সর্বশেষ আপডেট : ১৫ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জেনে নিন আনারসের পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া

painappleলাইফস্টাইল ডেস্ক: আনারস এর বৈজ্ঞানিক নাম আনানাস স্যাটিভাস। পৃথিবীতে প্রায় ৯৫ প্রজাতির আনারস চাষ হয়। আনারস আকর্ষণীয় সুগন্ধ ও অম্ল মধুর স্বাদের জন্য অনেকের কাছেই সমাদৃত। আনারস ভিটামিন এ, বি ও সি এর একটি উত্তম উৎস। এছাড়াও এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ এবং সি, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম ও ফসফরাস। এসব উপাদান আমাদের দেহের পুষ্টির অভাব পূরণে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। কিন্ত এ সকল সত্ত্বেও এ ফলটি সবার জন্য গ্রহনযোগ্য নয়। কারণ এতে রয়েছে বেশ কিছু পার্শ-প্রতিক্রিয়া। চলুন জেনে নেই আনারসের পার্শ-প্রতিক্রিয়া সমূহ।

এলার্জি:
আনারস সবার জন্য ঠিক স্যুট করে না। অনেকেরই আনারস খেলে হতে পারে এলার্জি। ফলে বিভিন্ন ধরনের চুলকানি, ফুস্কুরি ইত্যাদি হয়ে থাকে। তাই যাদের আনারস খেলে এ সকল সমস্যায় ভুগেন তারা অবশ্যই আনারস থেকে দূরে থাকবেন।

ব্লাড সুগার বাড়িয়ে দেয়:
আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমানে প্রাকৃতিক চিনি। আনারসের ২ টি উপাদান সুক্রোজ এবং ফ্রুক্টোজ যা ডায়বেটিস রোগীদের জন্য ক্ষতিকর। কিন্তু দেহের ক্ষতি, এটি খাওয়ার উপর নির্ভর করে। এবং আনারসের মধ্যে অতিরিক্ত চিনি আমাদের দেহে রক্তের চিনির পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। তাই আনারস বেশি না খেয়ে সপ্তাহে ২ দিন খেতে পারেন।

ফুড ট্যাবু হতে পারে:
আনারস এসিডিক। খালি পেটে আনারস খেলে প্রচন্ড পেটে ব্যথার তৈরী হয়। কোন গ্যাস্ট্রিক এর রোগীর খালি পেটে আনারসের সাথে দুধ খাওয়ার ফলে এই “ফুড ট্যাবু” এর উদ্ভব হতে পারে।

দাঁতের জন্য ক্ষতিকর:
আনারস আমাদের দাঁতের জন্য ক্ষতিকর। যাদের দাতে কেভিটিস ও জিংজাইভেটিভস এর সমস্যা আছে তাদের আনারস না খাওয়াই ভালো।

ওষুধের প্রতিক্রিয়া:
আনারসে আছে ব্রমিলেইন যা দিয়ে ওষুধ বানানো হয়ে থাকে এবং কোনো রোগীর প্রয়োজন পড়লে তাকে তা দেয়া হয়ে থাকে। তাছাড়া আপনি যদি কোনো কারণে অ্যান্টিবায়োটিক ও অ্যান্টিকনভালসেন্ট ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আনারস খেতে ডাক্তার নিষেধ করে থাকেন। কারণ এতে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

কাঁচা আনারসে পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া:
অনেকেই কাঁচা আনারস ব্যবহার করে থাকেন জুস বানানোর জন্য কিন্তু এটি দেহের জন্য ক্ষতিকর এবং খুব বিষাক্ত। এবং মাঝে মাঝে কাঁচা আনারস খাওয়ার কারণে বমির প্রবণতা দেখা দেয়।

মুখ ও গলার জন্য ক্ষতিকর:
কাঁচা আনারসে আছে অনেক বেশি পরিমানে এসিডিটি যা আমদের মুখের ভিতর ও গলায় শ্লেষ্মা তৈরি করে। এবং ফলটি খাওয়ার পর অনেকের পেট ব্যথাও হতে পারে।

রক্ত জমাট বাঁধায় বাঁধা প্রদান করে:
রক্ত তরল করার জন্য যে ওষুধ বানানো হয় তাতে আনারস ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই ফল দেহে রক্ত জমাট বাঁধার প্রক্রিয়াতে বাঁধা প্রদান করে থাকে।

আনারসের ব্রমিলেইনের পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া:
ব্রমিলেইন আনারসের একটি উপাদান যা আমদের দেহের প্রোটিনের পরিমাণ নষ্ট করাতে দায়ী থাকে। এবং এই ফল দেহে ডার্মাটাইটিস ও অ্যালার্জী সংক্রামন করে।-সূত্র: স্টাইল কেয়ার।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: