সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পাকিস্তানকে ‘বাংলাওয়াশ’

daily sylhet bd criketস্পোর্টস ডেস্ক: এই প্রথমবারের মতো উপমহাদেশের কোনও বিশ্বকাপ জয়ী দলকে ”বাংলাওয়াশ” করল বাংলাদেশ। সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে পাকিস্তানকে ৮ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে মাশরাফি বাহিনী। এই জয়ের ফলে তিন ম্যাচের সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতে নিল বাংলাদেশ।

মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের ছুড়ে দেওয়া ২৫১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে সহজেই জয় নিশ্চিত করে টাইগাররা। যাতে মূল প্রভাবক হিসেবে কাজ করেন দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। তাদের উদ্বোধনী জুটিতেই অাসে ১৪৫ রান। তামিম ইকবাল ৬৪ রানে বিদায় নিলেও বাকি কাজ একাই সারেন বাঁহাতি ওপেনার সৌম্য। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন তিনি।

তামিম ও সৌম্যের ১৪৫ রানের জুটি ভাঙেন জুনায়েদ। ২৬তম ওভারে তামিমকে এলবিডব্লু করেন তিনি। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা তামিম আউট হবার আগে ৭৬ বলে ৬৪ রান করেন তিনি। এর আগে ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি হাকানোর গৌরব অর্জন করেন। তামিমের পর জুনায়েদের দ্বিতীয় শিকার হলেন মাহমুদউল্লাহ। দলীয় ১৫৪ রানে জুনায়েদের বলে চার রান করে সরাসরি বোল্ড হন তিনি।

এর অাগে শুরুটা ভালো করলেও বাংলাদেশের বোলিং তোপে শেষের দিকে যাওয়া-আসার মিছিলে ব্যস্ত ছিল পাকিস্তান। সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ৪৯ ওভারে ২৫০ রানেই গুটিয়ে যায় তাদের ইনিংস।

সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুভ সূচনা করে পাকিস্তান। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান আজহার আলী ও সামি আসলামের ব্যাটিংয়ে ভালোই জুটি গড়তে থাকেন তারা। ১৮তম ওভারে তাদের ৯২ রানের জুটি ভাঙেন নাসির হোসেন। তার বলে উইকেটরক্ষক মুশফিকের কাছে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন সামি আসলাম। আউট হওয়ার আগে ব্যাট হাতে ৫০ বলে ৪৫ রান করেন তিনি।

নাসিরের পর পাকিস্তান শিবিরে দ্বিতীয়বার অাঘাত হানেন আরাফাত সানি। দলীয় ১০৫ রানে মোহাম্মদ হাফিজকে ব্যক্তিগত ৪ রানে বোল্ড করেন তিনি। এরপর হারিস সোহেলকে নিয়ে জুটি গড়তে থাকেন আজহার। তাকে সঙ্গে ‌‌নিয়ে আজহার আলী তুলে নেন তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম শতক। শতকের পর আজহার ও হারিস সোহেলের ৯৮ রানের জুটি ভাঙেন সাকিব আল হাসান। আজহারকে বোল্ড করেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ১১২ বলে ১০১ রান করেন তিনি।

এর ঠিক পরের ওভারে দলীয় ২০৭ রানে হারিস সোহেলকে ফেরান অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। হারিস করেন ৫৮ বলে ৫৩ রান। ৪১তম ওভারে এসে দলীয় ২১৩ রানে সাকিবের কাছে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে তার দ্বিতীয় উইকেটের শিকার হন মোহাম্মদ রিজওয়ান (৪)। এর ফলে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে পাকিস্তান।

দলীয় ২২৪ রানে মাশরাফির বলে নাসিরের কাছে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন ফাওয়াদ আলম (৪)। দলীয় ২৪৩ রানে রুবেল হোসেনের বলে আউট হন ওয়াহাব রিয়াজ (৭)। এরপর ৭ রানের মধ্যে পাকিস্তানের চার ব্যাটসম্যান আউট হলে ২৫০ রানেই গুটিয়ে যায় তাদের ইনিংস।

বাংলাদেশের পক্ষে দুটি করে উইকেট পান সাকিব আল হাসান, মাশরাফি বিন মুর্তজা, আরাফাত সানি ও রুবেল হোসেন। এছাড়া একটি উইকেট নেন নাসির হোসেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: