সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ফিলিস্তিন ভূখণ্ডে ইসরায়েলি দখল অবৈধ: বাংলাদেশ

নিউজ ডেস্ক:: ফিলিস্তিনের ভূখণ্ডে ইসরায়েলি দখল ও বন্দোবস্ত কার্যক্রমকে অবৈধ বলে উল্লেখ করেছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ফিলিস্তিনের জনগণের স্বদেশের প্রতি অবিচ্ছেদ্য অধিকারের বিষয়ে বাংলাদেশের সমর্থন রয়েছে এবং ইসরাইলকে এই বিষয়ে আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব বিষয় জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইউএনএসসি ২৪২ এবং ইউএনএসসিআর ৩৩৮, ৪২৫, ১৩ ১৩৯৭, ১৫১৫ ও ১৫৪৪-সহ অন্যান্য ইউএনএসসি রেজুলেশনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত ফিলিস্তিন এবং তার আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি বাংলাদেশের অবিস্মরণীয় সমর্থন রয়েছে।

সুরক্ষা কাউন্সিল, ইউএনজিএ, এইচআরসি এবং আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালত সকলেই নিশ্চিত করেছেন যে, অধিকৃত ফিলিস্তিনি অঞ্চলগুলোতে ইসরায়েলি জনবসতি নির্মাণ ও সম্প্রসারণ সম্পর্কিত অন্যান্য কার্যক্রম আন্তর্জাতিক আইনে অবৈধ বলেও বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, অধিকৃত পশ্চিম তীর ইসরাইলের বসতি স্থাপন আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে ‘অসামঞ্জস্যপূর্ণ নয়’। তার মতে, পশ্চিম তীর কার, এ নিয়ে আলোচনা করা ইসরাইলী ও ফিলিস্তিনীদের বিষয়। দেশটির নতুন এই ঘোষণা সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময়ের অবস্থানের সম্পূর্ণ বিপরীত। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু মার্কিন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে একে ‘ঐতিহাসিক ঘটনা’ বলে উল্লেখ করেন। ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের মুখপাত্র ও দেশটির পক্ষে প্রধান আলোচনাকারী সায়েব ইরাকাত বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক আইনের সম্পূর্ণ বিরোধী। এটি বৈশ্বিক স্থিতিশীলতা, নিরাপত্তা ও শান্তির জন্য হুমকি। এর ফলে আন্তর্জাতিক আইনের বদলে ‘জঙ্গলের আইন’ প্রতিষ্ঠার ঝুঁকি দেখা দিয়েছে।

১৯৬৭ সালের যুদ্ধের পর থেকে পশ্চিম তীর এলাকা দখল করে ইসরাইল বসতি স্থাপন করছে। দিন দিন এই বসতি বড় হচ্ছে। এ নিয়ে ইসরায়েলের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিবাদ চলছে ফিলিস্তিন ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের। ২০০৪ সালে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত ঘোষণা দিয়েছিলেন, পূর্ব জেরুজালেমসহ ফিলিস্তিনের দখল হওয়া ভূখণ্ডে ইসরাইলের বসতি স্থাপন আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইসরাইলের বসতি স্থাপনের বৈধতা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের চার দশকের অবস্থান পরিবর্তনের সিদ্ধান্তে নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন।

প্রধান ফিলিস্তিনী শান্তি আলোচক সায়েব এরাকাত বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপ আন্তর্জাতিক আইনের জায়গায় জোর যার মুলুক তার প্রতিষ্ঠা পাওয়ারই হুমকি সৃষ্টি করেছে। ‘সব পক্ষের আইনী যুক্তি সাবধানতার সঙ্গে পর্যালোচনার পর যুক্তরাষ্ট্র এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে, পশ্চিম তীরে বেসামরিক নাগরিকদের জন্য ইসরায়েল যে বসতি স্থাপন করছে, আদতে তা আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে অসামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।’

এর মধ্য দিয়ে তিনি পশ্চিম তীরে ইসরায়েলী বসতি নিয়ে ওয়াশিংটনের অবস্থান পরিষ্কার করে দেন। ফিলিস্তিনী আলোচক সায়েব ইরাকাত বলেছেন, ‘ইসরায়েল পূর্ব জেরুজালেমসহ ফিলিস্তিনের যেসব ভূখণ্ড দখল করে উপনিবেশের মতো বসতি স্থাপন করছে তা আন্তর্জাতিক আইনে কেবল অবৈধই নয়, যুদ্ধাপরাধও।’ ওই বসতি নিয়ে কয়েক দশক ধরে ইসরায়েল, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এবং ফিলিস্তিনের মধ্যে বিরোধ চলছে। পশ্চিম তীরে ইসরাইলের অধিকৃত ভূমিতে প্রায় ছয় লাখ ইহুদী বাস করে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: