সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ক্লাসরুমে ছাত্রীদের হয়রানি, চাকরি গেল সেই শিক্ষকের

নিউজ ডেস্ক:: নারীদের জুতার সঙ্গে তুলনা করে ক্লাসে উদাহরণ দেন ঢাকা স্টেট কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ রেজাউল হক। এমনকি ক্লাস নেওয়ার সময় মেয়েদের শরীরে আপত্তিকর স্পর্শ করারও অভিযোগ রয়েছে।

ক্লাসরুমে ছাত্রীদেরকে হয়রানির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ঢাকা স্টেট কলেজের হিসাববিজ্ঞানের সহকারী অধ্যাপক রেজাউল হককে চাকরি থেকে চূড়ান্ত বরখাস্ত করা হয়েছে। বুধবার প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদের (জিবি) এক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জিবি সভাপতি আনছার আলী খান বলেন, কলেজের বেশকিছু ছাত্রীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রথমে কলেজের অভ্যন্তরীণ এবং পরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কমিটি তদন্ত করে। উভয় তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে জিবি উল্লিখিত শিক্ষককে চূড়ান্ত বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সূত্র জানায়, প্রতিষ্ঠানটির ৪৯ ছাত্রী উল্লিখিত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৫টি অভিযোগ আছে। এরমধ্যে ছাত্রীদের শরীরে বাজেভাবে স্পর্শ করা, ছাত্রীদের জুতার সঙ্গে তুলনা করার মতো অভিযোগ আছে।

ঢাকা জেলা প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা এবং সরকারি কলেজের একজন শিক্ষকসহ পাঁচ সদস্যের কমিটি এই অভিযোগ তদন্ত করে সত্যতা পেয়েছেন বলে দুই পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এতে আরও উল্লেখ আছে, প্রথমে দৈবচয়ন ভিত্তিতে ১১ ছাত্রীর সাক্ষ্য নেয়া হয়। ওইসব ছাত্রীকে প্ররোচিত করা হয়েছে বলে অভিযুক্তের পক্ষ থেকে দাবি উঠে। এরপর দ্বিতীয় দফায় অন্য ছাত্রীদের সাক্ষ্য নেয় কমিটি।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অভিযুক্ত ও চাকরিচ্যুত শিক্ষক রেজাউল হক বলেন, প্রতিষ্ঠানে তিনি একদফা ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ছিলেন। তার কাছ থেকে বর্তমান অধ্যক্ষ জোরপূর্বক দায়িত্ব নেন। ইতিমধ্যে তার চাকরির নিয়মিত বয়স পেরোনোর দুই দফা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ করা হয়। তিনি এসবের প্রতিবাদ করেন বলে সাজানো অভিযোগে তাকে দোষী সাব্যস্ত করে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। বুধবার জিবির যে সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে সেটি গোপনে হয়েছে বলে দাবি তার। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আপিল করবেন বলে জানান।

উল্লেখ্য, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী, অধিভুক্ত কোনো কলেজের শিক্ষক বা কর্মচারীকে বরখাস্ত করা হলে- তা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন লাগে। নইলে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত কার্যকর হয় না। কলেজটি জিবির সিদ্ধান্ত এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠাবে বলে জানা গেছে।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: