সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

একই সময়ে দুই কলেজে চাকরি করছেন এমপিওভুক্ত শিক্ষক!

নিউজ ডেস্ক:: একজন এমপিওভুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুইটি প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। খয়ের আহমদ নামের ওই শিক্ষক সিলেটের উত্তর বিশ্বনাথ আমজদ উল্লাহ ডিগ্রি কলেজে হিসাববিজ্ঞানের এমপিওভুক্ত প্রভাষক। একইসাথে তিনি সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার নূরজাহান মেমোরিয়াল মহিলা ডিগ্রি কলেজে শিক্ষকতা করেন।

বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন নূরজাহান মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিন তরফদার। যদিও একই সাথে দুই প্রতিষ্ঠানে চাকরি করার বিষয়ে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রভাষক খয়ের আহমদ ২০১০ সালে থেকে উত্তর বিশ্বনাথ আমজদ উল্লাহ ডিগ্রি কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। এ প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত শিক্ষক তিনি। অপরদিকে নূরজাহান মেমোরিয়াল মহিলা ডিগ্রি কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিষয়ের নন-এমপিও প্রভাষক হিসেবেও কর্মরত। ২০০৪ সালে ৩০ নভেম্বর নূরজাহান মেমোরিয়াল মহিলা ডিগ্রি কলেজে নিয়োগ পান প্রভাষক খয়ের আহমদ।

এদিকে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও নীতিমালার ১৩ নম্বর অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, বেতন ভাতাদির সরকারি অংশ প্রাপ্তির জন্য শিক্ষক-কর্মচারিরা একই সাথে একাধিক চাকরিতে বা আর্থিকভাবে লাভজনক কোন পদে নিয়োজিত থাকতে পারেন না। অথচ, সরকারি বিধিবিধান উপেক্ষা করেই আর্থিক সুবিধা লাভের আশায় দুইটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করছেন প্রভাষক খয়ের আহমদ।

স্থানীয় কয়েকটি বিশস্ত সূত্র বলছে, নূরজাহান মেমোরিয়াল মহিলা ডিগ্রি কলেজে এমপিওভুক্ত না হলেও কলেজের নিজস্ব ফান্ড থেকে বেতনভাতা নিচ্ছেন এ শিক্ষক। আগামীতে তিনি নূরজাহান মেমোরিয়াল মহিলা ডিগ্রি কলেজ থেকে এমপিওভুক্ত হবারও পরিকল্পনা করছেন জানা যায়। এমপিওভুক্ত হতে পারলে তিনি প্রায় ১৫ বছরের বকেয়া এমপিও পাওয়ার চেষ্টা করবেন বলে জানা যায়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রভাষক খয়ের আহমদ প্রতি রোববার ও বুধবার নূরজাহান মেমোরিয়াল মহিলা ডিগ্রি কলেজে ক্লাস নেন। এই দুইদিন উত্তর বিশ্বনাথ আমজদ উল্লাহ ডিগ্রি কলেজে অনুপস্থিত থাকেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত প্রভাষক খয়ের আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, অভিযোগটি সঠিক নয়। আমি দুই প্রতিষ্ঠানে চাকরি করি না। আগে ওই প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতাম। কিন্তু এখন যাই না। তবে, কবে পদত্যাগ করেছেন প্রশ্নটি একাধিকবার করা হলেও এর কোনো উত্তর দেননি তিনি।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: