সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভুল তারিখে শবে বরাত, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ!

নিউজ ডেস্ক:: শনিবার দিবাগত সন্ধ্যায় দেশের খাগড়াছড়ি জেলার হাতিমুড়া এলাকার বহু সংখ্যক প্রত্যক্ষদর্শী পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখা সত্ত্বেও ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক ভুলভাবে পবিত্র শাবান মাস গণনা এবং ভুল তারিখে পবিত্র শবে বরাত পালনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছে মজলিসু রুইয়াতুল হিলাল।

সোমবার(৯ এপ্রিল) ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে রাজারবাগ শরীফের পক্ষে আন্তর্জাতিক চাঁদ দেখা কমিটি মজলিসু রুইয়াতুল হিলাল সভাপতি আন্তর্জাতিক চাঁদ গবেষক ফার্মাসিস্ট আল্লামা আবুল বাশার মুহম্মদ রুহুল হাসান এসব দাবি তুলে ধরেন।

এতে বলা হয়, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের জেলা চাঁদ দেখা বিষয়ক কমিটির সভাপতি খাগড়াছড়ি জেলার ডিসির মাধ্যমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে জানানোর পরও শাবান মাসের চাঁদ দেখার সঠিক তারিখ ঘোষণা করছেনা ইসলামিক ফাউন্ডেশন। যা সম্পূর্ণরূপে সম্মানিত শরীয়ত উনার বিরোধী।

মজলিসু রুইয়াতুল হিলালের তাদের বিভিন্ন এলাকার প্রমাণাদি উল্লেখ করে দাবি করেন, গত ২৯শে রজবুল হারাম শনিবার সন্ধায় খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা উপজেলায় অনেকে পবিত্র শাবান শরীফ মাসের চাঁদ দেখেছেন।

এছাড়া রুইয়াতিল হিলাল মজলিশের খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি হাফিয মুহম্মদ মূইনুল ইসলাম পারভেজ চাঁদ দেখার খবর কেন্দ্রীয় পর্যায়ে জানানোর পর রুইয়াতিল হিলাল মজলিশের পক্ষ থেকে সন্ধ্যা ৬:৪৪ মিনিটে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ০২-৯৫৫৯৪৯৩ নং ফোনের মাধ্যমে চাঁদ দেখতে পাওয়ার বিষয়টি সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলকে জানানো হয়।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাদেরকে চাঁদ দেখার কোন রিপোর্ট পাঠাননি। তাই আমাদের করণীয় কিছু নেই। পাশাপাশি হাতীমুড়া থেকে যারা চাঁদ দেখেছেন তাদেরকেও সরাসরি ডিসির সাথে কথা বলা হয়। ডিসি সাহেব চাঁদ দেখার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এসময় তারা আরো উল্লেখ করেন, যেখানে মাগরিবের ওয়াক্ত শুরু ৬:২২ মিনিটে অতঃপর নামায শুরু ৫ মিনিট পর ৬.২৭ মিনিটে (যদিও দেশের পূর্ব থেকে পশ্চিম ১২-১৩ মিনিটের পার্থক্য) এবং শেষ হতে যদি ৬:৪০ মিনিট হয়, চাঁদ দেখা কমিটির মিটিং শুরু ৬.৪৫ মিনিটে এবং মিডিয়ায় প্রেস রিলিজ পাঠানো হয় ৭:১০ মিনিটে আর ৭:১৯ মিনিটে চাঁদ দেখতে না পাওয়ার সংবাদও মিডিয়াতে চলে আসে।

তাহলে প্রশ্ন জাগে এই ৬:৪৫-৭:১০ মিনিট এই ২৫ মিনিটের মধ্যে ৬৪ জেলার চাঁদের রিপোর্ট এতো তাড়াতাড়ি আসলো কি করে। ১ মিনিট লাগলেও তো ৬৪ মিনিট লাগার কথা। তাহলে পর্যালোচনার সময় গেল কোথায়।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, মাসিক আল বাইয়্যিনাত পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক মুফতিয়ে আযম আবুল খায়ের মুহম্মদ আযীযুল্লাহ এবং খাগড়াছড়ি জেলা থেকে আগত চাঁদ দেখার প্রত্যক্ষদর্শীগণ।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: