সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জগন্নাথপুরে বাল্য বিয়ে ভেঙে দিয়েছে প্রশাসন

child-marriageওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে একটি বাল্য বিয়ে ভেঙে গেছে। এতে রক্ষা পেয়েছে এক নবম শ্রেণির ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটে জগন্নাথপুর পৌর এলাকার কেশবপুর গ্রামের কেশবপুর বাজার এলাকায়।

জানা গেছে, শুক্রবার কেশবপুর গ্রামের আব্দুল বারিকের ছেলে মালেশিয়া প্রবাসি সেলিম আহমদের (৩০) সাথে একই গ্রামের কেশবপুর বাজার এলাকার বাসিন্দা ওয়াহিদ উল্লার কিশোরী কন্যা স্থানীয় কেশবপুর উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী হালেমা বেগমের (১৬) বিয়ে হওয়ার তারিখ ছিল।বিয়েটি সম্পন্ন করার লক্ষ্যে অনুষ্ঠানের সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়। বর সম্পর্কে কনের ফুফাতো ভাই হয়। মালেশিয়া প্রবাসি বর পাওয়ায় অনেকটা তাড়াহুড়ো করে বিয়েটি সম্পন্ন করতে চেয়েছিলেন কনে পক্ষ। কিন্তু তা পারেননি। এতে বাদ সাধেন এলাকার সচেতন মহল।

এ বাল্য বিয়ের ঘটনাটি গত বৃহস্পতিবার এলাকার সচেতন মহলের পক্ষ থেকে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হুমায়ূন কবির জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামানকে জানালে ওই দিন রাতে জগন্নাথপুর থানার এস আই কবির উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাল্য বিয়েটি ভেঙে দিয়ে আসেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জগন্নাথপুর থানার এস আই কবির উদ্দিন জানান, জগন্নাথপুর পৌরসভা কর্তৃক মেয়েটির জন্ম নিবন্ধনের তারিখ ১/১/১৯৯৭ ইং। অথচ তার স্কুল সার্টিফিকেটে জন্ম তারিখ ১১/১১/২০০১ ইং। কনের জন্ম তারিখে গড়মিল থাকায় এবং বিবাহের বয়স কম হওয়ায় কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এ বাল্য বিয়েটি স্থগিত করা হয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: