সর্বশেষ আপডেট : ২২ মিনিট ৫১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

গত ২৪/০৮/২০১৯(ইং) তারিখের banglanewsnetwork.net নামক হোল্ডিং নাম্বার ছাড়া ইন্দিরা রোড, চতুর্থ তলা ফার্মগেট ঢাকা ১২১৫ ভূয়া ঠিকানার এক অনলাইন পত্রিকায় “কুলাউড়ার কালিটি চা-বাগানে শ্রমিক অসন্তোষ সৃষ্টির পায়তারার অভিযোগ” শিরোনামে বিশেষ প্রতিনিধির বরাতে প্রকাশিত সংবাদে আমরা স্তম্ভিত এবং ক্ষুব্ধ।
এই বিশেষ প্রতিনিধি তার রিপোর্টে সাংবাদিকতার সকল নীতি-নৈতিকতাকে পদদলিত করে- কালিটি চা-বাগানের রেশনের আটা ‘আদতেই মেয়াদোত্তীর্ণ ছিলো না’, -এই মর্মে যে প্রমাণ হাজির করার চেষ্টা করেছেন বা সেই চেষ্টা করতে গিয়ে ‘শাক্ দিয়ে মাছ ঢাকা’র যে প্রগল্ভতা প্রদর্শন করেছেন তা ছিলো নিতান্তই নীচু মানের, প্রত্যক্ষত মালিকের মোসাহেবির নমুনা এবং পদ্ধতিগতভাবে প্রাগ্-ঐতিহাসিক। মেয়াদোত্তীর্ণতার যে বিষয়টি নিয়ে জাতীয় ও স্থানীয় পত্র-পত্রিকায় অভিযোগ যখন উঠেইছে তখন বাগান কর্তৃপক্ষের বা স্থানীয় প্রশাসন বা বাংলাদেশ চা-কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষের উচিত ছিলো বিশেষজ্ঞদের দ্বারা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে একটা বস্তুনিষ্ঠ রিপোর্ট বা শ্বেতপত্র প্রকাশ করা। কিন্তু তা না করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ধামাচাপা দিতে বিষয়টিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার এই রিপোর্ট নামক বিভ্রান্তিকর কুৎসামূলক ও মানহানিকর পন্থা অবলম্বন করেছেন।
সারাদেশে বিগত একদশকেরও অধিক সময়-কাল ধরে সাম্রাজ্যবাদ -সম্প্রসারণবাদ ও আমলা-মুৎসুদ্দি পুঁজিবাদ বিরোধী গণসাংস্কৃতিক আন্দোলন গড়ে তুলতে ক্রিয়াশীল সাংস্কৃতিক গণসংগঠন “গণমুক্তির গানের দল”কে মিথ্যা-বানোয়াট-বিভ্রান্তিকর ‘নিষিদ্ধে’র অভিযোগে অভিযুক্ত করে সামাজিক গণমাধ্যমে প্রচার করা, এবং গণমুক্তির গানের দলের কুলাউড়া শাখার নেতৃবৃন্দকে ষড়যন্ত্রকারী, পায়তারাবাজ, উসকানিদাতা, এমনকি ক্রিমিনাল হিসাবে চিহ্নিত করার অপচেষ্টাকে আমরা সাংবাদিকতার নামে এক লজ্জাকর ও কলঙ্কলেপনমূলক ঊদ্ধ্যত গণবৈরী আস্ফালন মনেকরি। আমরা মনেকরি সাংবাদিকতার লেবাস গায়ে চড়িয়ে সারাদেশের সাংবাদিকসমাজ ও গণমাধ্যমকে যোগসাযোশকারী ও অসৎ উদ্দেশ্যবাদী বলার মধ্যদিয়ে সমগ্র সংবাদমাধ্যম ও সাংবাদিকসমাজকে অপমান ও হেয় প্রতিপন্ন করা হয়েছে। ঢাকা থেকে অস্ত্রসহ আটকের যে গল্প এখানে ‘একজন শ্রমিকে’র দোহাইয়ে উল্লেখ করা হয়েছে তা যে ডাহা মিথ্যা ও হয়রানিমূলক ছিলো এ কথা নিষ্কলুষভাবে আদালত কর্তৃক প্রমাণিত হওয়ায় তিনি বেকসুর খালাস পেয়েছেন। ঐ ঘটনা যে বাগান শ্রমিক “লালন হত্যাকা-”কে এই রিপোর্টের মতোই ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে মালিকশ্রেণীর ষড়যন্ত্র ছিলো সে ব্যাপারে জ্ঞাত মহলের সম্ভবত কারও কোনো দ্বিধা নেই। দেশের প্রচলিত আদালতে প্রশ্নাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ার পরও উদ্দেশ্যমূলকভাবে সাংবাদিকতার লেবাসে রিপোর্টে এর ঊল্লেখ রীতিমতো আদালত অবমাননার সামিল বলেই আমরা মনেকরি। আমরা আরও মনেকরি এ রিপোর্ট একজন ব্যক্তির সামাজিক মর্যাদায় নখরাঘাত।
জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি যে, এই অনলাইন প্রতিবেদনের খবর বিলম্বে স্থানীয় শাখার মাধ্যমে জানার ফলে যাচাই পূর্বক এই“প্রতিবাদ বিবৃতি” পাঠানোয় অনিচ্ছাকৃত বিলম্বের জন্য আমরা দুঃখিত। একই সাথে এই প্রতিবেদনকে আমরা সম্পূর্ণ প্রত্যাখ্যান করছি, এর তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে এই সংবাদমাধ্যমের শুভবুদ্ধির পরিচায়ক হিসাবে আমাদের সম্পূর্ণ বিবৃতিটি প্রকাশ করা ও আত্মসমালোচনার আহ্বান জানাচ্ছি।

ফারহানা হক শামা
সাধারণ সম্পাদক, কেন্দ্রীয় কমিটি,গণমুক্তির গানের দল



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: