সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৭ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

লোহার নাটের পরিবর্তে বাঁশ দিয়েই চলছে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু রেলসেতু!

নিউজ ডেস্ক:: ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব মহাসড়ক হতে জয়দেবপুর পর্যন্ত রেল লাইনের বেশ কিছু সেতু ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। রেল সেতুতে দেখা গেছে, লোহার নাটের বদলে বাঁশের গোজ ও কাঠের কঁচি ব্যবহার করা হয়েছে।এ ছাড়াও সেতুর কাঠের তৈরি স্লিপার নষ্ট হয়ে গেছে। এতে ঝুঁকিতে রয়েছে রেল সেতুগুলো।

বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব মহাসড়ক সংলগ্ন রেল লাইনের টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার জোকারচর রেল সেতুতে সরেজমিনে দেখা যায়, রেল সেতুর সাথে রেল লাইনের আটকানো লোহার ক্লিপ বেশ কিছু স্থানে নেই।কিন্তু সেখানে লোহার নাট-বল্টু দিয়ে আটকানোর কথা থাকলেও সেখানে বাঁশের গোজ দিয়ে আটকানো হয়েছে। আবার বেশ কিছু স্থানে লোহার নাট পাওয়া যায়নি। সেতুর একপাশে লোহার পাতগুলো খুলে রয়েছে। শুধু জোকারচর নয় ওই রেল লাইনের বেশকিছু সেতুতে এমন চিত্র দেখা গেছে।

জয়দেবপুর রেলস্টেশন সূত্রে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব হতে জয়দেবপুর পর্যন্ত রেল লাইনে ১৩২টি ছোট-বড় সেতু রয়েছে যা ১৯৯৮ সালে নির্মাণ করা হয়। এরপর আর সেতুতে কোন সংস্কার কাজ হয়নি।

এর মধ্যে গত ২০১৭ সালে ২০ আগষ্ট টাঙ্গাইলের পুংলী রেলসেতুর এপ্রোস ধসে পড়ে। এতে অল্পের জন্য উত্তরবঙ্গ থেকে আসা ঢাকাগামী ট্রেন দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায়। এরপর ওই সেতুর সংস্কার করে পুনরায় রেল চলাচল শুরু করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি সেই পুংলী রেল সেতুর দুই পাশের এপ্রোস সংস্কার কাজ শুরু করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ সেতুর উপর রেল লাইনের ক্লিপগুলো খুলে রয়েছে। কিছু কিছু লোহার বল্টুর বদলে বাঁশ ও কাঠ দিয়ে নাট বানিয়ে ঠুকিয়ে দেয়া হয়েছে। সেতুর কাঠের স্লিপারের দুইপাশে লোহার পাত খুলে পড়ে রয়েছে। আবার কিছু অংশের পাত মাদকসেবীরা খুলে নিয়ে গেছে।

জয়দেবপুর হেড কোয়াটারের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী নাজিব কায়সার বলেন, রেল লাইনের টাঙ্গাইলের পুংলী ঝুঁকিপূর্ণ সেতুর সংস্কার কাজ শুরু করা হয়েছে। আগামী ৬ মাসের মধ্যে সংস্কার শেষ হবে। তবে তিনি দাবী করেন বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব-জয়দেবপুর পর্যন্ত সেতুগুলোর কোন সমস্যা বা ঝুঁকি নেই। তবে সেতুগুলো পুরনো হওয়ায় কিছু কিছু সেতুর কাঠের স্লিপার নষ্ট হয়ে যেতে পারে কিন্তু লোহার বোল্টুর বদলে বাঁশের গোজ ব্যবহার করা হয়নি।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: