সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ব্যারিস্টার সুমনের প্রশ্ন : পুলিশের সাইরেন দিয়ে কি ডাকাত ধরা যায়

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

যেখানেই সমস্যা সেখানেই লাইভে আসেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। তার দুঃসাহসী লাইভ গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে চুনারঘাটে ডকাতির পর একটি লাইভ। ডাকাতির ৫ মিনিট পর সেখানে পৌছে লাইভে আসেন তিনি।তিনি ওই পথ দিয়েই যাচ্ছিলেন।

লাইভে এসে তিনি বলেন, আমি ব্যারিস্টার সুমন চুনারঘাট থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে চন্ডিচড়া চা বাগান পার হয়ে রামগঙ্গাতে এসে দেখি এখানে তিন চারটা ট্রাক দাঁড়িয়ে আছে। মাধরপুর অনেক ব্যবসায়ী চানপুরে আসছিলেন, তারাও আটকে গেছেন। সামনে ডাকাতি হয়েছে।ওনাদের বক্তব্য প্রায়ই এখানে ডাকাতি হয়। পুলিশের গাড়ি থেকে শুরু করে কেউ থাকে না।ডাকাতির পর পুলিশ আসে সাইরেন বাজায়, সব ডাকাত চলে যায়।

আমি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের প্রসিকিউটর। আমি নিজেই ডাকাতের মুখে পড়ে গেছিলাম। আমার সিকিউরিটির ব্যবস্থা করা হয়েছে। কি সিকিউরিটি আপনার দেখেন। আমার নাকি কোনো সিকিউরিটির দরকার নেই। আমি না হয় বাঁচলাম না। আমি মরে গেলাম। তাতে কিছু যায় আসে না।

একজন বয়স্ক ব্যক্তিকে দেখিয়ে বলেন, দেখেন এই ভদ্রলোক মাধবপুর থেকে আসছেন।ওনার মেয়ে সন্তান সম্ভবা। তাদের কাছ থেকে টাকা পয়সা সব নিয়ে গেছে। ব্যারিস্টার সুমনের কথায় তারা সায় দেন। এসময় তাদের কাঁদতে দেখা যায়। তারা জানান, ডাকাত দলে ১০ থেকে ১২ জন ছিলো।তাদের সাথে থাকা সবকিছু ডাকাতরা নিয়ে গেছে।

সুমন বলেন, আমরা জানি এখানে ডাকাতি হয়। কিন্তু যাদের ডাকাতি ঠেকানো কথা তারা কি জানেন না, এখানে ডাকাতি হয়।একটা ডাকাত ধরতে পারে না।পুলিশের সাইরেন দিয়ে কি ডাকাত ধরা যায়?

এসময় সাইরেন বাজিয়ে পুলিশের একটি গাড়ি আসে। চুনারঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গাড়ি থেকে নেমে আসেন। তখন ব্যারিস্টার সুমন জানতে চান, পুলিশের কোনো ফোর্স কি সেখানে ছিলো কিনা?

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, তারা একটি জনসভায় ছিলেন। ডাকাতির খবর পেয়ে সেখান থেকে ছুটে এসেছে। তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে একটি জনসচেতনতা মূলক সভা করছিলাম। কিভাবে পাহারা বসানো যায় সে বিষয়ে।

এসব কথা শুনে অনেকটা রাগান্বিত হয়ে যান ব্যারিস্টার সুমন।তিনি বলেন, আমার ভাগ্য ভালো ৫ মিনিটের জন্য আমি ডাকাতদের পাই নি। এই ওসি সাহেরেই আমাকে নিরাপত্তা দেওয়ার কথা ছিলো।

এরপর সুমন যারা ডাকাতির কবলে পড়েছে তাদের সামনে এনে কার কি নিয়ে গেছে তা এক এক করে ওসিকে জানান।পরে ক্ষোভ প্রকাশ করে সংশ্লিষ্টদের প্রতি এই সমস্যার সমাধানের দাবি জানিয়ে লাইভ শেষ করেন।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: