সর্বশেষ আপডেট : ৮ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে কেয়ারটেকার তারেক হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানা ও আদাতে মামলা, ধরাছোঁয়ার বাইরে আসামীরা

ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকের গো‌বিন্দগ‌ঞ্জ এলাকাস্থ এক‌টি বা‌ড়ির কেয়ারটেকার তারেক আহমদ হত্যাকান্ডের ঘটনায় আদাতে এক‌টি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে । গত ২০আগষ্ট ২০১৯ইং মঙ্গলবার সুনগঞ্জের আমল গ্রহনকারী জু‌ডি‌সিয়াল ম্যাজিস্ট্র‌েট (ছাতক) আদালতে ৬ জনকে আসামী করে, নিহত তারেকের পিতা মুজিবুর রহমান বাদী হয়ে (সি,আর) মামলা (নং-২৩৭/১৯) দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন, উপজেলার বানার‌সিপুর গ্রামের মব‌শ্বির আলীর পুত্র জামাল উ‌দ্দিন (৪০), তার মেয়ে মমতাজ বেগম (৩০), একই গ্রামের কোয়াজ আলীর পুত্র সুজন মিয়া (৩৪), মৃত সুরুজ আলীর পুত্র  শুকুর আলী (৩৮), তাজপুর গ্রামের মাসুক মিয়ার পুত্র হা‌বিবুর রহমান (২৮) ও রাউ‌লী গ্রামের ম‌নির উদ্দিনের মেয়ে ফাতেহা বেগম(২৫)।
ঘটনার প্রায় ৩ সপ্তাহ অতিবাহিত হলেও এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তারেক আমদের হত্যাকারীরা এখনো ধরা ছোঁয়ার বাইরে রয়েছে। এদিকে, আলোচিত এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িতরা গ্রেফতার না হওয়ায় তারেকের পরিবারের মধ্যে বিরাজ করছে হতাশা। নিহতের পিতা মুজিবুর রহমানের দাবী পরিকল্পিত ও নির্মমভাবে তার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। খুনীরা অর্থ-বিত্তশালী হওয়ার কারনে তারা থেকে যাচ্ছে ধরাছোঁয়ার বাইরে।
উল্ল্য‌েখ্য গত ২৭ জুলাই গোবিন্দগঞ্জ এলাকায় এক‌টি বা‌ড়ির কেয়ার‌ টেকারের দা‌য়িত্বে থাকা অবস্থায় নিখোঁজ হয় তারেক আহমদ। পরে ২৮ জুলাই নিখোঁজ তারেকের পিতা মুজিবুর রহমান ছাতক থানায় একটি জিডি এ‌ন্টি (নং- ১২৫৯) করেন। নিখোঁজের ১০দিন পর ৫ আগষ্ট সন্ধ্যায় উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের সুহিতপুর গ্রামের হাওর থেকে তারেক আহমদের কংকালসার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। লাশের পাশে থাকা একটি কালো রংয়ের শার্ট দেখে তারেকের বাবা এটা তার ছেলের লাশ বলে শনাক্ত করেন। পরে ৬আগষ্ট ১৯ইং তারিখে তারেকের পিতা মুজিবুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামা ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধ‌ে ছাতক থানায় নিয়মিত (মামলা-নং ৭) দায়ের করেন। এ মামলার এজাহারের শেষের দিকে মুজিবুর রহমান তার ছেলে নিহত তারেক হত্যার ঘটনায় বানার‌সিপুর গ্রমের মব‌শ্বির আলীর পুত্র জামাল উ‌দ্দিন  জড়িত থাকতে পারেন বলে উল্ল্যেখ্য করেন।
নিহত তারেক আহমদ দক্ষিন সুনামগঞ্জ উপজেলার ডিগারকান্দি গ্রামের মুজিবুর রহমানের পুত্র। সে ছৈলা-আফজলাবাদ ইউনিয়নের বানারশিপুর গ্রামের মবশ্বির আলীর পুত্র জামাল উদ্দিন মালিকানাধিন গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্ট সংলগ্ন সুহিতপুর গ্রামের সালাম ব্রাদার্স নামীয় একটি বহুতল বাড়ির কেয়ার টেকার হিসেবে কাজ কেরে আসছিল।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: