সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ২২ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বার্সার জয় ছাপিয়ে লাল কার্ড বিতর্ক

full_766115400_1429985021খেলাধুলা ডেস্ক: দারুণ দুটি গোল। গোল দুটি আবার এসেছে প্রিয় দুই তারকার কাছ থেকে। বার্সেলোনা সমর্থকদের তো খুশি হওয়ার কথা। কিন্তু তা হচ্ছে কোথায়? এসপানিওলের বিপক্ষে লিওনেল মেসি ও নেইমারের গোলে ২-০ ব্যবধানে জিতেছে বার্সেলোনা। এ জয়ের চেয়েও আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে জর্ডি আলবার লাল কার্ড।

৫৪ মিনিটে এসপানিওলের খেলোয়াড়ের পায়ে বল লাগার পরও কর্নার দেন রেফারি। রেফারির সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি আলবার। হতাশা থেকেই বলে লাথি দিয়েছিলেন। আলবার এ প্রতিক্রিয়াকে ‘অপরাধ’ মনে হয়েছে রেফারি ম্যাথু লাহোজের। প্রথমে হলুদ কার্ড। হলুদ কার্ড দেখে বিস্মিত আলবা প্রতিবাদ জানাতে গেলে দ্বিতীয় দফায় আবারও হলুদ কার্ড। সব মিলিয়ে লাল কার্ড! ৫৪ মিনিটেই বার্সা পরিণত হলো দশ জনের দলে। রেফারির এমন সিদ্ধান্তে হতবাক বার্সা শিবির। সাধারণত রেফারির সিদ্ধান্ত বিনা বাক্য ব্যয়ে মেনে নেন যে মেসি, তিনিও পর্যন্ত এগিয়ে কথা বললেন রেফারির সঙ্গে। কিন্তু লাল কার্ড তো আর ফেরানোর উপায় নেই। আলবাকে এখন মাঠের বাইরে থাকতে হবে পরের ম্যাচেও। মৌসুমের এই স্পর্শকাতর জায়গায় এসে আলবার মতো খেলোয়াড়কে হারিয়ে ফেলাটা বার্সাকে ভোগাবে নিশ্চয়ই। অবশ্য বার্সা এই লাল কার্ডের বিরুদ্ধে আবেদন করতে পারে।

সাম্প্রতিক সময়ে রেফারিদের এমন কড়াকড়িতে মনে হতে পারে, ফুটবলও কি তবে ক্রিকেটের মতো হয়ে যাচ্ছে? ক্রিকেটে খেলোয়াড়দের পরানো থাকে ‘কোড অব কনডাক্টে’-এর শিকল। আম্পায়ার যে সিদ্ধান্তই দিন না কেন, একদম প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করা যাবে না। টু শব্দটি করলেই আচরণবিধির গেরো!

ফুটবলের বৈচিত্র্য বা মজাটা এখানেই। ৯০ মিনিটে প্রচুর নাটক-রোমাঞ্চের মধ্যেই সাধারণ নিয়ম-নীতি মেতেই খেলোয়াড়েরা পারেন নিজের প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করতে। ফুটবল মাঠে রেফারির সিদ্ধান্তে হতাশা প্রকাশ করাটাও নতুন নয়। হয়তো কখনো কখনো এর জন্য হলুদ কার্ড দেখেন। বার্সা সমর্থকেরা হতবাক হয়ে আবিষ্কার করলেন, আলবার দিকে তাক করে আছে লাল টকটকে একটা কার্ড। ম্যাচের শেষ দিকে দুই হলুদ কার্ডের যোগফল হিসেবে লাল কার্ড দেখেছে এসপানিওল ডিফেন্ডার হেক্টর মরেনোও। রেফারি হয়তো লাল কার্ডে সমতা আনতে চাইলেন।

কাতালান ডার্বির আজ ১৫ মিনিটেই গোলের দেখা পেয়ে যায় বার্সা। আলবার বাড়িয়ে দেওয়া বলে নেইমারের দারুণ ফিনিশিং। ২৫ মিনিটে সুয়ারেজের সহায়তায় চোখ জুড়োনো এক গোল ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মেসি। ৫১ মিনিটে গোলরক্ষক একা পেয়েও গোল দিতে পারেননি নেইমার। ৫৭ মিনিটে মেসির আরেকটি শট এসপানিওল ডিফেন্ডারের পায়ে লেগেও গোলের দিকেই যাচ্ছিল। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় পোস্ট। ৬৩ মিনিটে সুয়ারেজের বাড়িয়ে দেওয়া বলটা নেইমার ক্রসবারের ওপর দিয়ে উড়িয়ে না মারলে ব্যবধানটা আরও বাড়তে পারত। শেষমেশ দুই গোলেই সন্তুষ্ট থাকতে হলো লুইস এনরিকের দলের।

এ জয়ে ৩৩ ম্যাচে ৮১ পয়েন্ট নিয়ে আবারও রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে ব্যবধান ৫ করল বার্সা। পরশু সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে মাঠে নামবে রিয়াল। জিতলে আবারও পয়েন্টের ব্যবধান দুইয়ে নামিয়ে আনবে কার্লো আনচেলত্তির দল।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: