সর্বশেষ আপডেট : ১২ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এসিল্যান্ড ও মৎস্য ব্যবসায়ীর সমস্যার মিমাংসা করলেন এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী

ফেঞ্চুগঞ্জ সংবাদদাতা:: ফেঞ্চুগঞ্জের পূর্ববাজারে ব্যবসায়ীর মাছের ঝুড়ি লাথি দিয়ে ড্রেনে ফেলে দেয়ার ঘটনায় ব্যবসায়ীদের ক্ষোভ ও উত্তেজনার আটদিনের মাথায় বিষয়টি মীমাংসা করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী।

আজ সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে মাছ ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠকের মাধ্যমে বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়া হয়। ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না ঘটে এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক করে দেন এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী।

বৈঠকে এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী বলেন- শিগগিরই মাছ ব্যবসায়ীদের জন্য জায়গা নির্ধারণ করে দেয়া হবে। মাছ ব্যবসায়ীরা যেন সেখানে বসে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারেন এজন্য সব ধরনের সহযোগিতা দেয়া হবে।

এ ব্যাপারে মাছ ব্যবসায়ী লায়েক আহমেদ বলেন- এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর মধ্যস্থতায় বিষয়টি সুন্দরভাবে শেষ হয়েছে। আশা করছি আমরা মাছ ব্যবসায়ীরা এখন একটা সুন্দর পরিবেশে ব্যবসা করার সুযোগ পাবো।

মাছ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে প্রশাসনের দূরত্বের বিষয়টি মীমাংসা হয়েছে জানিয়ে ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান বলেন- নিজ উদ্যোগে বৈঠক করে বিষয়টি মীমাংসা করে দিয়েছেন এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী।

বৈঠকে এ সময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা নির্বাহী অফিসার আয়েশা হক, এসিল্যান্ড সঞ্চিতা কর্মকার, মাইজগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল বাসিত, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম মুরাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সেলিনা ইয়াসমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত আলী, ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান, ফেঞ্চুগঞ্জ বাজার বনিক সমিতির আহবায়ক আব্দুল বারী, আওয়ামী লীগ ও মৎস্য ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ।।

উল্লখ্যঃ ১২ মে ফেঞ্চুগঞ্জের পূর্ববাজার ডাকবাংলোর সামনে বসে মাছ বিক্রি করছিলেন মৎস্য ব্যবসায়ী লায়েক আহমদ। এ সময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) সঞ্চিতা কর্মকার ব্যবসায়ীকে মাছের ঝুড়ি সরিয়ে নেয়ার জন্য নির্দেশ দেন। তখন মাছ ব্যবসায়ী লায়েক আহমদ কমিশনারকে ‘দিদি’ বলে সম্বোধন করেন। এতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ক্ষিপ্ত হয়ে তার মাছের ঝুড়ি লাথি দিয়ে ড্রেনে ফেলে দেন। এরপর মৎস্য ব্যবসায়ীরা এ ঘটনার প্রতিবাদের আন্দোলন শুরু করেন।

এ ঘটনার জন্য তারা সহকারী কমিশনারকে দুঃখ প্রকাশের জন্য আলটিমেটাম দেন। অন্যতায় ওই বাজারে মাছ বিক্রি বন্ধ রাখার হুমকি দিয়ে রাখেন ব্যবসায়ীরা। এ পরিস্থিতে বিষয়টি মীমাংসার উদ্যোগ নেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: