সর্বশেষ আপডেট : ৯ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘গরুর বদলে নারীদের দিকে বেশি নজর দিন’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভারতের নাগাল্যান্ড রাজ্যে গত পাঁচ অক্টোবর হয়ে গেলো সুন্দরী প্রতিযোগিতা ‘মিস কোহিমা-২০১৯’। ওই আসরে প্রশ্নোত্তর পর্বে এক প্রতিযোগীর জবাব গোটা ভারতে সাড়া ফেলেছে। ভিকুওনুও সাচুকে নামের ওই তরুণী ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘গরুর বদলে নারীদের দিকে বেশি নজর দিন।’

ইতিমধ্যে প্রতিযোগীর এই প্রশ্নোত্তর পর্বের একটি ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হওয়ার পর ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। এতে লাইক ও কমেন্টের বন্যা বয়ে যাচ্ছে বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে। গত সোমবার পোস্ট হওয়া ভিডিয়োটি ইতিমধ্যেই প্রায় ৯৫ লাখ বার দেখা হয়েছে।

জানা যায়, ‘মিস কোহিলা’ প্রতিযোগিতায় ১৮ বছরের সুন্দরী ভিকুওনুও সাচুকে একজন প্রশ্ন করেন, ‘আপনি যদি কখনও প্রধানমন্ত্রী নওরন্দ্র মোদির সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পান, তাহলে তাকে কী বলবেন?’

ভিকুওনুওর তড়িৎ জবাব, ‘যদি আমি দেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার আমন্ত্রণ পাই, তবে আমি তাকে বলব, গরুর বদলে নারীদের দিকে বেশি নজর দিন।’

তার উত্তর শুনে হাততালিতে ফেটে পড়ে গোটা হল। যদিও প্রতিযেগিতায় তিনি সেরা সুন্দরী হতে পারেননি। নাগাল্যান্ডের রাজধানী কোহিমায় অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতায় সেরা হয়েছেন ২৩ বছরের কোরিয়েনু লিজিয়েতসু। আর ভিকুওনুও সাচু হয়েছেন দ্বিতীয় রানার আপ। তবে সেরা না হলেও সচেতনমূলক জবাবের কারণে ভারতের পত্র পত্রিকাগুলোতে অনেক কভারেজ পাচ্ছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ভারতে মোদির দল বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই গো-রক্ষার নামে নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করে চলেছে কেন্দ্রীয় ও বিভিন্ন রাজ্য সরকারগুলো। গুজরাট ও উত্তর প্রদেশসহ অনেক রাজ্যে গো হত্যা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। দেশের মন্ত্রীদের প্রায়ই গো-মুত্রের উপকারিতা নিতে প্রকাশ্যে বক্তব্য রাখতেও দেখা যায়। শুধু তাই নয়, এসব অতি উৎসাহী গো-রক্ষকদের হাতে গত কয়েক বছরে ভারতে নির্মমভাবে প্রাণ হারিয়েছে একাধিক সংখ্যালঘু মুসলিম। ফলে মাত্রতিরিক্ত গরু প্রীতির কারণে প্রায়ই সমালোচিত হয়ে থাকেন মোদি ও তার দল বিজেপির অঙ্গ সংগঠনগুলো।

অন্যদিকে সামাজিক কারণে দেশটিতে নির্মম নিপীড়নের শিকার নারীরা। সেখানে তারা প্রতিনিয়ত হত্যা, ধর্ষণ, যৌতুক, নারী পাচার ও ভ্রণ হত্যার মতো অপরাধের শিকার হয়ে থাকে। ভ্রূণ হত্যার কারণে উত্তর রাজস্থান,হরিয়ানাসহ অনেক রাজ্যে পুরুষের তুলনায় নারীদের সংখ্যা অনেক কম। আর এই ঘাটতি পূরণ করতে এসব রাজ্যের পুরুষেরা বিহারের মতো অপেক্ষাকৃত দরিদ্র অঞ্চলগুলো থেকে নারীদের পাচার করে এনে থাকে। যদিও এসব সমস্যা নিয়ে ক্ষমতাসীন দলটিকে কখনই সোচ্চার হতে দেখা যায় না।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]gmail.com

Developed by: