সর্বশেষ আপডেট : ৫০ মিনিট ০ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে ৩৫ শিক্ষকের পদত্যাগ

Sabi_News copyস্টাফ রিপোর্টার ::

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য ড. আমিনুল হক ভূঁইয়ার অপসারণ দাবিতে ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবালসহ ৩৫ জন শিক্ষক একযোগে পদত্যাগ করেছেন।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আমিনুল হক ভূঁইয়ার পদত্যাগের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক পদে কর্মরত ৩৫ শিক্ষক পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। সোমবার সকাল ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ইশফাকুল হোসেনের কাছে তারা এ পদত্যাগপত্র জমা দেন বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর এমদাদুল হক।

পদত্যাগ করা শিক্ষকদের মধ্যে রয়েছেন- ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজির ডিরেক্টর লেখক ও অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, সেন্টার ফর এক্সিলেন্সর ডিরেক্টর অধ্যাপক ইউনুস, কোয়ালিটি অ্যাসিওরেন্সের পরিচালক ও অধ্যাপক আউয়াল বিশ্বাস, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর, সহকারী প্রক্টর, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক, পরিবহন প্রশাসক, বিভিন্ন হলের প্রভোস্ট, সহকারী প্রভোস্টসহ ৩৫ জন।

ক্যাম্পাস সূত্র জানায়, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষক ফোরামের নেতারা সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ভবনে জড়ো হতে থাকেন। পদত্যাগপত্র নিয়ে সকাল ১১টার দিকে ফোরামের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. সামছুল আলম চৌধুরী, কো-কনভেনর প্রফেসর মোস্তাবুর রহমান ও পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. নাজিয়া চৌধুরীর নেতৃত্বে শিক্ষক প্রতিনিধি দল রেজিস্ট্রারের সঙ্গে দেখা করে পদত্যাগ পত্র জমা দেন।

পদত্যাগপত্র জমা দিয়ে বেরিয়ে এসে ফোরামের কো কনভেনর মোস্তাবুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আমরা এই ভিসির প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করেছি। এমনকি তার সঙ্গে আর কাজ করা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছি। আমরা তার পদত্যাগ দাবি করছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর জানান, শাবিতে প্রশাসনিক পদে সবমিলিয়ে ৩৭ জন শিক্ষক কর্মরত আছেন। আর এসব পদে দায়িত্বরত ছিলেন ৩৫ জন শিক্ষক। এর মধ্যে কয়েকজন শিক্ষক একাধিক পদে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

শাবির সিন্ডিকেট সদস্য ও শিক্ষক সমিতির সাবেক সেক্রেটারি ফারুক উদ্দিন জানান, তারা এ নিয়ে আজই বৈঠকে বসে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করবেন।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার সকালে ভিসির সঙ্গে একাডেমিক ভবনের জায়গা সম্পর্কিত জটিলতা নিরসনের ব্যাপারে কথা বলতে যান পদার্থবিজ্ঞান ও জিওগ্রাফি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট (জিইই) বিভাগের ১৯ জন শিক্ষক। তাদের মধ্যে প্রফেসর ড. জাফর ইকবালের স্ত্রী পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. ইয়াসমিন হকও উপস্থিত ছিলেন। ওই দিন ভিসির সঙ্গে কথা কাটাকাটি হলে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. সৈয়দ বদিউজ্জামান ফারুক এবং জিইই বিভাগের প্রফেসর ড. শরীফ মোহাম্মদ শারাফউদ্দিন বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করেন। এরপর মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষক ফোরাম গত বুধবার বৈঠক করে এ ভিসির সঙ্গে কাজ করা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দেয়। বুধবার রাত ৯টায় শেষ হওয়া ওই বৈঠক থেকে রবিববার বিকাল ৫টার মধ্যে ভিসিকে পদত্যাগ করার আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। অন্যথায় সোমবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব প্রশাসনিক পদ থেকে শিক্ষকেরা পদত্যাগ করবেন বলে সভায় সিদ্ধান্ত হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: