সর্বশেষ আপডেট : ২১ মিনিট ৬ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ব্যক্তিত্ব উন্নয়নের কিছু টিপস

selfলাইফস্টাইল ডেস্ক: আমরা সবসময় নিজেকে অন্যের চেয়ে বুদ্ধিমান, যোগ্য ও শ্রেষ্ঠ হিসেবে তুলে ধরার জন্যে সচেষ্ট থাকি। কারণ বর্তমান যুগ হচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বিতার যুগ, প্রতিযোগিতার যুগ। নিজেকে শ্রেষ্ঠ প্রমাণ করতে না পারলে আপনি অন্যদের পেছনে পড়ে যাচ্ছেন। এই প্রচেষ্টায় আপনি কখনও কখনও সফল হচ্ছেন, হাততালি পাচ্ছেন, ফুলের মালা পাচ্ছেন, আনন্দে আপনার বক্ষ স্ফীত হচ্ছে, চেহারা উজ্জ্বল হচ্ছে। কিন্তু রাতে যখন বিছানায় একা ঘুমুতে যাচ্ছেন, নিজেকে নিয়ে যখন একান্তে ভাবছেন তখন আপনি নিজেও স্বীকার করবেন যে, আপনার নিজেরও ব্যক্তিত্ব উন্নয়নের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।
ব্যক্তিত্বের উন্নয়ন বা আত্ম-উন্নয়নের জন্যে আমরা কিছু ছোটখাট কর্মসূচি বা পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারি, যা আমাদেরকে উন্নত মানবে রূপান্তরিত করবে।

১. লক্ষ্যস্থির করুন: আমরা প্রতিনিয়তই কিছু কাজ করতে চাই। আমরা মনে করি যে, এই কাজগুলো করতে হবে। কিন্তু দেখা যায় যে, সে কাজগুলো করা হয় না, জমতে থাকে। যেমন চিঠি লিখব কিন্তু লেখা হয় না। ব্যায়াম করে ওজন কমাব, তাও করা হয় না। কিছু প্রয়োজনীয় কাজ যা করা দরকার, তাও জমে থাকে। এই কাজগুলো যেন জমে থাকতেই ভালবাসে, অথবা আমাদের মধ্যেই এমন আলস্য রয়েছে যা কাজকে পিছিয়ে দেয়। হয়তো আমরা ব্যস্ত অথবা ক্লান্ত বা সময় মত কাজটি করতে মন চাচ্ছে না। এ ক্ষেত্রে আমাদের আসল সমস্যা হচ্ছে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যের অভাব। তাই কাজ করার আগে আমাদের লক্ষ্যস্থির করতে হবে।

২. নিজের সম্পর্কে উন্নত ধারণা সৃষ্টি করুন: আপনি নিজেকে যখন পছন্দ করতে শুরু করবেন তখনই আপনি আত্মবিশ্বাসী ও সৃজনশীল হয়ে উঠবেন। চেহারায় প্রশান্তি আসবে, বুক টান টান করে হাঁটতে চাইবেন। কণ্ঠস্বরে বলিষ্ঠতা আসবে। দৈনন্দিন কাজের বাধাগুলো আপনার কাছে সহনীয় মনে হবে। তাই নিজের সম্পর্কে ধারণাকে উন্নত করার জন্যে আপনাকে সচেষ্ট থাকতে হবে। আপনার কাজের প্রশংসাসূচক চিঠি, নোট, যেকোনো প্রশংসাপত্র, মানপত্র, সার্টিফিকেট এগুলোকে সযত্নে একটি ফাইলে রেখে দিন। কোনো কারণে কখনও হতাশা সৃষ্টি হলে বা মন খারাপ লাগলে এই কাগজগুলোর দিকে তাকান। উল্টান। আপনি উদ্দীপনা ফিরে পাবেন।
যোগ্যতাগুলোকে বেশি করে কাজে লাগান। গুণগুলোকে যত বিকশিত করবেন, দোষ তত ঢাকা পড়ে যাবে। যখন সময় পাবেন তখন দোষগুলো নিয়ে ভাববেন। নিজের সীমাবদ্ধতা নিয়ে চিন্তা করে রাতের ঘুম নষ্ট করার কোন প্রয়োজন নেই।

৩. সময়মত কাজ করুন: হাতে সময় থাকতেই কাজ শুরু করুন। যারা দেরিতে কাজ শুরু করে তারা এক অর্থে অত্যন্ত আশাবাদী। তারা মনে করেন দেরিতে করলেও ঠিক সময়ে কাজ শেষ করতে পারবেন। বুঝতে পারে না, অন্যরা এই দেরি করাটাকে কখনও ভাল চোখে দেখে না। কোথাও দেরিতে উপস্থিত হওয়া অন্যদের মনে নেতিবাচক প্রভাব সৃষ্টি করে। তাই সবসময় সময়মত হাজির হোন। সময়ানুবর্তী হওয়ার জন্যে ঘড়ির কাঁটা পাঁচ মিনিট এগিয়ে রেখে কোন লাভ হয় না। বরং সময়মত কোথাও পৌঁছাতে হলে হেঁটে রওনা দিলে যে সময় লাগবে তার পনেরো মিনিট আগে রওনা দিন। আর যানবাহনে করে যেতে হলে কমপক্ষে আধঘণ্টা সময় হাতে রাখুন। তাহলে জ্যামে আটকা পড়লেও আপনি সময়মত হাজির হতে পারবেন।

৪. ক্রোধ নিয়ন্ত্রণ করুন: ক্রোধ অনেক সময়ই প্রবঞ্চিত হওয়া বা অসহায়ত্বের অনুভূতির প্রকাশ ঘটায়। আমরা উত্তেজিত হয়ে উঠি, উত্তেজনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে চাই কিন্তু উত্তেজনাকে নিয়ে কি করব তা বুঝতে পারি না। আপনি ক্রোধের কারণগুলো খুঁজে বের করুন। সে কারণগুলোকে দূর করার জন্যে বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ গ্রহণ করুন, দেখবেন রাগ উত্তেজনা কমে গেছে।

৫. পড়াশুনা করুন: পড়াশুনা করুন জীবনের জন্যে আত্মনির্মাণ ও আত্ম আবিষ্কারের জন্যে। আত্মনির্মাণ ও আত্ম উন্নয়নমূলক বই পড়ুন। শরীর-স্বাস্থ্য, খাবার, ব্যায়াম ইত্যাদি বিষয়ক প্রয়োজনীয় বইপত্র সংগ্রহ করে পড়ুন। সফল মানুষদের জীবনী গ্রন্থসমূহ সংগ্রহ করে পড়ার সাথে সাথে চিরায়ত সাহিত্য কর্মের মাঝে অবসর সময়ে নিজেকে ডুবিয়ে রাখুন। জীবন সম্পর্কিত জ্ঞানই আপনার চলার পথকে সহজ করতে পারে।

৬. মেডিটেশন করুন: নিজের ভেতরে ডুব দেয়া ছাড়া নিজের সম্ভাবনাকে আবিষ্কার করা যায় না। তাই প্রতি রাতে শোয়ার আগে বিছানায় গিয়ে চুপচাপ বসুন। ধ্যানের প্রক্রিয়ায় নিজের দেহমনকে প্রশান্ত করুন। নিজের সারাদিনের কাজের পর্যালোচনা করুন। ভুলগুলোর জন্যে নিজের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিন। ভালো কাজের জন্যে নিজেকে ধন্যবাদ দিন। নিজের যোগ্যতার প্রতি নতুনভাবে বিশ্বাস স্থাপন করুন। তারপর ঘুমিয়ে পড়ুন।
সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে আবার ধ্যানে বসুন। সারাদিনের কাজের পরিকল্পনা করুন। নতুন বিশ্বাসে নতুন দিনের কাজ শুরু করুন। আপনার ব্যক্তিত্ব যেমন উন্নত হবে তেমনি আপনি ধীরে ধীরে সাফল্যের স্বর্ণশিখরে আরোহরণ করবেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: