাওয়া গেছে। চট্টগ্রামের বাকলিয়া রাহাত্তার পুল কমার্শিয়াল ইনস্টিটিউট ভোটকেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। বিস্ফোরণ ঘটিয়ে কয়েকজন তরুণ ওই কেন্দ্রে ঢোকার চেষ্টা করে। আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ তখন ঘটনাস্থলের অদূরে উপস্থিত ছিলেন। এক পর্যায়ে সেখানে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

হাটহাজারীতে দক্ষিণ পাহাড়তলীর বিসিএসআইআর ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরুর ৫ মিনিট আগে স্কুল মাঠে ককটেল ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করা হয়। পরে ১৫-২০ জন যুবক এসে ব্যালট পেপার ছিনতাই করে সেখানে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ও কাউন্সিলর প্রার্থীর পক্ষে সিল মারে বলে অভিযোগ করে বিএনপি।

নির্বাচন বর্জন বিএনপির :
রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মঙ্গলবার দুপুরে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।
তিনি বলেন, ‘সরকারদলীয় সমর্থকরা প্রশাসনের সহায়তায় ভোটকেন্দ্র দখল করে নিয়েছে। আমাদের এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে।’ সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘ভোট শেষে আপনারা জানতে পারবেন এত শতাংশ ভোট পড়েছে। কিন্তু ৫ শতাংশও ভোট পড়েনি।’

সংবাদ সম্মেলনে মওদুদ বলেন, ‘আবারও প্রমাণিত হলো এ দেশে মানুষের ভোটের অধিকার নেই। মানুষের গণতন্ত্রে ফেরার যে আকাঙ্ক্ষা, সরকার তা ভণ্ডুল করল।’

আধা ঘণ্টার মধ্যে কেন্দ্র থেকে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের এজেন্টকে বের করে দেওয়া হয়েছে অভিযোগ করে মওদুদ বলেন, ‘সরকারের ইচ্ছা পূরণ করতে গিয়ে নির্বাচন কমিশন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সবাইকে বের করে দিয়ে সকাল ৯টার মধ্যে নির্বাচন শেষ করে দিয়েছে।’ এর আগে বেলা ১১টার দিকে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন বিএনপি সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী এম মনজুর আলম। অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে তিনি নির্বাচন বর্জন করেন।

আওয়ামী লীগের প্রতিক্রিয়া :
সিটি করপোরেশন নির্বাচন বর্জন বিএনপির পূর্বপরিকল্পিত বলে দাবি করেছে আওয়ামী লীগ। দলটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, ‘পরাজয় নিশ্চিত জেনে আন্দোলনের ইস্যু সৃষ্টির জন্য নাটক করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।’

বিএনপির তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচন বর্জন ঘোষণার পর মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব কথা বলেন তিনি।

সূত্র : দ্য রিপোর্ট

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: