সর্বশেষ আপডেট : ৩৫ মিনিট ১৯ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল

নিউজ ডেস্ক:: সিঙ্গাপুরে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। সিঙ্গাপুরে বিমানবন্দরে নেয়ার পরই তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। এ সময় ওবায়দুল কাদেরর রক্তচাপ স্বাভাবিক ছিল বলে জানা গেছে। পাশাপাশি শারীরিক অবস্থাও ছিল স্থিতিশীল। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএসএমএমইউর কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. এসএম মোস্তফা জামান।

এর আগে গতকাল সোমবার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় তাঁকে বহনকারী এয়ার অ্যাম্বুল্যান্স সিঙ্গাপুর পৌঁছায় এবং ৮টা ৫০ মিনিটে ওবায়দুল কাদেরকে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেওয়া হয়। তাঁর ব্যক্তিগত সচিব গৌতম চন্দ্র বার্তা সংস্থা ইউএনবিকে জানিয়েছেন, হাসপাতালে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা শুরু করেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

এদিন বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় হাসপাতালটির ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজি বিভাগের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ও প্রিন্সিপাল ডক্টর ফিলিপ কোহর তত্ত্বাবধানে তাকে ভর্তি করা হয়। স্ত্রী ইশরাতুন্নেসা কাদের এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন।

রবিবার সন্ধ্যা থেকেই সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের তিনজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক একটি এয়ার অ্যাম্বুল্যান্স নিয়ে ঢাকায় অবস্থান করছিলেন। গতকাল এ অঞ্চলের খ্যাতিমান হৃদেরাগ বিশেষজ্ঞ ভারতের দেবী শেঠিও বিশেষ বিমানে করে উড়ে এসে ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে যান এবং তাঁর মতামত জানান। পরিবারের সদস্য ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা শেষে বিকেল সোয়া ৩টায় ওবায়দুল কাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বের করে অ্যাম্বুল্যান্সযোগে নেওয়া হয় বিমানবন্দরের উদ্দেশে।

ওবায়দুল কাদেরকে হাসপাতাল থেকে বের করে নিয়ে যাওয়ার পূর্বমুহূর্তে প্রেস ব্রিফিংয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যালের ভিসি অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, ‘আমরা আগেই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আলাপ করে প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলাম। এরপর যেহেতু দেবী শেঠি আসছিলেন সে জন্য তাঁর মতামতের অপেক্ষায় ছিলাম। এ ছাড়া দর্শনার্থীদের ভিড়, অন্যদের ভিড়, চিকিৎসকদের ভিড়ও একটা সমস্যা তৈরি করে। তা ছাড়া উনার রক্তে কিছু ইনফেকশনের ব্যাপার আছে। আগের দিন যা ছিল ১৮ হাজার কাউন্টিং, তা এখন ২৬ হাজারে উঠেছে। সব মিলিয়ে দেবী শেঠির মতামত আমরা প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছি, তিনিও বাইরে পাঠানোর ব্যাপারে একমত হয়েছেন। তাই পাঠিয়ে দিচ্ছি।’



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: