সর্বশেষ আপডেট : ১১ মিনিট ২ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আজ থেকে শুরু হচ্ছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা

সিলেটে পরীক্ষার্থী ৭৭ হাজার

সারাদেশে সাড়ে ১৩ লাখ

নিজস্ব প্রতিবেদক ::

বাংলা প্রথম পত্রের মধ্য দিয়ে ২০১৯ সালের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আজ সোমবার (১ এপ্রিল)। সিলেটের প্রায় ৭৭ হাজারসহ সারাদেশে সাড়ে ১৩ লাখ পরীক্ষার্থী এবারের পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন।

সিলেট শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে- বোর্ডে এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৭৬ হাজার ৯০৩ জন। এর মধ্যে ছেলে ৩৪ হাজার ৯৫২ এবং মেয়ে ৪১ হাজার ৯৫১ জন। গতবছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৭১ হাজার ৫৬৩ জন। সারা দেশে মোট পরীক্ষার্থী ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ জন।

সিলেট অঞ্চলের চার জেলার ২শ ৮৫টি কলেজের শিক্ষার্থীরা ৮০টি কেন্দ্রের মাধ্যমে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। পরীক্ষা কেন্দ্রের মধ্যে সিলেটে ৩০টি, হবিগঞ্জে ১৮টি, মৌলভীবাজারে ১৩টি এবং সুনামগঞ্জে ১৯টি কেন্দ্র রয়েছে।

১ এপ্রিল থেকে ১১ মে পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে লিখিত পরীক্ষা। আর ১২ থেকে ২১ মের মধ্যে ব্যবহারিক পরীক্ষা হবে। এবার দুই হাজার ৫৭৯টি কেন্দ্রে ৯ হাজার ৮১টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী দ্বাদশ শ্রেণির এই চূড়ান্ত পরীক্ষা দেবে। গতবারের চেয়ে এবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বেড়েছে ১১৮টি, কেন্দ্র বেড়েছে ৩৮টি। ঢাকার বাইরে এবার বিদেশের আটটি কেন্দ্রে ২৭৫ শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নেবে, এর মধ্যে ১২৭ জন ছাত্র, ১৪৮ জন ছাত্রী।

এবার এইচএসসি সমমানের মোট ৫১টি বিষয়ে ১০১টি পত্রের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বিভিন্ন সিলেবাসে পত্রের সংখ্যা ১৫১টি। সারাদেশে মোট ২ হাজার ৫৮০টি কেন্দ্রের প্রায় ৪০ হাজার কক্ষে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন কমপক্ষে ১ লাখ শিক্ষক পরীক্ষার কাজে নিয়োজিত থাকবেন। পরীক্ষা নিতে বাংলা ও ইংরেজি ভার্সন ও ব্যবহারিক পরীক্ষার জন্য মোট ৩ হাজার ৯৩২ ধরনের প্রশ্ন ছাপা হয়েছে।

সিলেট শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, সকল জেলা ও উপজেলায় ইতোমধ্যে সিকিউরিটি খাম সহকারে প্রশ্নপত্র পৌঁছে দেয়া হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেট ও কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রশ্নপত্র সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে নিয়ে যাবেন। নির্ধারিত প্রশ্নপত্র সেটে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস সম্পর্কিত গুজব ছড়ালে কিংবা অসদুপায় অবলম্বন করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলেও বোর্ডের পক্ষ থেকে হুঁশিয়ারী দেয়া হয়েছে। তাছাড়া, পরীক্ষা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (অধ্যক্ষ) এবং ভ্যানু কর্মকর্তাদের নিয়েও দফায় দফায় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষা, মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে আলীম পরীক্ষা ও বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এইচএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষা নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি’র) পক্ষ থেকে গণ-বিজ্ঞপ্তি জারী করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, পরীক্ষা চলাকালে সিলেট মহানগর পুলিশ আইন-২০০৯ সালের ধারা ২৯, ৩০, ৩১, ৩২ এর প্রদত্ত ক্ষমতা বলে পরীক্ষা কেন্দ্রের ২শ’ গজের মধ্যে জনসমাবেশ, মিছিল, ঢাকঢোল বাজানো, লাউড স্পিকার ব্যবহার, অস্ত্রশস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, ইট পাথর, ইত্যাদি বহন ব্যবহারসহ শান্তিশৃঙ্খলা ও জননিরাপত্তার হুমকিস্বরূপ কোনো কাজ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রকে পরীক্ষা চলাকালে অস্থায়ীভাবে সংরক্ষিত এলাকা ঘোষণা করা হয়েছে। এ আদেশ আজ ১ এপ্রিল থেকে পরীক্ষা চলাকালীন প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

এইচএসসি ও সমমানের মোট পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্রের চেয়ে ছাত্রীর সংখ্যা বেশি। মোট ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ৬ লাখ ৬৪ হাজার ৪৯৬ জন, বাকি ছয় লাখ ৮৭ হাজার ৯ জন ছাত্রী। এর মধ্যে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৭৪৭ জন। বোর্ডওয়ারী পরীক্ষার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঢাকা বোর্ডে। এই বোর্ডের পরীক্ষার্থী ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৬২২ জন। এছাড়া রাজশাহী বোর্ডে ১ লাখ ৫০ হাজার ৯৫৪ জন, কুমিল্লা বোর্ডে ৯৫ হাজার ২০২ জন, যশোর বোর্ডে ১ লাখ ২৮ হাজার ৮০৯ জন, চট্টগ্রাম বোর্ডে ৯৯ হাজার ৬৬৪ জন, বরিশাল বোর্ডে ৬৪ হাজার ৯১৯ জন, সিলেট বোর্ডে ৭৬ হাজার ৯০৩ জন, এবং দিনাজপুর বোর্ডে ১ লাখ ২৪ হাজার ৮৭৯ জন। এছাড়া মাদরাসা বোর্ডের পরীক্ষার্থী ৮৮ হাজার ৪৫১ জন, কারিগরি বোর্ডে ১ লাখ ২৪ হাজার ২৬৪ জন এবং ডিআইবিএস পরীক্ষার্থী ৪৩ জন।

এই পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁসসহ সব ধরনের অব্যবস্থাপনা রোধে ইতোমধ্যে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। প্রথম দিন সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত বাংলা প্রথমপত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এবার এই পরীক্ষায় বসছে ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ পরীক্ষার্থী। গতবারের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী ৪০ হাজার ৪৮ জন বেড়েছে।

পরীক্ষাকে নির্বিঘ্ন করতে কোচিং সেন্টার বন্ধসহ অন্তত ২২ ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। পরীক্ষা চলাকালীন প্রশ্নফাঁসের গুজবে কান না দিতে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: