সর্বশেষ আপডেট : ২৭ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দেবের সব ছবিতে আমাকে নিতেই হবে এটা ভুল: রুক্মিণী

নিউজ ডেস্ক:: মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে দেব এন্টারটেনমেন্ট প্রযোজিত ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিটি। ডার্ক ওয়েব নিয়ে তৈরি এই ছবিতে প্রযোজনার পাশাপাশি অভিনয় করেছেন দেব। এছাড়াও এখানে রয়েছেন পাওলি দাম, রুক্মিণী মৈত্র, পরমব্রত ও অদৃত। ছবিটি পরিচালনা করেছেন কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়।

আসছে পূজোয় মুক্তিপাচ্ছে ছবিটি। ছবির টিম ও কলাকুশলী সবাই এখন প্রচারণা নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছেন। ছবিতে নিশা চরিত্রে অভিনয় করেছেন রুক্মিণী মৈত্র। বেশ চ্যালেঞ্জিং একটা চরিত্রে এবার নিজেকে দর্শকদের সামনে হাজির হতে যাচ্ছেন এই নায়িকা।

ছবিতে স্টান্টের বিভিন্ন দৃশ্যে নিজেই করেছেন। রুক্মিণীর ভাষ্য, আমি সাইকেলই চালাতে পারতাম না সেখানে এই ছবিতে আমাকে বাইক স্টান্ট করতে হয়েছে। আমি নিজেই সেটা করেছি। আমি যখন ‘কিডন্যাপ’-এর শুটিং করছিলাম তখন সাইকেল চালানো শিখি। এরপর স্কুটি এবং তারপর বাইক। সেগুলো আয়ত্তে থাকার কারণেই নিজে স্টান্ট করতে পেরেছি।

এটা যদি করতেই না পারলাম তাহলে ছবিতে কাজটা কি করলাম? শুধু নাচ আর গান করলেই কি সব হয়ে যায়? হয় না। ‘পাসওয়ার্ড’-এ আমি যে চরিত্র করেছি সেটা গত দশ বছরে কমার্শিয়াল ছবিতে কোনও হিরোইন করেছে বলে আমার অন্তত মনে হয় না।

চরিত্র নিয়ে তিনি বলেন, ‘পাসওয়ার্ড’-এ আমার চরিত্রের নাম নিশা চ্যাটার্জি। ফিজিক্যালিও যদি বলি তাহলে এটা আমার জন্য খুবই চ্যালেঞ্জিং একটা চরিত্র। কোনও হিরোর থেকে কম নয়। আমার আগের চরিত্রগুলো থেকে একদম আলাদা। বাংলা ছবিতে এরকম হিরোইন চরিত্র আগে দেখা যায়নি।

ছবিটাই একদম আলাদা, একেবারে আজকের জীবন নিয়ে ঘটনা। ‘পাসওয়ার্ড’-এর ট্যাগলাইন হচ্ছে ‘ইউ আর বিং ওয়াচড’, এটা আসলেই সত্যি। আমরা সবাই সাইবার ক্রাইমের শিকার।

চোরকে চোখে দেখিনি বলে হয়তো বিশ্বাস করি না। বাংলায় এত বড় মাপের সাইবার ক্রাইম থ্রিলার এই প্রথম। এই ছবিটির মাধ্যমে আমরা বাংলা ছবিকে আন্তর্জাতিক স্তরে নিয়ে যেতে চাই।

চলচ্চিত্রে ক্যারিয়ার দুই বছরের। কাজ করেছেন চারটি চলচ্চিত্রে। চারটি ছবিতেই নায়ক হিসেবে রয়েছেন দেব। দেবের প্রডাকশন ছাড়া বা দেব ছাড়া কি রুক্মিণী ছবি করবেন না?

এমন প্রশ্নে তিনি জানান, দেবের প্রডাকশন ছাড়াও রুক্মিণী কাজ করেছে। ‘কিডন্যাপ’ ছবিটি কিন্তু দেবের প্রোডাকশনের নয়, রানের প্রডাকশনে। দেবের সব ছবিতে রুক্মিণীকে নিতেই হবে এটা ভুল। তার প্রমাণ হচ্ছে ‘হইচই আনলিমিটেড’ ছবিটি।

দেব ‘সাঁঝবাতি’ ছবিও করছে। সেখানে তো আমি নেই। তার মানে কথাটা ঠিক নয়। ভাল চিত্রনাট্য পেলে অন্য প্রডাকশন, অন্য নায়কের সঙ্গে আমি অবশ্যই কাজ করব। এটা নিয়ে আমার কোন আপত্তি নেই।

জিতের প্রোডাকশন থেকেও দুটো ছবির প্রস্তাব পেয়ছিলাম কিন্তু শিডিউল মিলাতে পারিনি বলে করা হয়নি। কিন্তু সেটা জিত নিজেও জানে। কিন্তু অনেকে আমাকে আর দেবকে বাদ দিয়ে কাজ করার কথাও ভাবেন।

আমার কাছে মনে হয়, আমার চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার মাত্র দুই বছর হলো। এখনও তো অনেক সময় বাকি। নাকি সব কাজ এক বছরের মধ্যেই করে ফেলতে হবে, এমন তো না। সময়ের সাথে সাথে সবকিছুই হবে।

আমিও চাই অন্য নায়কদের সাথে কাজ করতে। আমার নিজেকে আরও অনেক ভাঙতে হবে। যেমন আগের চরিত্র গুলো থেকে ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিতে আমার চরিত্রটা একদমই আলাদা আগেই বলেছি। এখানে আমার পার্টনার নিয়ে অনেক টুইস্ট রয়েছে যেটা পর্দায় দেখলে দর্শকরা বুঝতে পারবে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ‘চ্যাম্প’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে রুপালি পর্দায় অভিষেক ঘটে রুক্মিণী মৈত্রের। মাত্র ১৩ বছর বয়সেই মডেলিং -এর সঙ্গে যুক্ত হন তিনি। কাজ করেছেন বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- রিলায়েন্স, লাকমে, ভোডাফোন, সানসিল্ক, প্যারাসুট, টাইটান, টাটা টি, রাডো, ফেমিনা, রয়াল স্টাগ, পিসি চন্দ্র জুয়েলার্স ,ভিমা জুয়েলার্স, আজভা, সেনকো গোল্ড, আইটিসি, বিগ বাজার এফবি, লাক্স, ইমামি ইত্যাদি।

এখন পর্যন্ত চ্যাম্প, ককপিট, কবীর ও কিডন্যাপ ছবিতে কাজ করেছেন রুক্মিণী। ‘পাসওয়ার্ড’ হচ্ছে তার পঞ্চম ছবি।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: