সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘ধন্যবাদ দিতে’ বিজয়ীদের ছাড়া নাসায় সরকারি কর্তারা!

নিউজ ডেস্ক:: ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ-২০১৮’ প্রতিযোগিতায় বিশ্বের দুই হাজার ৭২৯টি দলের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে চ্যাম্পিয়ন হয় সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) টিম অলিক। তবে ভিসা জটিলতায় বিজয়ীদের রেখেই যুক্তরাষ্ট্রে চলে গেছেন তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ছয় কর্মকর্তা এবং বেসিসের দুইজনসহ মোট আট জন।

ফ্লোরিডায় নাসা কেনেডি স্পেস সেন্টারে ২১-২৩ জুলাই অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতায় প্রতিযোগীরা ছাড়া যাওয়ার উদ্দেশ্য কী? ঘুরে ফিরে একটাই উত্তর পাওয়া গেছে- ‘ধন্যবাদ দিতে’ বিজয়ীদের ছাড়া নাসায় গেছেন সরকারি কর্তারা। আইসিটি মন্ত্রণালয়ের একজন উপসচিব নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আসলে বর-কনে ছাড়া বরযাত্রী সেখানে গিয়ে কী করবে? তাদের সেখানে মোটেই কোনো কাজ নেই। তবু নিয়ম রক্ষার জন্য যাওয়া।

বিজয়ী টিম অলিকও এ বিষয়টি স্পষ্ট করেছে। তারা বিজয়ী হলেও নিজ খরচেই যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ছিল। পরে মন্ত্রণালয়ের কয়েকজন কর্তা ধন্যবাদ জানাতে তাদের সঙ্গে যাবেন এমন শর্তে চারজনের খরচের বিষয়ে প্রস্তাবনা দেয়।

এ বিষয়ে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে টিম অলিক লিখেছে, ‘আইসিটি মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের জানানো হয়, আইসিটি ডিভিশন আমাদের সকল খরচ বহন করবে এবং সেইসঙ্গে নাসাকে ধন্যবাদ দেয়ার জন্য কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তা আমাদের সঙ্গে যুক্ত হবেন। তারা আরও জানান, আমাদের মেন্টরের খরচ তারা বহন করবেন না।’

ধন্যবাদ জ্ঞাপন ছাড়া সরকারি কর্মকর্তাদের এই প্রতিযোগিতায় যাওয়ার আর কোনো কারণ আছে কিনা সে ব্যাপারে স্পষ্ট উত্তর দিতে পারেননি তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি সেক্রেটারি রাজা মো. আবদুল হাই, যিনি এই বিদেশ ভ্রমণের প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছিলেন।

ভিসা জটিলতায় প্রতিযোগীরা যাচ্ছেন না, তা হলে কি মন্ত্রণালয়ের যে কয়েকজন যাবেন তারা সরকারি খরচে ঘুরতে যাচ্ছেন? উত্তরে তিনি বলেন, ‘নিশ্চয়ই তারা সেখানে কাজেই যাবেন, যেটির জন্য নাসা ডেকেছিল। তারা এখান থেকে অনেক কিছু শিখবেন।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও এই নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। ফেসবুক সেলিব্রেটি আরিফ আর হোসেন এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, নাসার কেনেডি স্পেস সেন্টারে প্রতিযোগিতায় শাহজালাল ইউনিভার্সিটির আসল প্রতিযোগীদের না নিয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়য়ের ৮ সদস্যদল চলে গেছে সুটকেস নিয়ে। ফ্লোরিডার এয়ারপোর্টে নামার পর ইমিগ্রেশনে তাদের জিজ্ঞেস করা হলো, “আসল লোক না এসে আপনারা কেন?” ৮ জনই হাসি হাসি মুখ করে উত্তর দিলেন, ‘আমরা নাসাকে ধন্যবাদ দিতে এসেছি’। আমেরিকার ইমিগ্রেশন অফিসার এরকম হাম্বল জাতি দেখতে পেয়ে অবাক…। তাও আবার একসাথে লাইন করে দাঁড়ানো ৮টা। নাসার উচিত হবে এদের ফেরত না দিয়ে আঁটকে রেখে এদের প্রত্যেকের ব্রেইন ল্যাবে নিয়ে টেস্ট করা। তাহলেই এরা বুঝবে, কোটি কোটি ডলার খরচ করে আজব প্রাণী খুঁজতে গ্রহে উপগ্রহে যাওয়া লাগে না। সাউথ ইষ্ট এশিয়ার এই ছোট্ট দেশটার দিকে নজর দিলেই হবে।

জানা গেছে, শুরু হতে যাওয়া একটি প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের চার প্রতিযোগীর। তাদের সঙ্গে সহযোগী হিসেবে যাওয়ার কথা ছিল তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ছয় কর্মকর্তা, বেসিসের পাঁচজনসহ মোট ১৬ জনের।

নাসার এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় থেকে প্রাথমিক জনপ্রতি দুই লাখ ৭৭ হাজার টাকা করে বাজেট দেয়া হয়। অগ্রিম এয়ার টিকিট, হোটেল ভাড়া করা হয়। কিন্তু ভিসা জটিলতায় ‘মূল আকর্ষণ’ প্রতিযোগী চারজন যেতে না পারলেও আইসিটি মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি সেক্রেটারি সালমা সিদ্দিকা মাহাতাব, মো. আবুল খায়ের, মো. দিদারুল আলম, হাইটেক পার্কের ডেপুটি সেক্রেটারি মো. আবদুল হাই, আইডিয়া প্রোজেক্টের কাজী হোসনা আরা ও আইসিটি ডিভিশনের প্রতিমন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা একরামুল হক এবং বেসিসের পরিচালক ও নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের আহ্বায়ক দিদারুল আলম সানি এবং বেসিসের সাবেক পরিচালক ও নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের সহ আহ্বায়ক আরিফুল হাসান অপু (সানি ও অপু আগে থেকেই ব্যক্তিগত উদ্যোগে ভিসা নিয়েছিলেন) এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন।

এদিকে বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বেসিস জানিয়েছে, ‘২২ জুলাই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নাসার অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছে টিম অলিক। উক্ত অনুষ্ঠানে নিজেদের প্রকল্প ভিডিও প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে তুলে ধরে টিম অলিক। পাশাপাশি অংশ নেয় অন্য ক্যাটাগরির বিজয়ীদল ফিলিপিন, কানাডা, স্পেন, অস্ট্রেলিয়া এবং আর্জেন্টিনা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নাসার আর্থ সায়েন্স ডিভিশনের ব্যবস্থাপক ড. সোবহানা এস গুপ্তা, এমডি, পিএইচডি, ক্যালি বার্ক, অ্যারো স্পেইস ইঞ্জিনিয়ার, নাসা; অ্যান্ড্রু ডেনিও, ইনফরমেশন টেকনোলজি স্পেশালিষ্ট, নাসা।’

বিজ্ঞপ্তিতে নাম উল্লেখ না করে বলা হয়েছে, ‘এসময় নাসার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা বলেন, টিম অলিক আসতে না পারায় তাঁরা খুবই ব্যথিত এবং যেহেতু টিম অলিক এ বছর আসতে পারেনি সেহেতু নাসা থেকে টিম অলিক-কে আগামী বছরের বিজয়ী দলগুলোর সাথে আরও একবার সংবর্ধনা দেওয়া হবে।’




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: