সর্বশেষ আপডেট : ২৮ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পরকীয়া প্রেমিক নাতির পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন দাদি!

নিউজ ডেস্ক:: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় অবিবাহিত নাতি মানিকের (২৭) সাথে পরকিয়া প্রেমে মত্ত দাদি প্রবাসির স্ত্রী দু’সন্তানের জননী স্ত্রী শখের বানু (৩০) নাতির বিয়ের খবরে ক্ষুব্ধ হয়ে রাতে নিজের শয়ন কক্ষে ডেকে নিয়ে পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামে। রাতেই গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় নাতি মানিককে আলমডাঙ্গা শেফা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। কর্তিত পুরুষাঙ্গে ৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। মানিক পাইকপাড়া গ্রামের আলমঙ্গীর আলীর ছেলে।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের সাজ্জাদ আলী দু’সন্তানসহ স্ত্রী শখের বানুকে রেখে ১১ মাস আগে বিদেশে পাড়ি জমায়। এই সুযোগে স্ত্রী শখের বানু নাতি সম্পর্কের প্রতিবেশি যুবক মানিকের সাথে পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে।

তারপর থেকে নাতি মানিক ও দাদি শখের বানু শারীরিক সম্পর্ক লিপ্ত হয়। এরই মাঝে দিন কয়েক আগে প্রেমিক নাতি মানিকের মতামতের ভিত্তিতে পারিবারিকভাবে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক হয়েছে। এতে ক্ষিপ্ত হয় অবৈধ প্রেমে লিপ্ত দু’সন্তানের জননী স্ত্রী শখের বানু।

নিজের রাগ-ক্ষোভ প্রকাশ না করে দাদি পরকিয়া প্রেমিক নাতি মানিককে আমন্ত্রণ জানান তার শয়ন কক্ষে। দাদির আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে সোমবার দিনগত রাত ১১ দিকে প্রেমিক নাতি উপস্থিত হয় শয়ক কক্ষে। দাদি পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রেমিক নাতিকে উত্তেজিত করে লুকিয়ে রাখা ব্লেড দিয়ে তার পুরুষাঙ্গে পোস মারেন। এতে গুরুতর রক্তাক্ত জখম হন প্রেমিক নাতি। তার অবস্থা বেগতিক হলে নাক-লজ্জ্বার মাথা খেয়ে চিকিৎসার জন্য আলমডাঙ্গার শেফা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।

ক্লিনিকসূত্রে জানা যায়, মানিকের কর্তিত পুরুষাঙ্গে মোট আটটি সেলাই দিতে হয়েছে। বর্তমানে সে ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছে।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: