সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৫৯ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ঐতিহ্যের স্মারক সংরক্ষণ করেই নির্ধারিত জায়গায় সিলেট জেলা হাসপাতাল হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

 ডেইলি সিলেট ডেস্ক:: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ঐতিহ্য হিসেবে সিলেট মেডিকেল স্কুল ভবনের স্মারক সংরক্ষণ করেই সিলেটবাসীর জন্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার জেলা হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে।
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ ও সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই ঘোষণার সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন।
গত ১৭ মে শুক্রবার রাতে মহানগরীর ধোপাদিঘিরপাড়ে হাফিজ কমপ্লেক্সে সিলেট উন্নয়ন ও ঐতিহ্যের স্মারক সংরক্ষণ পরিষদের প্রতিনিধি দল তাদের সাথে দেখা করতে গেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ ঘোষণা দেন এবং সাবেক অর্থমন্ত্রী ও সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এতে একত্মতা জানান।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগের জেলা সাধারণ সম্পাদক সাবেক সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী, বিশিষ্ট বীমা ব্যক্তিত্ব এ এস এ মুয়িজ সুজন, এনজিও ব্যক্তিত্ব ড. আহমদ আল কবির, সিলেট সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের ব্যুরো প্রধান শাহ দিদার আলম নবেল।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা জায়গায় অবিলম্বে জেলা হাসপাতালের নির্মাণ কাজ শুরু করা না গেলে প্রকল্পের জন্যে বরাদ্দকৃত টাকা ফেরৎ চলে যাবে। ফলে সিলেটবাসী উন্নত চিকিৎসাসেবা প্রাপ্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন।
ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে একই শহরের হাসপাতালগুলো কাছাকাছি নির্মাণ করা হয়, যাতে প্রয়োজনে পারস্পরিক সহযোগিতা পাওয়া যায়।
এ প্রসঙ্গে তিনি সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের তাৎক্ষণিক চিকিৎসা সেবার কথা উল্লেখ করে বলেন, এ সময় যদি বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে ল্যাব এইড হাসপাতালনা থাকতো চিকিৎসা করা কঠিন হয়ে পড়তো।
ঐতিহ্য রক্ষার নামে বাহানা করে নির্ধারিত জায়গায় জেলা হাসপাতাল নির্মাণে বিরোধিতা করা উন্নয়ন সহযোগী মানসিকতা নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন।
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, সিলেটবাসীর উন্নত স্বাস্থ্যসেবা প্রয়োজন বলেই প্রধানমন্ত্রী জেলা হাসপাতাল উপহার দিয়েছেন।
তিনি বলেন, সিলেট মেডিকেল স্কুল কিংবা আবুসিনা ছাত্রাবাস যে নামেই হোক-এই ভবনগুলো সরকারের প্রতœতত্ত্ব তালিকার অন্তর্ভুক্ত নয়।
এই ভবনগুলো প্রতœতত্ত্ব তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হবার শর্ত পূরণ করেনা বলেও প্রতিমন্ত্রী উল্লেখ করেন।
সিলেটেআরোহাসপাতাল প্রয়োজন বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, হাসপাতালের জায়গায় হাসপাতাল ইহবে। উন্নয়নে বাধা প্রদানকে কোন ভাবেই মেনে নেয়া যাবে না।
সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, একটি ভবন রেখেই ঐতিহ্য সংরক্ষণ করা যায়। এতে হাসপাতাল নির্মাণেও কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হবে না।
সিলেট উন্নয়ন ও ঐতিহ্যের স্মারক সংরক্ষণ পরিষদের প্রতিনিধি দলে ছিলেন, সংগঠনের আহ্বায়ক জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আল আজাদ ও সদস্য জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক তাপস দাশ পুরকায়স্থ।
এর আগে বিকেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন সিলেট মেডিকেল স্কুল ভবন পরিদর্শন করেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী ও সহসভাপতি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ।
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদও সিলেট মেডিকেল স্কুল ভবন পরিদর্শন করেন।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: