সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রাজনীতি এখনও ফুলটাইম শুরু করিনি: মাশরাফি

নিউজ ডেস্ক:: ক্রিকেট ইতিহাসে তিনিই একমাত্র ক্রিকেটার যিনি সংসদ সদস্য হয়ে এখনও মাঠ কাঁপাচ্ছেন। আসন্ন বিশ্বকাপে তার নেতৃত্বেই খেলবে বাংলাদেশ দল। বলছি নড়াইল ২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মতুর্জার কথা।

ক্রিকেট মাঠের মত রাজনীতির মাঠেও তিনি দশে দশ পেয়ে গেলেন। যার অন্যন উদাহরণ কৃষকদের ধানের ন্যায্যমূল্য নিয়ে তার পদক্ষেপ। ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে চার দিনের ছুটিতে দেশে ফিরেন মাশরাফি। দেশে ফিরেই জানতে পারেন কৃষকের কষ্টের কথা। আর তাতেই তিনি কৃষকদের ধানের ন্যায্যমূল্য পাইয়ে দিতে নড়াইলের ডিসিকে নির্দেশনা দেন।

আপাদমস্তক ক্রিকেটে মোড়ানো জীবন হলেও তিনি যে একজন জনপ্রতিনিধি তা বেশ খেয়ালই থাকে মাশরাফির। বরং দেশের অন্যান্য জেলার সাংসদের চাইতে বেশ ভালো করছেন আর বিচক্ষণতা দেখাচ্ছেন বলে মত দিচ্ছেন দেশবাসী।

২২ গজের ব্যস্ততার ফাঁকে এলাকার লোকজনের খোঁজখবর যে মাশরাফি বেশ ভালো রাখতে পারেন এই পাঁচ মাসে তার উদাহরণ রয়েছে ভুরি ভুরি।

সাংসদ জীবনে নেমে বেশ কিছু ইতিবাচক খবরে শিরোনাম হয়েছেন মাশরাফি। সম্প্রতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শেষ হতে না হতেই বিশ্রাম না নিয়ে নিজ এলাকায় ঝটিকা সফরে যান মাশরাফি।

খুঁজে বের করেন নড়াইল হাসপাতালে চিকিৎসকদের কর্তব্যের অবহেলার বিষয়টি। কর্তব্যরত ডাক্তারকে অনুপস্থিত দেখে সঙ্গে সঙ্গে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দেন। এর জন্য রোগীও সাজান নিজেকে। ঘটনাটি সেই সময় দেশব্যাপী আলোচিত হয়।

এমন দায়িত্বপরায়ণতায় সংসদ সদস্য হিসেবেও মাশরাফিকে করে তুলেছে অনন্য। কিন্তু এসব প্রশংসার পরও মাশরাফির মুখে শোনা গেল ভিন্ন সুর।

তিনি জানিয়েছেন, এখনও সে অর্থে রাজনীতি শুরু করেননি। রাজনীতি বুঝেও উঠতে পারেননি।

জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোকে মাশরাফি বলেন, ‘আমার পূর্ণ মনোযোগ এখন ক্রিকেটেই রয়েছে। রাজনীতিতে আমার সম্পৃক্ততা এখনও সে পর্যায়ে যায়নি। কিছু বিশেষ কাজ ছাড়া রাজনীতিতে আমার তেমন সময় দেয়ার প্রয়োজন পড়ে না।’

তিনি যোগ করেন, ‘আমি এখনও নিজেকে ক্রিকেটার পরিচয় দিতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। রাজনীতি এখনও আমার কাছে ফুল টাইমের বিষয় হয়ে ওঠেনি।’

বিশ্বকাপের দিকেই এখন তার সব ধ্যানজ্ঞান বলে জানান এ নড়াইল এক্সপ্রেস। অবশ্য নির্বাচনে অংশ নেয়ার আগেও এমনটিই জানিয়েছিলেন মাশরাফি।

সেই সময় সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেছিলেন, ‘যতদিন ক্রিকেট খেলব ততদিন মনোযোগ শুধু ২২ গজেই থাকবে।’

মাশরাফির বক্তব্যে বারবার বিশ্বকাপই চলে আসে। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপ প্ল্যাটফর্মে আমাদের দলটি বেশ অভিজ্ঞ। গত বিশ্বকাপেও খেলেছে তরুণ খেলোয়াড়দের কয়েকজন। এ বিষয়টি আমাদের আত্মবিশ্বাস দিচ্ছে।

তারা যদি ভালো ফর্ম দেখাতে পারে তা হলে প্রথম ম্যাচেই জয় আসতে পারে আমাদের। আর সাকিব, তামিম, মাহমুদউল্লাহ, মুশফিক এবং মোস্তাফিজ তো আছেই। তারা চাপের মুখে পারফর্ম করে দেখিয়েছে আগেও।’

তবে মাশরাফি যাই বলুক পুরো দস্তুর রাজনীতিবিদ না হয়েও মাশরাফি নিজ এলাকায় সাংসদ হিসেবে যে কাজ করেছেন ইতিমধ্যে তা বেশ প্রশংসনীয় বলেই বলছেন রাজনীতি বিশ্লেষকরা।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: