সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ৪২ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভারী বর্ষণে বিপর্যস্ত জনজীবন, ছাতকে ফের বন্যায় পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষ

ছাতক সংবাদদাতা:: ছাতকে ৪-৫ দিনের অবিরাম বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে ফের বন্যা দেখা দিয়েছে। সুরমা, চেলা ও পিয়াইন নদীর পানি বিপদসীমার ৮৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় গোবিন্দগঞ্জ-ছাতক সড়কের রহমতবাগ এলাকা ইতোমধ্যে তলিয়ে গেছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে দু’এক দিনের মধ্যে গোবিন্দগঞ্জ-ছাতক সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।

এছাড়া উপজেলা সদরের সাথে নি¤œাঞ্চলের প্রায় অর্ধশতাধিক গ্রামীণ সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে পড়েছে। ঢলের পানিতে এসব গ্রামীণ রাস্তাঘাট ভেঙ্গে কোটি কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি দেখা দিয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বন্যার পানি প্রবেশ করায় বিভিন্ন বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রাখা হয়েছে। ১৩টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এলাকার অধিকাংশ বাসা-বাড়ি ও রাস্তা-ঘাট বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। এছাড়া বন্যার পানিতে ভেসে গেছে শতাধিক ফিসারীর লক্ষ লক্ষ টাকার মাছ। তবে এখন পর্যন্ত পানিবন্দি মানুষের জন্য কোন আশ্রয় কেন্দ্র খোলা বা ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের খবর পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, গত ৪-৫ দিনের টানা বৃষ্টি এবং সুরমা, চেলা, আয়নাখালি, বটেরখাল ও ধলাই নদী দিয়ে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে উপজেলার সর্বত্র তলিয়ে গেছে। বিশেষ করে উত্তর খুরমা, দক্ষিণ খুরমা, ইসলামপুর, নোয়ারাই, চরমহল্লা, জাউয়াবাজার, দোলারবাজার, ছৈলা-আফজলাবাদ, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও, ভাতগাঁও, সিংচাপইড়, কালারুকা ও ছাতক সদর ইউনিয়নের প্রায় ৪শতাধিক গ্রাম-মহল্লার চলাচলের রাস্তা বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। ইসলামপুর ইউনিয়নের রতনপুর, নিজগাঁও, গাংপাড়, নোয়াকোট, বৈশাকান্দি, বাহাদুরপুর, ছৈদাবাদ, রহমতপুর, দারোগাখালী, পৌরসভার হাসপাতাল রোড, শাহজালাল আবাসিক এলাকা, কানাখালী রোড, শ্যামপাড়া, মোগলপাড়া তাতিকোনা, বৌলা, লেবারপাড়া নোয়ারাই ইউনিয়নের বারকাহন, বাতিরকান্দি, চরভাড়া, কাড়–লগাঁও, লক্ষীভাউর, চানপুর, মানিকপুর, গোদাবাড়ী, কচুদাইড়, রংপুর, ছাতক সদর ইউনিয়নের বড়বাড়ী, আন্ধারীগাঁও, মাছুখালী, তিররাই, মুক্তিরগাঁও, উত্তর খুরমা ইউনিয়নের আমেরতল, ঘাটপার, গদারমহল, রুক্কা, ছোটবিহাই, এলঙ্গি, রসুলপুর, শৌলা, চরমহল্লা ইউনিয়নের ভল্লপুর, চুনারুচর, চরচৌলাই, হাসারুচর, প্রথমাচর, সিদ্ধারচর, চরভাড়–কা, দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের হরিশ্বরণ, হাতধনালী, রাউতপুর, ধনপুর, চৌকা, রামচন্দ্রপুর, হলদিউরা, কাশিপুর, কালারুকা ইউনিয়নের রামপুর, মালিপুর, দিঘলবন, আরতানপুর, রংপুর, মুক্তিরগাঁও, ভাতগাঁও ইউনিয়নের জালিয়া, ঘাঘলাজুর, হায়দরপুর, বাদে ঝিগলী, সিংচাপইড় ইউনিয়নের গহরপুর, মহদী, মামদপুর, চিকনিকান্দি, সিরাজগঞ্জ বাজার, গোবিন্দগঞ্জ পুরান বাজারসহ বিভিন্ন এলাকার লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে।

এদিকে, জামুরা, চানপুর, নোয়াগাঁও, ভাসখলা, করচা, গোয়ালগাঁও, ১১০নং রাউলী, ৪৭নং আলমপুর, মোহনপুর, শ্যামনগর, কৃষ্ণনগর, আব্দুল জব্বার, কাটালপুর, বেরাজপুরসহ ৩০-৩৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করায় শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। বিভিন্ন বিদ্যালয়ের যাতায়াত সড়ক পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় রাস্তা-ঘাটের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। তাছাড়া অধিকাংশ এলাকায় আমন ধানের বীজতলা পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতির আশংকা করছেন কৃষকরা। এতে কৃষকরা অজানা আতংকে রয়েছেন। অপরদিকে, শতাধিক মৎস খামার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় অর্ধ কোটি টাকার ক্ষতির আশংকা করছেন মৎস খামারীরা।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মানিক চন্দ্র দাস জানান, বিদ্যালয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করায় এখন পর্যন্ত ১০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবেদা আফসারি জানান, বন্যার সার্বিক পরিস্থিতির সার্বক্ষনিক খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: