সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ২৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ঝিমাইপুঞ্জির খাসিয়াদের অবরোধ করে রাখায় উদ্বেগ ও নিন্দা

1426073465কুলাউরায় ঝিমাইপুঞ্জির খাসিয়াদের চার দিন ধরে অবরোধ করে রাখা ও পুঞ্জি উচ্ছেদের চক্রান্তে সিলেটের প্রতিনিধিত্বশীল কয়েকজন বিশিষ্ট নাগরিক গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ।গতকাল ২১শে এপ্রিল সংবাদ-পত্রে প্রেরিত এক যৌথ বিবৃতিতে বিশিষ্ট নাগরিকরা বলেন “আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি, মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়ায় ঝিমাইপুঞ্জির ৭৪ টি খাসিয়া আদিবাসী পরিবারকে আইন বহির্ভুত প্রক্রিয়ায় উচ্ছেদের চক্রান্ত চলছে । সম্প্রতি উপজেলা প্রশাসনকে ব্যবহার করে চা-বাগান কর্তৃপক্ষ্ খাসিয়াদের সাথে আপোষ রফার নামে একটি অবৈধ চুক্তি সম্পাদন করতে চায়। যা মেনে না নেয়ায়, পুঞ্জির আদিবাসীদের নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করা শুরু হয় । আদিবাসীদের প্রতিবাদ ও প্রতিরোধে চুক্তিতে ব্যার্থ হয়ে চা-বাগান কর্তৃপক্ষ্ গত ১৮ই এপ্রিল সকাল থেকে ঝিমাইপুঞ্জির আদিবাসীদের অবরোধ করে রেখেছে । বাগানের প্রধান গেটটি বন্ধ করে দিয়ে ঝিমাইপুঞ্জিকে কার্যত ‘ছিটমহল’ বানানো হয়েছে । পুঞ্জির আদিবাসী পরিবারগুলো জরুরী প্রয়োজনেও গত তিনদিন থেকে বাইরে যেতে পারছে না। এমন কি বাইরে থেকে কেউ ভেতরেও প্রবেশ করতে পারছে না। অনেক পুরুষ সদস্য পুঞ্জির বাইরে থাকায় তাঁদেরকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না । এতে নারী-শিশুরা নিরাপত্তাহীন রয়েছে । উচ্ছেদ-আতঙ্ক নিয়ে আদিবাসী খাসিয়া পরিবারগুলো মানবেতর জীবন যাপন করছে। যা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। একই সাথে চা-বাগান কর্তৃপক্ষের ভাড়াটিয়া গুন্ডা-পান্ডারা পুঞ্জির নিরীহ আদিবাসীদের ক্রমাগত আপোষ মেনে নিতে হুমকি প্রদান অব্যাহত রেখেছে। এ অবস্থায় সেখানে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির যেকোন সময় অবনতি ঘটতে পারে। হতে পারে ভয়াবহ সংঘর্ষের সূত্রপাত। বিবৃতিতে বিশিষ্ট নাগরিকরা আরও বলেন,আদিবাসীদের উচ্ছেদের জন্য ঝিমাই চা বাগান কর্তৃপক্ষ বিগত কয়েক বছর থেকে যে হীন চক্রান্ত চালিয়ে আসছে এটা সেই ধারাবাহিক প্রক্রিয়ার একটি অংশ। আর এবার দূঃখজনকভাবে স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন খাসিয়াদের তথা আদিবাসীদের জন্য নির্ধারিত আমাদের সাংবিধানিক রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব ও জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক বিধি-বিধান বিস্মৃত হয়ে বাগান মালিকদের চক্রান্তে অংশীদার হয়েছেন। যা প্রশাসনের জন্য কলংকজনক অধ্যায় রচনা করবে। এ অবস্থায় আমরা ঝিমাইপুঞ্জির খাসিয়াদের চলাচলের পথ খুলে দিয়ে এই অমানবিক অবরোধ অবিলম্বে তুলে দিতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। চা বাগান কর্তৃপক্ষের বেআইনী আপোষ প্রস্তাব, খাসিয়াদের অবরুদ্ধ করা, স্বাধীনভাবে নাগরিকদের পুঞ্জিতে যাতায়াতে
বাঁধা সৃষ্টি, ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আইন-শৃঙখলা পরিস্থিতি অবনতি প্রচেষ্টা ও সরকারী প্রশাসনের পক্ষপাতমূলক অবস্থান গ্রহনে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ ও নিন্দা জ্ঞাপন করছি । বিশিষ্ট নাগরিকরা অবিলম্বে ঝিমাইপুঞ্জির বন্ধ গেট খুলে দেয়া,আদিবাসীদের ভয় ভীতি প্রদর্শন বন্ধ করা, তদের স্বাভাবিক জীবন-যাপনে বাধার সৃষ্টি না করা, তাদেরকে উচ্ছেদ করার অপপ্রয়াস বন্ধ করা ও আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সরকারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের জীবন নির্বাহের জন্য যথেষ্ঠ পরিমানের জমি স্থায়ীভাবে প্রদানের জন্য বিবৃতিতে জোর দাবী জানান । বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন প্রবীণ শিক্ষাবিদ ও বাপা, সিলেট শাখার সভাপতি ডঃ ছদরুদ্দিন আহমদ চৌধুরী, মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয় সিলেটের উপাচার্য ও বাপার জাতীয় কমিটির সদস্য প্রফেসর ড. সালেহ উদ্দিন আহমদ, নর্থইস্ট ইউনিভার্সিটির ন্যাচারাল সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এম এ মজিদ, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডঃ আব্দুল আউয়াল বিশ্বাস, সিলেট বাপার সহ-সভাপতি ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট ই ইউ শহীদুল ইসলাম শাহীন, ‘সুজন’ সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী, সনাক ও ব্লাস্টের সিলেট সভাপতি ইরফানুজ্জামান চৌধুরী, বাপা’র আদিবাসী রক্ষা আন্দোলনের সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়ক ফাদার জোসেফ গোমেজ, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও বাপা সিলের শাখার সহ-সভাপতি ড. নাজিয়া চৌধুরী, পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক এড: মৃত্যুঞ্জয় ধর ভোলা, স্বায়ত্তশাসন আন্দোলনের আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী, তথ্যচিত্র নির্মাতা নিরঞ্জন দে যাদু, সিলেট বাপা’র সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম, শাবির নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ কে এম মাজহারুল ইসলাম ও সহকারী অধ্যাপক সঞ্জয় কৃষ্ণ বিশ্বাস, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাওলানা মো. এমদাদুল হক, রুখে দাঁড়াও বাংলাদেশ-এর সিলেটের সমন্বয়ক এডভোকেট গোলাম সোবহান চৌধুরী দিপন, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম সিলেট বিভাগীয় শাখার সভাপতি গৌরাঙ্গ পাত্র, আদিবাসী নারী উন্নয়ন সংগঠক সুমেলা পাত্র, চা শ্রমিক নেতা শ্রীবাস মোহালী, ট্রাইবাল এসোসিশেয়নের চেয়ারম্যান দানেশ সাংমা প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: