সর্বশেষ আপডেট : ১৫ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিতর্কিত ছবি, ফের ক্ষমা চাইলেন ট্রুডো

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। অতীতে নানা রকম সাজে নিজের তোলা কিছু ছবি এখন মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে তার। কোনো ছবিতে তিনি বাদামি রঙয়ের চামড়ার মানুষের সাজে, আবার কোনো ছবিতে কৃষ্ণাঙ্গের সাজে রয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার তার তৃতীয় ছবিটি সামনে আসে। যার জেরে দ্বিতীয় বার ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন কানাডার এই উদারপন্থী নেতা।

টুইটারে একটি ভিডিও বার্তা পোস্ট করে ট্রুডো বলেছেন, যেসব মানুষ প্রতিদিন অসহিষ্ণুতা এবং বৈষম্যের শিকার হন, আমার এই কাজ তাদের দুঃখ দিয়েছে। এই কাজের জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী, এর দায়িত্ব সম্পূর্ণ আমার।

ট্রুডো আরো লেখেন, পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, মুখে কালো রঙ মেখে এভাবে সাজা একেবারেই উচিত নয়। কারণ, এই কালো মুখের সঙ্গে একটা ইতিহাস জড়িয়ে আছে। আমার এটা আগেই বোঝা উচিত ছিল।

বিতর্কের পর টুইটারে নিজের প্রোফাইলের ছবিও বদলে ফেলেছেন ট্রুডো। নতুন ছবিতে এক কৃষ্ণাঙ্গের সঙ্গে হাসিমুখে দেখা যাচ্ছে তাকে। প্রথম ছবিটি প্রকাশ্যে আসার পর ক্ষমা চেয়েছিলেন ট্রুডো। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আবারো ক্ষমা চাইতে হলো তাকে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, অক্টোবরেই ভোট। এমন সময় এই বিতর্ককে বিরোধীদের অস্ত্রে পরিণত হতে দিতে রাজি নন তিনি। যদিও, এর মধ্যেই আসরে নেমে পড়েছেন তারা।

কনজারভেটিভ পার্টির নেতা অ্যান্ড্রু শিয়ারের বক্তব্য, ট্রুডো যা করেছেন তা বর্ণবৈষম্য ছাড়া কিছুই নয়। শাসকের পদে থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন তিনি।

আগের ভোটে বিপুল জয় পেয়ে কানাডায় ক্ষমতায় আসা জাস্টিন ট্রুডো এবার ভোটের আগে একটু চাপে রয়েছেন। দুর্নীতি থেকে প্রশাসনিক ব্যর্থতা, অভিযোগের তালিকা দীর্ঘ। নতুন এই বিতর্ক তার সমস্যা বাড়ায় কিনা, সেটাই দেখার।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: