সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ১ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জীবীত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে বিধবা ভাতা নিচ্ছেন নারী কাউন্সিলর

নিউজ ডেস্ক:: সচ্ছল ও স্বামী থাকারও সত্ত্বেও বিধবা ভাতা তোলেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে নাটোরের বনপাড়া পৌরসভার সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর শরিফুন্নেসা শিরিনের (৪০) বিরুদ্ধে। গত পাঁচ বছর ধরে তিনি বিধবা ভাতা উত্তোলন করেছেন। উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রবিউল করিম অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার (১৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুরাইয়া আক্তার কলি এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলর শরিফুন্নেসা শিরিন সচ্ছল ও সধবা হওয়ার সত্ত্বেও গত পাঁচ বছর ধরে বিধবা ভাতা ভোগ করছেন। পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কালিকাপুর গ্রামের ভাতাভোগী তয়জান বেগম মারা যাওয়ার পর নাম পরিবর্তন করে শরিফুন্নেসা শিরিন ২০১৪ সালের ১ জুলাই থেকে নিয়মিত ভাতা তুলেছেন। তার ভাতা বই নম্বর- ৭৫/১ এবং হিসাব নম্বর- ০০২১৩৩০৬২।

এসময় সভায় উপস্থিত স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস বিষয়টি খোঁজ নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া জন্য ইউএনও মো. আনোয়ার পারভেজকে নির্দেশ দেন।

এ বিষয়ে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রবিউল করিম বলেছেন, কার্ডটি আমি যোগদানের আগে ইস্যু করা হয়েছে। আমার জানা না থাকায় এমনটা হয়েছে। এখন থেকে তার নামে আর কোনো ভাতা বরাদ্দ দেওয়া হবে না।

সভায় বনপাড়া পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিলনা। অগোচরে এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। পৌরসভার পরবর্তী মাসিক সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে বড়াইগ্রাম উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আনোয়ার পারভেজ বলেছেন, ভাতার কার্ডটি বাতিলসহ তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য কাউন্সিলর শরিফুন্নেসা শিরিনের মোবাইলে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।





নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: