সর্বশেষ আপডেট : ১৫ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

যে কারণে টাইগারদের কোচ হিসেবে ডোমিঙ্গোকেই বেছে নেয়া হল

Russell Domingo South African Coach during the 2013 Proteas series agains Pakistan squad announcement at Wanderers Stadium, Johannesburg on 10 September 2013 ©Allan James Lipp/BackpagePix

স্পোর্টস ডেস্ক:: বাংলাদেশের ক্রিকেট ভক্তদের চোখ পড়েছিল চন্ডিকা হাথুরুসিংহের দিকে কিন্তু বিসিবির চোখ কার দিকে ছিলো? এই প্রশ্নের উত্তর মিলল আজ শনিবার। মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বাংলাদেশর প্রধান কোচ হিসেবে রাসেল ডমিঙ্গোর নাম ঘোষণা করেন।

দুই বছরের চুক্তিতে টাইগারদের প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ পেলেন রাসেল ডমিঙ্গো। এর আগে রাসেল ডোমিঙ্গো ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক কোচ। ২০১৩ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত প্রোটিয়াদের কোচের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

বাংলাদেশের কোচ হওয়ার দৌড়ে শুধু ডোমিঙ্গোই নন, ছিলেন আরো কয়েকজন। তবে জোরালোভাবে ছিলেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসন। তাকে পাওয়ার চেষ্টা করেছিল বিসিবি। যদিও হেসন ভারতের কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করেছিল এবং গতকালই নিশ্চিত হওয়া গেছে, হেসকে ভারত কোচ হিসেবে নিয়োগ দিচ্ছে না। রবি শাস্ত্রিকেই তারা বহাল রেখেছে।

হেসন যখন ভারতের কোচ হলেন না, তখন বিসিবি তার ইন্টারভিউর অপেক্ষায় ছিল। অবশেষে হেসনের ইন্টারভিউও নেয়া হলো ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে। আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কোচের দায়িত্ব পালন করা হেসনের সঙ্গে কথা বলার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়াটা খুব সহজ হয়ে যায় বিসিবির জন্য।

সবার আগে রাসেল ডোমিঙ্গো এবং সর্বশেষ মাইক হেসন। মাঝে শ্রীলঙ্কার মাহেলা জয়াবর্ধনে, সদ্য পাকিস্তানের কোচ থেকে বরখাস্ত হওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার মিকি আর্থার, জিম্বাবুয়ের গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ার- এদের ইন্টারভিউ নিয়েছিল বিসিবি। তবে উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো, শুধু রাসেল ডোমিঙ্গোই স্বশরীরে ঢাকায় এসে ইন্টারভিউ দিয়েছেন। বাকিদের সবার সঙ্গে ভিডিও এবং টেলি কনফারেন্সে কথা বলেছে বিসিবি।

শেষ পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকান রাসেল ডোমিঙ্গোকেই বেছে নিলো বিসিবি। আজ দুপুরে বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে জানিয়ে দিলেন, আগামী দুই বছরের জন্য সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান এই কোচকেই বেছে নেয়া হয়েছে সাকিব-তামিমদের জন্য।

গত ৭ আগস্ট হঠাৎ ঢাকায় এসে কোচের ইন্টারভিউ দিয়ে গিয়েছিলেন ডোমিঙ্গো। এরপর ১০ দিন পার হয়ে গেছে। অবশেষে আজ ঘোষণা করা হলো তার নাম। কেন ১০ দিন পর এসে সেই ডোমিঙ্গোকেই বেছে নেয়া হলো? প্রশ্ন জাগাটা স্বাভাবিক।

ডোমিঙ্গোর সাক্ষাৎকার নেয়ার পর বিসিবি জানিয়েছিল, তারা আরও দু’জনের ইন্টারভিউ নেবে। সেই দু’জনের একজন অস্ট্রেলিয়ার এবং অন্যজন নিউজিল্যান্ডের। অস্ট্রেলিয়ার জন কে, সেটা শেষ পর্যন্ত জানা যায়নি। তবে নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসনের জন্যই অপেক্ষা করেছিল এতদিন বিসিবি।

মাঝে ঈদুল আজহার ছুটির কারণে কয়েকটা দিন কেটে গেছে। এরই মাঝে মাহেলা জয়াবর্ধনে, মিকি আর্থার এবং গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ারেরও সাক্ষাৎকার নিলো বিসিবি। অর্থাৎ শুধু ডোমিঙ্গো আর হেসনই নন, আরও তিনজনকে যাচাই করেছিল বিসিবি। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের বোর্ড কর্মকর্তাদের কাছে সবচেয়ে ভালো মনে হলো ডোমিঙ্গোকেই এবং তার নামই ঘোষণা করা হলো।

কেন ডোমিঙ্গোকে বেছে নিলো বিসিবি? এর বড় কারণ হচ্ছে, বেতন-ভাতা। জানা গেছে, নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ মাইক হেসন বিসিবির কাছে পারিশ্রমিক চেয়েছেন ৫৭ হাজার ডলার। যেটা সত্যিই খুব বেশি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ৫০ লাখ টাকা। অন্যদিকে ডোমিঙ্গোকে পাওয়া গেছে তারও প্রায় অর্ধেক টাকায়। অর্থাৎ ৩০ হাজার ডলারেরও কমে। ২৫ থেকে ২৭ হাজার ডলারের মধ্যে।

শুধু টাকার বিষয়টিই মুখ্য নয়। অন্যদের তুলনায় রাসেল ডোমিঙ্গোর সাক্ষাৎকার এবং প্রেজেন্টেশন নিয়ে সন্তুষ্ট বিসিবি। ডোমিঙ্গোই শুধু ঢাকা এসে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। দল নিয়ে তার পরিকল্পনা জানিয়েছেন। তিনি কীভাবে কাজ করবেন, তার প্রেজেন্টেশনও দিয়ে গেছেন খুব সুন্দরভাবে।

সে তুলনায় মাইক হেসনরা নিজেদের প্রেজেন্টেশনটা ভালোভাবে দিতে পারেননি। এমনকি রাসেল ডোমিঙ্গো যেখানে টাইগারদের সঙ্গে বছরের অধিকাংশ সময়ই কাটানোর কথা বলেছেন, সেখানে মাইক হেসনরা নাকি বছরের অধিকাংশ সময়ই টাইগারদের সঙ্গে থাকতে পারবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন।

মূলত বিসিবি চেয়েছিল যে কোচকে বছরের অধিকাংশ সময়ই কাছে পাওয়া যাবে, যিনি সিরিজ না থাকাকালীন সময়েও ক্রিকেটারদের পেছনে সময় দেবেন, ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়মিত ফলো করবেন, তাকেই সাকিব-তামিমদের জন্য নিয়োগ দেবেন। রাসেল ডোমিঙ্গোর কাছেই এ বিষয়গুলো পুরোপুরি পেয়েছিল বিসিবি এবং এ কারণেই শেষ পর্যন্ত তাকেই টাইগারদের কোচ হিসেবে বেছে নেয়া হলো।

ডোমিঙ্গোকে কোচ নিয়োগ দেয়া নিয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘তিনি হচ্ছেন অনেক অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন কোচ। কোচিংয়ের প্রতি তার আগ্রহ এবং তার কোচিং দর্শন দেখে আমরা মুগ্ধ হয়েছি। একটি দলকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে কি কি প্রয়োজন- এসব সম্পর্কে তার পরিস্কার ধারণা রয়েছে।’

তবে সবচেয়ে বেশি যেটাকে তারা গুরুত্বে দিয়েছেন, সেটা হচ্ছে দলকে বেশি সময় দেয়া। বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আমরা দেখেছি বছরে কে সবচেয়ে বেশি সময় ধরে আমাদের সার্ভিস দিতে পারবে।’



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: