সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ২৫ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ক্লাসে ছাত্রীর ব্যাগে ছাড়পোকা, মা গ্রেফতার!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: স্কুলে ক্লাস করছিল এক ছাত্রী। এমন সময় তার ব্যাগ থেকে বেরিয়ে এলো শত শত ছাড়পোকা। এ দৃশ্য দেখে স্কুল কর্তৃপক্ষ পুলিশকে জানায়। পুলিশ ওই ছাত্রীর মাকে গ্রেফতার করেছে। ওই মায়ের হতে পারে ২৫ বছরের জেল। আর এ ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়।

ফ্লোরিডা পুলিশের বরাত দিয়ে সংবাদ মাধ্যম সিএনএন জানায়, ফ্লোরিডার ৩৪ বছর বয়সী জেসিকা মিল্টন স্টিভেনসনের ৫টি সন্তান। তাদের বয়স ৫-১৪ বছরের মধ্যে। তারা প্রত্যেকে নোংরা পরিবেশে বসবাস করে।

ওই ছাত্রীর স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মেয়েটি বেশ কয়েক দিন যাবৎ একই পোশাকে স্কুলে আসছিল। তার পোশাক ছিল নোংরা ও কেকের দাগ লেগেছিল। এ জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষ তাকে সতর্কও করেছিল। এছাড়া ওই ছাত্রীর ব্যাগে তেলাপোকার মলের দাগ ছিল।

স্কুল কর্তৃপক্ষ আরও জানায়, দ্বিতীয় গেডের ওই ছাত্রী জানিয়েছে- সে কতদিন আগে গোসল করেছে তা বলতে পারবে না। এমনকি ওই ছাত্রীর পোশাকে প্রস্রাবের দাগও রয়েছে।

স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে ওই ছাত্রীর বাড়িতে যায় দেশটির পুলিশ। ওই বাড়িটি খুব নোংরা, অগোছালো ও তেলাপোকায় ভরা।

পুলিশ জানায়, বাড়িটির প্রত্যেক স্থানে তেলাপোকা ও ময়লা ছড়িয়ে আছে। সন্তানদের বিছানা-পোশাক যত্রতত্র ছিটানো। তাদের পোশাক রান্নাঘরের পাত্র এবং প্যানের মধ্যে। এমনকি ক্যাবিনেট / ফ্রিজের ভিতরে শিশুদের গদি দেখতে পায় পুলিশ। ফ্রিজের ক্যাবিনেটের মধ্যে কোনো খাবার ছিল না।

ওই ছাত্রী মা স্টিভেনসনকে সন্তানের অবহেলা এবং নোংরার জন্য পাঁচটি মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছে। এতে দোষী সাব্যস্ত হলে তার ২৫ বছরের জেল হতে পারে।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্টিভেনসন। তিনি শনিবার সিএনএনকে জানান, তিনি কখনো তার সন্তানদের অবহেলা করেননি।

স্টিভেনসন তার প্রতিনিধিত্ব করার জন্য সরকারি উকিল চান আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য। তবে সরকারি উকিল না থাকায় পাশের সান্তা রোজা কাউন্টি থেকে একজন অ্যাটর্নিকে আসতে বলা হয়েছে। তবে তার উত্তর এখনো আসেনি বলে জানিয়েছে কাউন্টি কোর্ট ক্লার্কের অফিস।

নিজেকে একাকী এবং তার আয় কম দাবি করে স্টিভেনসন বলেন, একজন একাকী দরিদ্র মায়ের পক্ষে পাঁচজন বাচ্চার দেখভাল করা সহজ নয়। আমি আমার সন্তানদের ভাল করতে চাই এবং আমি চেষ্টাও করছি। কিন্তু কম আয়ের জন্য তা সম্ভব হচ্ছে না।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: