সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৪১ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ব্যালটে সিল না দিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি!

নিউজ ডেস্ক:: পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনের ৪র্থ ধাপে আজ রোববার ভোটগ্রহণ চলছে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়, রূপগঞ্জ, আড়াইহাজার উপজেলায়। সকাল ৮টা থেকে ভাটগ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোটগ্রহণ চললেও ভোটার উপস্থিতি খুব কম।

অনেক কেন্দ্রে ব্যালট পেপারে সিল না দিয়ে নীরব প্রতিবাদ জানাচ্ছেন ভোটাররা। কোনো কোনো ভোটার ব্যালট পেপারে লিখেছেন ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’, ‘খালেদা জিয়া জেলে কেনো জবাব চাই’। অনেকে বলেছেন, এটা ভোটারদের নীরব প্রতিবাদ।

এ ধরনের ব্যালট পেপার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো: জসিম উদ্দিন বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা আমার জানা নেই। যদি এমন ঘটে থাকে তাহলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।’

ভোটার উপস্থিতি কম কেন- এমন প্রশ্নে প্রিজাইডিং অফিসাররা জানিয়েছেন, মাত্র ভোট শুরু হলো আস্তে আস্তে লোক আসবে।

সরেজমিনে, কয়েকটি ভোট কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে সহকারী প্রিজাউডিং অফিসার, পোলিং অফিসাররা বসে বসে অলস সময় পার করছেন। ভোটার কম বিধায় তাদেরও চাপ কম। তাই বুথে বসে খোশগল্পে মজেছেন।

সোনারগাঁয়ে এবার মোট ৩ লাখ ৮ হাজার ৭১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এবার মোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১১৮টি, বুথের সংখ্যা ৭৫০টি। এছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার এবং তাদের সহায়তার জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে আছেন দুইজন করে মোট ২শ’ ৩৬ জন। এছাড়া পোলিং অফিসার আছেন ১ হাজার ৭শ’ ৫২ জন।

জানা গেছে, উপজেলা নির্বাচনে আড়াইহাজার উপজেলায় ভোট কেন্দ্র ১১৩টি, ভোটকক্ষ ৭১৭টি, মোট ভোটার দুই লাখ ৮৩ হাজার ৮৬৭ জন, পুরুষ ভোটার এক লাখ ৪৪ হাজার ১২২ জন, নারী ভোটার এক লাখ ৩৯ হাজার ৭৪৫ জন।

রূপগঞ্জ উপজেলায় ভোট কেন্দ্র ১২৭টি, ভোটকক্ষ ৮৭৫টি, মোট ভোটার তিন লাখ ৪৯ হাজার ৮৮৮ জন, পুরুষ ভোটার এক লাখ ৭৮ হাজার ৪৫৫ জন, নারী ভোটার এক লাখ ৭১ হাজার ৪৩৩ জন।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী নৌকা প্রতীকের মোশাররফ হোসেনের এজেন্টদের উপর হামলা ও কেন্দ্রে প্রবেশে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহফুজুর রহমান কালামের সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে সোনারঁগা উপজেলায় বাড়ী মজলিস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে। এছাড়া স্থানীয় এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার প্রভাব খাটিয়ে ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে কালাম সমর্থকরা।

নৌকার পোলিং এজেন্ট এবং ভোটাররা অভিযোগ করে বলেন, নৌকার এজেন্টরা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে চাইলে মারধর করে কাগজপত্র রেখে তাদেরকে গেইটের সামনে থেকে বের করে দিয়েছে ঘোড়া প্রতীক তথা কালামের সমর্থকেরা।

এ বিষয়ে থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সকাল থেকেই আমাদের এজেন্টদের মারধর করে কেন্দ্রের বাইরে বের করে দেয়া হয়।’

প্রিজাইডিং অফিসার জানান, ‘আমি শুনেছি বাইরে কিছু একটা হয়েছে, তবে কেন্দ্রের ভিতরে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। বাইরের পরিস্থিতি সম্পর্কে আমি কিছু জানি না।’

এছাড়া অন্যান্য কেন্দ্রগুলোতে সুষ্ঠু পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে জানা যায়।

সোনারগাঁও উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি গাজী মজিবুর রহমান জানান, ‘সম্পূর্ণ সুষ্ঠু পরিবেশে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে।’





নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: