সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটে আবারো ভূমিকম্প : সুরমা মাকের্ট দেবে যাওয়ার গুজব

daily sylhet surma tower newsঅবনী নাজমিন::
নেপালের ভয়াবহতা হৃদয় কাপাঁচ্ছে অবিরত। বাংলাদেশ,ভারতের বিভিন্ন জায়গায় এর ভয়াবহতা দেখা যায়। ব্যাতিক্রম নয় আমাদের সিলেটও।

রোববার (২৬ এপ্রিল) দুপুর ১টা ১২ মিনিটে ঝাঁকুনি অনুভূত হয় সিলেটে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকেও আসছে একই ধরনের কম্পন অনুভূত হওয়ার খবর। এবারের ভূমিকম্প টানা ১০-১৫ সেকেন্ড ধরে অনুভূত হয়। ইউএস জিএস’র তথ্য বলছে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিলো ৬.৭। এর উৎপত্তিস্থল ছিল নেপালের পোখরা।

ভূমিকম্পে ভীত হয়ে মানুষ বাসাবাড়ি থেকে বের হয়ে বাইরে অবস্থান নেন। সিলেটে বহুতল ভবনে ফাটল কিংবা কোন রকম দুর্ঘটনার খবর পাওয়া না গেলেও সুরমা টাওয়ারে অবস্হিত স্বনামধন্য লিডিং ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রী,শিক্ষক এবং কর্মকর্তা কর্মচারীর মধ্যে বিল্ডিং ফাটলের গুজব ছড়িয়ে পড়লে সবার মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করে। এ সময় তারা দ্রুত ক্যাম্পাস ত্যাগ করে রাস্তায় নেমে আসেন।

লিডিং ইউনিভার্সিটির ইংলিশ বিভাগের ফাইনাল সেমিস্টারের ছাত্র উৎপল সিংহের সাথে কথা বললে তিনি জানান, রোববারের ভূমিকম্পে ছাত্র-ছাত্রীর মাঝে আতন্ক ছড়িয়ে পড়ে। আমরা সবাই নিচে নেমে যাই। এমনকি মাকের্টের সবাই নিচে জড়ো হয়েছিল। পরে আমাদের ভার্সিটি ছুটি দেয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত হতে লিডিং ইউনিভার্সিটির উপাচার্য মো: কিসমাতুল আহসানের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এদিকে গতকাল শনিবার দুপুর ১২টা ১২ মিনিটে ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্পে সুরমা টাওয়ার ভবন দেবে যাওয়া এবং ফাটল দেখা দিয়েছে বলে স্থানীয় একটি দৈনিকে খবর প্রকাশিত হয়। এ ব্যাপারে সুরমা মাকের্টের ম্যানেজার প্রদুত দাসের সাথে কথা বললে তিনি ডেইলি সিলেটকে জানান, এটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীণ খবর। এরকম খবর প্রকাশের পূর্বে যাচাই-বাছাই করার প্রয়োজন রয়েছে। আমাদের জানা মতে এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। তিনি বলেন লিডিং ইউনির্ভাসিটি কর্তৃপক্ষ বুয়েটের ইঞ্জিনিয়ার কর্তৃক বিল্ডিংটি পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে শতভাগ নিশ্চিত হয়েই এখানে ক্যাম্পাস স্থাপন করেন।

ম্যানেজার প্রদুত দাস আরো জানান, ২৮ শতক ভূমিতে ৭৫ ফুট বেইজমেন্ট দিয়ে তৈরী সুরমা টাওয়ারটি ১৫ তলা বিশিষ্ট্য । আমাদের এখানে ওঠা-নামার জন্য ৫টি সিড়ি ও ৪টি লিফট আছে। এছাড়াও যে কোন দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদিও সুরমা টাওয়ারের রয়েছে। তিনি বলেন, ১৫ তলা বিশিষ্ট্য এই সুরমা টাওয়ারে ১ম ও চতুর্থ তলায় রয়েছে প্রায় ৬০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, রয়েছে একটি ব্যাংক এবং ৫টি অফিস। ৪র্থ তলায় লিডিং ইউনিভার্সিটির অফিস থাকলেও ৭, ৮ ও ৯বম তলায় রয়েছে তাদের ক্যাম্পাস।

বিশেষজ্ঞদের সাথে কথা বলে জানা যায়, যদি ৭ মাত্রার কোন ভুমিকম্প হয় তাহলে ভূমিকম্পের জন্য ‘ডেঞ্জার জোন’ হিসেবে বিবেচিত সিলেট নগরীর ৯৫ ভাগ ভবনই ধ্বংসস্তুপে পরিণত হবে। শতকরা ৪ দশমিক ৪ ভাগ ভবন বাদে নগরীর সব ভবন মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। শুধু ভবন ধসে ৫০০ কোটি টাকার ওপর ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে। মারাত্মকভাবে আহত হতে পারে প্রায় ৪০ হাজারের বেশি মানুষ।

উল্লেখ্য, গত শনিবার দুপুর ১২টা ১২ মিনিটে ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্পে কাঁপে গোটা দেশ। একই সময়ে ভূমিকম্পে নেপাল ও ভারতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। নেপালেই প্রাণহানি ঘটে ২০০০ জনেরও বেশি। ইউএস জিএস’র তথ্য বলছে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিলো ৭.৫। ভূমিকম্পে একযোগে কাঁপিয়েছে ভারত-নেপাল ও বাংলাদেশকে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: