সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নিরাপত্তার অজুহাত : সাড়ে ৩ মাস পর সিলেট-ছাতক রেল লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু

4. chhatak-sylhet trainবিশ্বনাথ প্রতিনিধি::
নিরাপত্তার অজুহাতে প্রায় ১০০ দিন পর বৃহস্পতিবার সকালে সিলেট-ছাতক রেল লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু করেছে। রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া বিএনপি-জামায়াতের অবরোধ চলাকালে নিরাপত্তার অজুহাতে বন্ধ করে দেয়া হয় এ রুটের ট্রেন সার্ভিস। সিলেট-ছাতক লাইনে মাঝে মধ্যে মালবাহী ট্রেন চলাচল করলেও একেবারেই বন্ধ রয়েছিল যাত্রীবাহী ট্রেন। সিলেট হতে ছাতক পর্যন্ত প্রায় ৩৫ কিঃমিঃ দীর্ঘ রেলপথটি ১৯৫৬ সালে নির্মাণ করা হয়। এ লাইনে ১৯৮৬ সাল পর্যন্ত নিরবচ্ছিন্ন ট্রেন সার্ভিস চালু ছিল।

ট্রেনে প্রায় ৪৫ মিনিটে ছাতক হতে সিলেট পৌঁছতে পারতেন যাত্রীগণ। সিলেট হতে ছাতক যেতে ট্রেনটি পথিমধ্যে দু’টি স্টেশনে (ছাতক উপজেলার আফজালাবাদ ও বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চীগাঁও) যাত্রাবিরতি করতো। ছাতক, আফজালাবাদ ও খাজাঞ্চীগাঁও-এ তিনটি রেলস্টেশনের পাশ্ববর্তী এলাকার বিপুল সংখ্যক যাত্রীর সিলেট নগরীতে যাওয়া-আসার একমাত্র উপায় ছিল এটি।

সূত্রমতে, ১৯৮৫ সাল থেকে ওই রেলপথে মন্দাভাব দেখা দেয়। নির্ধারিত সময়ে ট্রেন চলাচল না করায় যাত্রীরা সময়মতো গন্তব্যে পৌঁছতে পারতেন না। শিল্প নগরী ছাতক থেকে চুনা পাথর, সিমেন্ট, স্লিপার, বালু, বোল্ডার ও ভাঙা পাথর দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হতো এ রেলপথ দিয়ে। বর্তমানে এ লাইনের বেহাল দশা। অকেজো স্লিপার, মেয়াদ উর্ত্তীণ বগি, পর্যাপ্ত পাথরের অভাব এবং যথাসময়ে প্রয়োজনীয় মেরামত না করায় এ রোডে যাত্রীবাহী ও মালবাহী ট্রেনের প্রায়ই লাইনচ্যুতের খবর মেলে। দেশের বেশীরভাগ পাথর-স্লিপার ছাতক থেকে সরবরাহ হলেও এ রেলসেকশনের রেল পথে অনেক স্থানেই নেই পাথর।

যাত্রী সাধারণের যাতায়াতের জন্য দু’টি জরাজীর্ণ বগি দেয়া হতো। ট্রেনের এসব বগিতে নেই বিদ্যুৎ ও পানির সুবিধা, নেই দরজা-জানালা। ট্রেনের সিটগুলোও ভাঙা, ভর্তি থাকে ময়লা আবর্জনায়। আবার যাত্রীবাহী ট্রেনের সাথে মালবাহী বগি জোড়া দেয়া হয়। তখন ট্রেন লাইনচ্যুত হয়। এরপরও ভাড়া তুলনামূলক কম হওয়ায় এই লাইনে যাত্রীরা ট্রেনে চলাচলে অনেকটা সুবিধাজনক মনে করতেন। শীত মৌসুমে বিশ্বনাথ খাজাঞ্চী ও ছাতক উপজেলার আফজালাবাদ এলাকা থেকে প্রচুর সবজি দেশের বিভিন্ন জায়গায় বাজারজাত করা হয়। আর সবজি পরিবহন খরচ কম হওয়ায় ব্যবসায়ীরা রেলপথে সিলেট শহরে সবজি বাজারজাত করতে স্বাচ্ছ্যন্দবোধ করেন। কিন্ত গত সাড়ে তিন মাস যাবৎ ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকার পর বৃহস্পদিবার আবার ট্রেন চলাচলা শুরু করায় সাধারণ মানুষ ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা খুশি।

ট্রেনচলাচলের সত্যতা স্বীকার করে সিলেট রেলওয়ে ষ্টেশন মাস্টার কাজী শহিদুর রহমান বলেন, নিরাপত্তার কারণে গত ৫ জানুয়ারী থেকে সিলেট-ছাতক লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। জিআরপি পুলিশের রির্পোটের ভিত্তিতে ট্রেনের ইঞ্জিন ও বগি ‘ইমারজেন্সি সাটল’ এ রাখা হয়েছে। কিন্তু গতকাল সাটল পুলিশ তুলে নেয়। ফলে সিলেট-ছাতক আবার ট্রেন চলাচল শুরু করেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: