সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের বিভাগীয় বর্ধিত সভা

বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সিলেট বিভাগীয় কমিটির বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২১ নভেম্বর সিলেট নগরীর তালতলাস্থ একটি অভিজাত হোটেলের কনফারেন্স হলে এই সভা হয়। সভায় আগামী ২৯ নভেম্বর কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী লীগের অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় সম্মেলন ও কাউন্সিল সম্পর্কিত বিষয়ে আলোচনা করা হয়। আলোচনা সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলন ও কাউন্সিলে উপস্থিত থাকার জন্য জোর দাবী জানানো হয়।
সিলেট জেলা মৎস্যজীবী লীগের আহ্বায়ক সুসেন্দ্র চন্দ্র নমঃ (খোকন) এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের কেন্দ্রীয় সাবেক সহ-সভাপতি এড. ইসলাম আলী।

বক্তারা বলেন, সভায় বাংলাদেশ দ্বিতীয় বৃহত্তম পেশাজীবী, মৎস্যজীবী সম্প্রদায় যারা দেশের মোট জনসংখ্যা এক দশমাংশ বলে বলা হয়। তাদেরকে রাজনৈতিক ভাবে সংগঠিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগি সংগঠন হিসেবে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ গঠন করে যে পৃথক রাজনৈতিক স্বীকৃতির মহতী প্রদক্ষেপ গ্রহণে করেছেন তার জন্য মৎস্যজীবী অধ্যুষিত সিলেট বিভাগের ১৫ লাখ মৎস্যজীবী জনগোষ্ঠি পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা হয় এবং আগামী ২৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কাউন্সিলর স্বার্থক ও সাফল্য কামনা করা হয়। সভায় হাওর-বাওর, বিল-বাদাল ও নদ নদীতে বেষ্ঠিত মৎস্য উৎপাদনের উল্লেখযোগ্য অঞ্চল বৃহত্তর সিলেটের তথ্য বাংলাদেশের মৎস্যজীবীদের জন্য আজীবন নিবেদিত প্রাণ। মৎস্যজীবী সম্প্রদায়ের কৃতি সন্তান এড. ইসলাম আলীকে অনুষ্ঠিব্য কাউন্সিল আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি পদ প্রদানের জন্য বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মাননীয় সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনার সদয় দৃষ্টি আকর্ষন সর্বসম্মত আবেদন জানানো হয়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত এড. ইসলাম আলী বলেন, বাংলাদেশ একটি নদীমাতৃক দেশ। মাছে ভাতে বাঙালীর দেশ হিসেবে খ্যাত ছিল। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে মৎস্য সম্পদ হবে দ্বিতীয় যাহা ইতিমধ্যে বাস্তবায়িত হতে চলছে। তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বাংলাদেশ সমআয়তনের আরেকটি জলায়ত বঙ্গোপসাগরে অর্জনে করেছেন যাহাতে বৃহৎ সম্ভাবনায় ব্লু-ইকোনমি উজ্জ্বল সম্ভাবনা তৈরী হয়েছে এবং আগামী দিনে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে মৎস্য সম্পদ হবে, দ্বিতীয় দেশের সম্পদ। তিনি বলেন বাংলাদেশ স্বাধীন এর পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু প্রথম জলার উপর মৎস্যজীবিদের স্থায়ী অধিকার প্রতিষ্ঠায় দেশ ব্যাপী সামাজিকভাবে চিহ্নি মৎস্যজীবী গ্রাম, মহল্লা ও পাড়াতে মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি গড়ে তুলেন, কিন্তু আমলাতান্ত্রিক জঠিলতার নীতি সমিতি নিবন্ধনে অনিময় ও যথা আইনের অভাবে মধ্যসত্বভোগীর অনুপ্রবেশের ফলে জাল যার জলা তার নীতি বাস্তবায়নে কাঙ্খিত লক্ষ পৌছায় এখনো সম্ভব হচ্ছে না। জননেত্রী শেখ হাসিনা জাল যার, জলা তার নীতি বাস্তবায়নে খুবই আন্তরিক। তিনি মৎস্যজীবীদেরকে রাজনৈতিকভাবে সংগঠতি করার যে উদ্যোগে নিয়েছেন মৎস্যজীবী সম্প্রদায়ের প্রতি তাহার আন্তরিক ও মহতী মনের বহিঃপ্রকাশ। তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃহৎ জনগোষ্ঠী ছড়িয় ছিটিয়ে থাকার কারণে বৃটিশ ভারত থেকে শুরু করে পাকিস্তান আমল পর্যন্ত জাতীয় নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারের অংশগ্রহণ সম্ভব হয়ে উঠেনি। তবে তৎকালীন সরকার রাজনৈতিক স্বীকৃতি না দিলেও কেবিনেটে এই সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব নিয়ে থাকতেন। আজ বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা মৎস্যজীবী লীগ গঠনের মাধ্যমে এই সম্প্রদায়ের যে পৃথক রাজনৈতিক স্বীকৃতি প্রদান করেছেন এর জন্য মৎস্যজীবী জনগোষ্ঠীর পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি কেন্দ্রীয় সম্মেলন ও কাউন্সিলের সাফল্য কামনা করেন।

সদস্য মো. ফয়জুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন ওসমানী নগর উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সাধারণ সম্পাদক আছকির আলী ও গীতা পাঠন করেন সিলেট জেলা মৎস্যজীবী লীগের আহ্বায়ক সুসেন্দ্র চন্দ্র নমঃ (খোকন)।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আহমদ কয়েছ, মৎস্যজীবী লীগ মৌলভীবাজার জেলা শাখার আহ্বায়ক মোশাহিদ আলী, হবিগঞ্জ জেলা আহ্বায়ক মো. তাজুল ইসলাম, সুনামগঞ্জ জেলা শাখার আহ্বায়ক মো. সেরুল মিয়া, মো. ইদ্রিছ আলী, মহানগর মৎস্যজীবী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহিন আহমেদ, যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল ইসলাম নুরু, মো. রুকন আহমদ, মো. সালাউদ্দিন বক্স সালাই, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. শাহ জুনেদ আহমদ, সিরাজুল ইসলাম, ফয়সাল আহমেদ, জয়নাল আহমদ জানু, মো. নুরুল ইসলাম, সদর উপজেলা শাখার সভাপতি গৌরাঙ্গ সরকার, জৈন্তাপুর উপজেলা সভাপতি মো. মঈন উদ্দিন, জকিগঞ্জ উপজেলা সভাপতি মো. মহরম আলী, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা সভাপতি মো. সেলিম আহমদ, বিশ্বনাথ শাখার আহ্বায়ক মো. আমিনুল ইসলাম গেদু মিয়া, বালাগঞ্জ উপজেলার সাধারণ সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান মধু, ওসমানীনগর উপজেলা শাখার মো. আছকির আহমদ, গোয়াইনঘাট শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. তাজ উদ্দিন, বিয়ানীবাজার শাখার যুগ্ম সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি মো. সোহেল মিয়া, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সভাপতি মো. বাদশা মিয়া, কানাইঘাট উপজেলা সভাপতি মো. আব্দুল খালিক, দোয়ারাবাজার উপজেলার আহ্বায়ক হাজী নছর উদ্দিন, জগন্নাথপুর উপজেলা আহ্বায়ক আরাফাত আলী, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ শাখার আহ্বায়ক রুবেল আহমদ প্রমুখ। – বিজ্ঞপ্তি




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: