সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ২৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভারতে নির্বাচনী প্রচারে ফেরদৌসের অংশ নেয়ার ব্যাপারে যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:: কলকাতায় ছিল ফেরদৌসের বিপুল জনপ্রিয়তা, অবাধ আসা–যাওয়া। বহু সিনেমা করেছেন কলকাতায়, গিয়েছেনও বারবার। কলকাতার মানুষের সঙ্গে নিবিড় সখ্যও গড়ে ওঠে তাঁর। সংস্কৃতি অঙ্গনের যেখানে ডাক পেয়েছেন, সেখানেই তিনি ছুটে গিয়েছেন। বোঝেননি নির্বাচনী প্রচারণার জন্য এই ছুটে যাওয়া তাঁর জন্য কাল হয়ে যাবে!

আর সর্বশেষ নিজের ভুলটিও স্বীকার করেন তিনি। তিনি এটিকে তার অনিচ্ছাকৃত ভুল দাবি করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। ফেরদৌস বলেন, আশা করি, সংশ্লিষ্ট সকলে আমার অনিচ্ছাকৃত ভুলকে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

এদিকে ভারতের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীর পক্ষে অভিনেতা ফেরদৌসের প্রচারণায় অংশ নেওয়াকে দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে কনস্যুলার কর্প অব বাংলাদেশ (সিসিবি) আয়োজিত অনুষ্ঠানের আগে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে এ মন্তব্য করেন।

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনের প্রচারণায় ফেরদৌসের অংশগ্রহণের বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘উনি (ফেরদৌস) তাঁর বন্ধুর জন্য গিয়ে ক্যাম্পেইন করেছেন। তবে সেটি দুঃখজনক।’

ফেরদৌসের এই প্রচারণার বিষয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) আনুষ্ঠানিকভাবে সে দেশের নির্বাচন কমিশনে ও কলকাতার রায়গঞ্জ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দপ্তরে আপত্তি জানিয়েছে।

এ নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতীয়রা এত স্ট্রং রিঅ্যাক্ট করেছে, তা–ও আমার কাছে বেশি লাগল। রিঅ্যাকশনটা একটু বেশি হয়ে গেছে।’ তিনি জানান, বিষয়টি নিয়ে সরকারকে এখনো কিছু জানায়নি ভারত।

ফেরদৌসের বিরুদ্ধে ভারত সরকারের অভিযোগ, তিনি ভিসার শর্ত ভঙ্গ করে গত রোববার উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ আসনের তৃণমূল প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন।

ফেরদৌসের ব্যবসায়ী ভিসার শর্ত ছিল, তিনি ভারতে এসে চলচ্চিত্রে শুটিং করতে পারবেন, বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারবেন। সেই শর্ত ভেঙে তিনি একটি রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী প্রচারে যোগ দেন। এটাই তাঁর ভুল।

আর এ ঘটনার কথা প্রকাশ্যে এলে বিজেপি তীব্র প্রতিবাদ করে। তারা প্রশ্ন তোলে, কীভাবে একজন বিদেশি ভারতের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারেন? এরপর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয় কলকাতার অভিবাসন দপ্তর ও বিদেশি নাগরিক নিবন্ধন দপ্তরে।

পাশাপাশি প্রতিবেদন চাওয়া হয় পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের কাছেও। অভিবাসন দপ্তর থেকে প্রতিবেদন পাওয়ার পর গতকালই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করে তাঁকে অবিলম্বে দেশে ফেরত পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

এ–সংক্রান্ত নির্দেশ পাঠানো হয় উত্তর দিনাজপুরের পুলিশ সুপারকে। তারপরেই ফেরদৌস মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বাংলাদেশে ফিরে আসেন।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: