সর্বশেষ আপডেট : ১৪ মিনিট ২৬ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হবিগঞ্জ পৌরসভার উপ-নির্বাচন সোমবার

হবিগঞ্জ সংবাদদাতা:: আগামীকাল সোমবার হবিগঞ্জ পৌরসভার উপ-নির্বাচন। প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা এখন শেষ পর্যায়ে। নির্ঘুম রাত কাটছে প্রার্থীদের, চলছে বিরামহীন গণ-সংযোগ। কে হচ্ছেন নতুন পৌর পিতা ? এ নিয়ে সর্বত্রই চলছে জল্পনা কল্পনা।
গত শুক্রবার মেয়র প্রার্থীদের প্রায় সকলেই সমর্থকদের নিয়ে শহরে মিছিল করেছেন। মেয়র পদে রয়েছেন ৫জন প্রার্থী। তারা হলেন, মিজানুর রহমান মিজান (নৌকা), এম. ইসলাম তরফদার তনু (মোবাইল ফোন), মো. মর্তুজ আলী (চামচ), এডভোকেট নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটু (নারিকেল গাছ) ও সৈয়দ কামরুল হাসান (জগ)। এদের মধ্যে পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান ব্যতিত সকলেরই প্রথম নির্বাচন এটি। মিজান এবার দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’ পেলেও তার সাথে ভোটের মাঠে বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) হিসেবে লড়ছেন নিজ দলের আরও ৩জন প্রার্থী। তারা হলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মর্তুজ আলী, হবিগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি এডভোকেট নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটু ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি সৈয়দ কামরুল হাসান। পক্ষান্তরে জেলা শ্রমিকদলের সভাপতি ও বিএনপির জেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক এম. ইসলাম তরফদার তনু নির্দলীয় প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে লড়ছেন। তার নির্বাচনী প্রতীক ‘মোবাইল ফোন’।

উল্লেখ্য, ১৮৮১ সালে প্রতিষ্ঠিত হবিগঞ্জ পৌরসভার আয়তন ৯.৫ বর্গ কিলোমিটার। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত ১ম শ্রেণির এ পৌরসভায় বসবাস করেন প্রায় লক্ষাধিক মানুষ। ভোটার সংখ্যা ৪৭ হাজার ৮শ’ ২০জন। এবারের তালিকায় কিছু নতুন ভোটারও যুক্ত হয়েছেন। জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে গত বছরের ২৮ নভেম্বর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র জিকে গউছ পদত্যাগ করলে মেয়র পদটি শুণ্য হয়।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: