সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভূমধ্যসাগর থেকে ১৭৫ অভিবাসন প্রত্যাশী উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভূমধ্যসাগর থেকে ১৭৫ জন অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে ইতালি ও মাল্টা কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার (৩০ মে) লিবীয় উপকূল থেকে ১৭ নারী ও ২৩ শিশুসহ ১০০ অভিবাসীকে উদ্ধার করে ইতালির নৌবাহিনী।

এর আগে, ভূমধ্যসাগর থেকে ৭৫ জন অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধারের কথা জানায় মাল্টার নৌবাহিনী। এদের সবাই তিনদিন আগে লিবিয়া থেকে ইউরোপের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিল।

ভূমধ্যসাগর হয়ে লিবিয়া থেকে ইউরোপ যাওয়ার সময় বুধবার প্রথম নৌকাবোঝাই অভিবাসীদের এই দলটিকে দেখতে পায় জার্মান ভিত্তিক উদ্ধারকারী সংস্থা সি-ওয়াচ। প্রতিকূল আবহাওয়ায় নৌকার ইঞ্জিন নষ্ট হয়ে গেলে সাগরের মাঝপথেই আটকা পড়ে অভিবাসীরা। সতর্কবার্তা পাঠানোর ২৪ ঘণ্টার মাথায় ইতালির নৌবাহিনী তাদের উদ্ধার করে।

ইতালির কোস্টগার্ড জানায়, এদের মধ্যে মাত্র কয়েকজনের লাইফ জ্যাকেট ছিল। উদ্ধারকৃতদের ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় জেনোয়া বন্দরে নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনি।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর জানায়, তিনদিন আগে যুদ্ধ-বিধ্বস্ত লিবিয়ার ত্রিপলি থেকে ইউরোপের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় অভিবাসন প্রত্যাশীরা। উদ্ধারের সময় এদের সবার অবস্থা করুণ ছিল, অনেকেই পুষ্টিহীনতায় ভুগছে বলেও জানায় জাতিসংঘ।

এর আগে স্থানীয় সময় বুধবার রাতে ভূমধ্যসাগরে টুনা মাছ ধরার ফাঁদের পাশে আটকে থাকা একটি নৌকা থেকে ৭৫ অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধার করে মাল্টার নৌবাহিনী। লিবীয় কোস্টগার্ড ও ইতালির নৌবাহিনীর সহায়তায় তাদের উদ্ধার করা হয়।

চলতি মাসে ভূমধ্যসাগরের তিউনিসিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে প্রাণ হারান ৬০ অভিবাসন প্রত্যাশী। যাদের অধিকাংশই বাংলাদেশি। এছাড়া উদ্ধার করা হয় আরো ১৮ বাংলাদেশিকে।

-সময় টিভি।






নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: