সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ২০ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত ছাত‌কের দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের শেওলাপাড়া গ্রাম

জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, ছাতক :: বর্তমা‌নে সারা দেশে বঙ্গবন্ধুর কন্যা, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার যখন উন্নয়নের এক মহাযজ্ঞ চলছে। সেখানে উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত ছাতক উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নে হাওর-বিল সমৃদ্ধ শেওলাপাড়া গ্রামটি র‌য়ে‌ছে অবহেলিত। অতিত থেকে বর্তমান সরকারের আমলে চারদিক‌ে উন্নয়নের জোয়ারে ভাসলেও এখনো উন্নয়নের ছোঁয়া পায়নি এই অবহেলিত গ্রামটি। কারো নজর কাড়তে পারেনি। এখা‌নের বেশীর ভাগ মানুষই কৃষি ও মৎস্যজী‌বি কাজ‌ে ব্যস্থ থা‌কেন। দরিদ্রভাতা, বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা সহ বিভিন্ন ধরনের সরকারি সুবিধা সম্পর্কে অ‌নে‌কেরই কোন ধারনা নেই গ্রামবাসীর।

দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ড। তার মধ্যে ৮টি ওয়ার্ডে সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড ব্যাপকভাবে চলমান রয়েছে। সেক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের শেওলাপাড়া গ্রামটি। গ্রামীণ জনপদের এ অবহেলিত গ্রামটি দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন চোখে পড়েনি। সামান্য বৃষ্টিতে গ্রামীণ সড়কটি পানিতে ডুবে যায়। এখা‌নে একটি ইবতেদায়ী মাদ্রাসা ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।
এ প্রাথমিক বিদ্যালয়টি সংসদ নির্বাচন ও ইউপি নির্বাচনে ভোট কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, গ্রামের সকল মানুষই কৃষি ও মৎসজী‌বি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। এ গ্রামের মানু‌ষের যোগাযোগ ব্যবস্থার একমাত্র কাঁচা রাস্তাটি সামান্য বৃষ্টিতে প্যাক-কাঁদায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। বর্ষা মৌসুমে মাদ্রাসা ও স্কু‌লের শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়তই কষ্ট করে এ সড়ক দিয়ে পায়ে হেটে চলাচল করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে প্রত্যেকটি গ্রামকে শহর করার ঘোষণা দিয়েছেন, যেন শহর এবং গ্রামের মধ্যে কোন বিভেদ না থাকে। অথচ গ্রামীণ জনপদের এ গ্রামটি এখ‌নো সরকা‌রের উন্নয়ন থেকে দূরে ব‌ঞ্চিত ও অবহেলিত হয়ে পড়ে আছে।

গ্রামের বাসিন্দা তরুন যুবক হাসান আহমদ জানান, গ্রামবাসীর দুঃখ যে কবে শেষ হবে ? কি বা বর্ষা কি বা শীতকাল সবসময় প্রায় হাটু সমান পানি কাদা জমে থাকে। আমরা শেওলাপাড়া সব চেয়ে অবহেলিত গ্রামের মানুষ। আমাদের রাস্তাঘাট মনে হয় কোন দিন পাকা তো হওয়া দুরের কথা মাঠি ভরাটও হবে না। আর হলেও মনে হয় আমরা দেখে যেতে পারবো না। ভোটের সময় আসলে প্রতিশ্রতি দিয়ে ভোট নেয়। ভোট দেওয়া হয়ে গেলে নেতারা আর আসে না।

এ বিষয়ে শেওলাপাড়া গ্রামের আমির উদ্দীন ও সুহেল মিয়া জানান, এ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে সরকারের উন্নয়ন কাজ চলমান থাকলেও এ ওয়ার্ডের শেওলাপাড়া গ্রামে কোন কাজ হচ্ছে না। দলীয় কোন্দল বিভেদ ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে এ গ্রামে কোন কাজ হয় না। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এ ওয়ার্ডে কাগজ‌ে-পত্রে প্রকল্প দেখি‌য়ে কাজ করেন অন্য ওয়ার্ডে। এ গ্রামের সড়কে গাড়ি-সিএনজি চলাচল তো দূরে থাক, পাঁয়ে হেটে চলাও দুস্কর। স্থানীয় গ্রামবাসী এ গ্রামের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।##




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: