সর্বশেষ আপডেট : ২৯ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে মাতৃদুগ্ধ বিকল্প শিশু খাবার বিষয়ক অবহিতকরণ সভা

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: মাতৃদুগ্ধ বিকল্প, শিশু খাদ্য, বাণিজ্যিকভাবে প্রস্তুতকৃত শিশুর খাদ্য ও উহার ব্যবহারের সরঞ্জামাদি (বিপণন নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৩ বিষয়ে অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ মে) সকালে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে অবিহিত করণ সভায় সভাপতিত্ব করেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোঃ জসিম উদ্দিন।

বাংলাদেশ ব্রেস্টফিডিং ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ও জাতীয় পুষ্টি সেবার অর্থায়নে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা সহকারি স্বাস্থ্য (পরিদর্শক) মাসুক আহমদের পরিচালনায় মুল প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ব্রেস্টফিডিং ফাউন্ডেশন বিভাগীয় সমন্বয়কারী সজিব চৌহান।
অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নুর হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ব্রেস্টফিডিং ফাউন্ডেশন বিভাগীয় কর্মকর্তা এবিএম মাঈদুল ইসলাম।
এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দুলন রাণী তালুকদার, সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের স্বাস্থ্য সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ওমর ফারুক,পশ্চিম পাগলা মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রর মেডিকেল অফিসার ডা. তানভীর আনসারী,উপজেলা সমবায় অফিসার মো. মাসুদ আহমদ,উপজেলা খাদ্য অফিসার রোমানা আফরোজ, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শামীম চন্দ্র তালুকদার, উপজেলা স্যানেটারী পরিদর্শক মো. শহিদ উল্লাহ, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি কাজী জমিরুল ইসলাম মমতাজ,সাধারণ সম্পাদক নুরুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক হোসাইন আহমদ, অর্থ সম্পাদক সোহেল তালুকদার প্রমুখ।
অবহিতকরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত বক্তারা বলেন, জাতি গঠনের ক্ষেত্রে শিশুদের দিকে নজর দিতে হবে। তাই মাতৃদুগ্ধের বিকল্প নেই। মাতৃদুগ্ধের প্রতি জোর দিতে হবে। এ বিষয়ে জনসাধারণের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে হবে। বিশেষ করে মায়েদের এ ব্যাপারে সম্যক ধারণা দিতে হবে। এতে করে শিশুরা বিকশিত হবে। শিশুদের পুষ্টির দিকে নজর দিতে হবে।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন তাঁর বক্তব্যে বলেন, (বিপণন নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৩ আইনের অধীন নিবন্ধন ব্যতীত কোনো ব্যক্তি কোনো প্রকার মাতৃদুগ্ধ বিকল্প, শিশু, খাদ্য, বাণিজ্যিকভাবে প্রস্তুতকৃত শিশুর বাড়তি খাদ্য বা উহা ব্যবহারের সরঞ্জামাদি আমদানি, স্থানীয়ভাবে উৎপাদন, বিপণন, বিক্রয় কিংবা বিতরণ করতে পারবেন না। শিশু খাদ্যের বিষয়ে সরকার যে সকল আইন তৈরী করেছেন সে বিষয়ে সচেতনাতা বৃদ্ধি করতে হবে এবং মাঠ পর্যায়ে প্রয়োগ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: