সর্বশেষ আপডেট : ১১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

চার হাজার বছর ধরে জ্বলছে আগুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ‘চার হাজার বছর ধরে একাধারে জ্বলছে এই আগুন। কখনও নেভে না। এমনকি ঝুম বৃষ্টি, বরফ কিংবা ঝড়োবাতাস বয়ে গেলেও জ্বলা থামে না।’

আজারবাইজানের শিখা অনির্বাণ নিয়ে বলছিলেন স্থানীয় নারী অ্যালিয়েভা রাহিলা। এ সময় তার সামনেই প্রায় ১০ মিটার উঁচু লকলকে জিহ্বা বের করে অবিরাম জ্বলে চলেছে সেই আগুন।

অ্যাবশেরন উপদ্বীপে পর্যটক গাইডের কাজ করেন আলিয়েভা রাহিলা। তিনি জানান, সারা দিন আগুন জ্বলার কারণে আশপাশের এলাকা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশ উত্তপ্ত থাকে।

এ জায়গা ছাড়াও দেশটির অনেক জায়গায় এভাবে আগুন জ্বলছে। আর এভাবেই ‘আগুনের ভূমি’ হয়ে উঠেছে আজারবাইজান। সিএনএনের এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে সেই গল্প।

এশিয়া মহাদেশের একটি প্রজাতন্ত্রী রাষ্ট্র আজারবাইজান। কৃষ্ণসাগর ও কাসপিয়ান সাগরের মধ্যবর্তী স্থলযোটক দক্ষিণ ককেশাস অঞ্চলের সবচেয়ে পূর্বের রাষ্ট্র এই আজারবাইজান।

আয়তন ও জনসংখ্যার দিক থেকে ককেশীয় অঞ্চলের রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে বৃহত্তম দেশ। কাসপিয়ান সাগর এলাকার অন্যতম প্রধান জ্বালানি উৎপাদনকারী দেশ আজারবাইজান।

এসব কিছুর বাইরে আজারবাইজানের একটি স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য হল আজারবাইজানে চার হাজার বছর ধরে নিরবচ্ছিন্নভাবে চলছে আগুন। মুষলধারে বৃষ্টি, তুষারঝড় কিংবা বাতাস- কোনোকিছুতেই নেবে না সেই আগুন।

আজারবাইজানের অ্যাবশেরন উপদ্বীপের একটি জায়গায় দশ মিটার জায়গাজুড়ে অবিরাম জ্বলছে এ আগুন। মূলত প্রাকৃতিক গ্যাস এবং তেলসমৃদ্ধ দেশটির অনেক স্থানেই এ ধরনের আগুনের দেখা মেলে।

এই জ্বলন্ত আগুনের অভিজ্ঞতা লাভের জন্য হাজার বছর ধরে দুঃসাহসিক পর্যটকরা ভ্রমণের জন্য বেছে নিচ্ছেন আজারবাইজানকে। ভেনিস দেশীয় এক পর্যটক সতেরো শতকে বেড়াতে গিয়ে লিখেছিলেন আজারবাইজানের জ্বলন্ত আগুন নিয়ে।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: