সর্বশেষ আপডেট : ২৭ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বেঙ্গালুরুকে কেন বিশ্বাসঘাতকতার রাজধানী বলা হয়?

নিউজ ডেস্ক:: শিরোনাম শুনে অবাক হচ্ছেন? অবাক হওয়ার কিছু নেই এমনটাই সত্য। ভারতের সদ্য প্রকাশিত গ্লিডেন-এর রিপোর্টে বেঙ্গালুরুকে দেশের ইনফিডেলিটি ক্যাপিটাল অর্থাৎ বিশ্বাসঘাতকতার রাজধানী বলা হয়েছে৷

সমীক্ষা জানাচ্ছে, এই মুহূর্তে বেঙ্গালুরুর ১.৩৫ লক্ষ মানুষ সক্রিয় ভাবে পরকীয়া করছেন৷ তাদের সাইটে এই মুহূর্তে যতজন সক্রিয় ইউজার রয়েছেন তার মধ্যে ৪৩ হাজার মহিলা ও ৯১ হাজার ৮০০ জন পুরুষ বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা৷ ভারতের যেকোনও শহরের থেকে বেশি৷

বিশেষ করে ইঞ্জিনিয়রদের জন্য এখনও ভারতের সেরা জায়গা সিলিকন ভ্যালি৷ কাজের জন্য যেমন জনপ্রিয়, তেমনই প্রেমের জন্যও কিন্তু বেঙ্গালুরুর মনোরম আবহাওয়া বেশ উপযোগী৷ তাই পরকীয়ার ব্যাপারেও বেশ এগিয়েই রয়েছে এই শহর৷ এমনটাই জানাচ্ছে, এক্সট্রা ম্যারিটাল ডেটিং সাইট গ্লিডেন-এর সমীক্ষা৷

গ্লিডেন-এর মার্কেটিং প্রধান সোলেন পাইলেট জানান, এই সাইটের ২৭ শতাংশ ইউজারই বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা৷ অনেকেই এই সাইটে এসে লেখেন, সাইন ইন করার পর থেকে কীভাবে তার জীবন বদলে গিয়েছে৷

যেমন ৩১ বছরের এক মহিলা লিখেছেন, পরকীয়ায় জড়ানোর পর আমার পরিবারের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল হয়েছে৷ আমার পরিবার ছেড়ে বেরিয়ে আসার কোনও ইচ্ছা নেই৷ আমার ছেলে যদি কোনওদিন জানতে পারে তাহলে আমার মনে হবে৷ বুঝবে এই সম্পর্ক ওর মাকে খুশি করেছিল৷

বেঙ্গালুরুর সাকরা ওয়ার্ল্ড হাসপাতালের কনসালট্যান্ট সাইকিয়াট্রিস্ট নবীন জয়রাম জানান, সাধারণত মনের অমিল, দূরত্ব ও কাজের প্রয়োজনে একে অপরকে দেওয়া সময়ের অভাবেই জীবনে একঘেয়েমি আসে৷

কীভাবে দুটো সম্পর্ক সামলে চলেন এরা? কীভাবেই বা কাটিয়ে ওঠেন অপরাধ বোধ? মনিপাল হাসপাতালের সাইকিয়াট্রিস্ট ভূপেন্দ্র চৌধুরি বলেন, কিছু সময় পর দুটো সম্পর্ক একসঙ্গে বয়ে নিয়ে চলা বোঝা মনে হয়৷ তখন পার্টনারকে জানিয়ে দিতে চান তারা৷ তবে সেই সঙ্গেই তাদের মধ্যে গভীর অপরাধবোধও কাজ করে৷

বিশেষজ্ঞদের মতে, বেঙ্গালুরু দেশের আইটি হাব হওয়ার কারণে বিভিন্ন শহর থেকে বহু মানুষ এখানে কাজ করতে আসেন৷ অনেকেই পরিবারের থেকে দীর্ঘ সময় দূরে থাকেন৷ ফলে কারও সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলা, কারও সঙ্গ পাওয়ার প্রয়োজন হয়ে পড়ে৷ যার মধ্যে সব ক্ষেত্রে শারীরিক সম্পর্ক নাও থাকতে পারে৷



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: