সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
শনিবার, ২৫ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

একত্রে ব্যবসা করতে চায় টেলিনর-আজিয়াটা

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক ::
নয়টি দেশের টেলিকম বাজারের দখল নিতে এশিয়ার ব্যবসা একীভূত করার আলোচনা শুরু করেছে নরওয়ের মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিনর আর মালয়েশিয়ার আজিয়াটা গ্রুপ। সব কিছু ঠিক থাকলে দুই প্রতিষ্ঠান মিলে নতুন একটি কোম্পানি গঠন করা হবে। সোমবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে টেলিনর এ সংক্রান্ত তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা যায়, মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিনর ও মালয়েশিয়ার চুক্তি চূড়ান্ত হলে নতুন একটি কোম্পানি গঠন করা হবে। যার ৫৬.৫ শতাংশ শেয়ার নিয়ে বড় অংশীদর হবে টেলিনর। অবশিষ্ট ৪৩.৫ শতাংশ শেয়ার থাকবে আজিয়াটার হাতে।

বাংলাদেশের শীর্ষ দুই মোবাইল কোম্পানির মালিকানার নিয়ন্ত্রণ রয়েছে নরওয়ে ও মালয়েশিয়ার এ দুই কোম্পানির হাতে। টেলিনর বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের ৫৫ দশমিক ৮ শতাংশ শেয়ারের মালিক। আর গ্রাহক সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা মোবাইল ফোন অপারেটর রবির ৬৮.৭ শতাংশ শেয়ারের মালিক আজিয়াটা।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দুই কোম্পানির এশিয়ায় ব্যবসা একীভূত হলেও বাংলাদেশে আলাদা কোম্পানি হিসেবে স্বাধীনভাবে ব্যবসা চালিয়ে যাবে রবি এবং এর নিয়ন্ত্রণ থাকবে আজিয়াটার হাতে।

গ্রামীণফোনের গ্রাহক সংখ্যা বর্তমানে ৭ কোটি ৪০ লাখ, যা দেশের মোট মোবাইল ফোন সেবাগ্রহীতার ৪৬ শতাংশের বেশি। আর রবির সেবাগ্রহীতার সংখ্যা ৪ কোটি ৭৩ লাখ, যা দেশের মোট গ্রাহক সংখ্যার প্রায় ৩০ শতাংশ।

টেলিযোগাযোগ ব্যবসায় একক আধিপত্য তৈরির পথ বন্ধ করতে গতবছরের শেষ দিকে ‘সিগনিফিকেন্ট মার্কেট পাওয়ার’ বা এসএমপি প্রবিধানমালা জারি করে বাংলাদেশের টেলিকম খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

এরপর গ্রামীণফোনকে সিগনিফিকেন্ট মার্কেট পাওয়ার (এসএমপি) ঘোষণা করা হয়, যার ফলে অন্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে গ্রামীণফোনের স্বতন্ত্র ও একক স্বত্বাধিকারের নতুন কোনো চুক্তি করার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপিত হয়।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: এ. আর. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: